ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

প্লাজমা দিলেন আরো দু’জন ২৪ ঘণ্টায় ১০ জনের মৃত্যু

ঢামেকে ১৯ দিনে মৃত্যু ১৮৪ আরো এক চিকিৎসকের মৃত্যু

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০২০, ১২:০২ এএম

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গতকাল বুধবার নতুন করে আরো ১০জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনাভাইরাস পজিটিভে ৩ জন পুরুষের ও ২জন নারীসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে অন্যরা মারা যান। গত ২মে থেকে করোনা ইউনিটে গতকাল বুধবার বিকাল সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত ঢামেক হাসপাতালে মোট নারী ও পুরুষ মিলে ১৮৪জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৩৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান। অন্যদিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্লাজমা দিলেন করোনাজয়ী এক চিকিৎসকসহ দুজন। তারা হলেন-স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক আবিদ পারভেজ ও ধানমন্ডির এক ব্যবসায়ী আহসানুল ফরিদ। এ পর্যন্ত মোট পাঁচজন করোনাজয়ীদের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়েছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত মঙ্গলবার ১৪জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে ৩ জন পুরুষের। ৩জন নারীসহ অন্যান্যরা করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান। এছাড়া গতকাল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন ফটোসাংবাদিক ও একজন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ওয়ার্ড মাস্টার রিয়াজ উদ্দিন জানান, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরো ১০ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে করোনা ভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে ৩ জন পুরুষের ও ২ নারীসহ অন্যরা করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

তিনি আরও বলেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে প্রায় ১৪শ› রোগী আসেন। এর মধ্যে প্রায় ৮শ›রোগী ভর্তি করা হয়। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। রোগী ভর্তি ও মৃতের সংখ্যা আপডাউন করছে। যারা করোনাভাইরাসে উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন, তাদের লাশ গুলো তাদের আত্মীয় স্বজনের কাছে প্রর্যায়ক্রমে হস্তান্তর করা হয়েছে। আর করোনা পজিটিভে যারা মারা গেছেন সেই সব লাশগুলো করোনা বিধিমোতাবেক তাদের আত্মীয় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ঢামেকে আরো দুইজনের প্লাজমা সংগ্রহ : ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্লাজমা দিলেন করোনাজয়ী এক চিকিৎসকসহ দুজন। তারা হলেন-স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক আবিদ পারভেজ ও ধানমন্ডির এক ব্যবসায়ী আহসানুল ফরিদ। এ পর্যন্ত মোট পাঁচজন করোনাজয়ীদের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়েছে।
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান ও প্লাজমা থেরাপি সাব কমিটির প্রধান অধ্যাপক ডা. এম এ খান সাংবাদিকদের জানান, মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতালের নতুন ভবনের ২য় তলায় ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগে করোনাজয়ী ডা. আবিদ ও ব্যবসায়ী আহসানুলের শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়। তাদের শরীর থেকে ৪০০ এমএল প্লজমা সংগ্রহ করা হয়। আমাদের এই কার্যক্রম প্রতিদিনই চলমান থাকবে। করোনাজয়ী যে কেউ এলেই পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তার শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হবে।
তিনি আরো বলেন, এ পদ্ধতিতে আমরা আশাবাদী। ইনশাল্লাহ সফল হবো। মিডিয়ার মাধ্যমে আমি জানাতে চাই, যারা করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন, তারা যেন এই মহতি কাজে এগিয়ে আসেন। প্লাজমা দিলে কোনো ক্ষতি হবে না। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে করোনা রোগীর শরীরে পরীক্ষামূলক প্লাজমা থেরাপি চিকিৎসা শুরু করা হবে।

গত শনিবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দুই চিকিৎসকের শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়। একজনের শরীর থেকে ৫০০ এমএল আরেকজনের শরীর থেকে ৪০০ এমএল প্লাজমা সংগ্রহ করা হয়। প্লাজমার এন্টিবডি নির্ণয়ের জন্য স্পেন থেকে কিট চলে এসেছে। প্লাজমা এন্টিবডি নির্ণয় পরীক্ষায় ১.১৬০ টাইটার হলে খুব ভালো হয়। যারা অতিরিক্ত হার্টের সমস্যায় ভুগছেন এবং ডায়াবেটিস আক্রান্ত ইনসুলিন নিচ্ছেন সেসব রোগীর কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ না করাই ভালো। করোনা ভাইরাসজয়ী ১৮থেকে ৫৫বছর পর্যন্ত ব্যক্তিদের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা হবে।

করোনায় আরো এক চিকিৎসকের মৃত্যু : তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন এন্ড ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডের চীফ মেডিক্যাল অফিসার ও মহাব্যবস্থ’াপক ডাক্তার আজিজুর রহমান করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। এ নিয়ে করোনায় মোট চারজন চিকিৎসকের মৃত্যু হলো। গত মঙ্গলবার রাত দশটার সময় মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ’তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ডাক্তার আজিজুর রহমানের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, তিনি দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হন। পরে তাকে মুগদা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তিনি স্ত্রী এক ছেলে এক মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও আত্মীয় রেখে গেছেন। ডাক্তার আজিজুর রহমান ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ থেকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের পড়াশোনা শেষে তিতাস গ্যাস কোম্পানিতে যোগদান করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন