ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

‘জীবাণুনাশক টানেল’ বন্ধে সরকারকে নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২০, ১২:০৫ এএম

মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কথিত ‘জীবাণুনাশক টানেল’ বন্ধে লিগ্যাল নোটিস দেয়া হয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট বারের আইনজীবী ব্যারিস্টার শিহাবউদ্দিন খান ইমেইলে এ নোটিস দেন। নোটিসে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, আইইডিসিআরের পরিচালক, জনস্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলীকে বিবাদী করা হয়েছে। প্রাপ্তির ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে স্থাপিত টানেল বন্ধে পদক্ষেপ না নিলে বিবাদীদের বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে-মর্মে হুঁশিয়ারি দেয়া হয় নোটিসে।

নোটিসে উল্লেখ করা হয়, মানবদেহ জীবাণুমুক্ত করার নামে ক্ষতিকর কেমিকেল মিশ্রিত জীবাণুনাশক ব্যবহার বন্ধ হওয়া জরুরি। এটা করা না হলে নাগরিকের স্বাস্থ্য দীর্ঘমেয়াদী ঝুঁকিতে পড়তে পারে। ইতোমধ্যে করোনাভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) নির্দিষ্ট পদ্ধতি অবলম্বনের কথা জানিয়েছে। বাংলাদেশে সম্প্রতি বক্স, চেম্বার, টানেল, গেট ও বুথের মাধ্যমে সরাসরি মানুষের দেহে জীবাণুনাশক ছিটিয়ে করোনা ভাইরাস দূর করার পদ্ধতি সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিয়েছে।

গত ১৬ এপ্রিল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেশের সব সিভিল সার্জনকে চিঠি দিয়ে জীবাণুনাশক টানেল ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। গত ১১ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ সব পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নির্দেশনা জারী করে। ওই বিধিমালার ১ নম্বর নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘প্রয়োজনীয় সংখ্যক জীবানুমুক্তকরণ টানেল স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা প্রদান করা যেতে পারে।’

এক মাসের মধ্যে একই বিষয়ে দুই ধরণের সিদ্ধান্ত জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। নোটিশে আরো উল্লেখ করা হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ব্লিচিং থেকে শুরু করে যেকোনো ধরনের জীবাণুনাশক মানবদেহে ব্যবহার করতে নিষেধ করেছে। সংস্থাটি বলেছে, এরকম জীবাণুনাশক চোখ ও চামড়ার বড় ক্ষতি করতে পারে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন