ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২৪ ঘণ্টায় ১৬ জনের মৃত্যু

ঢামেকের করোনা ইউনিটে সাবেক অতিরিক্ত সচিবের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০২০, ১২:০৭ এএম

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন তথ্য কমিশনের সাবেক অতিরিক্ত সচিব কৃষিবিদ তৌফিকুল আলম (৫৯) মারা গেছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিট-২-এ চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

অন্যদিকে গত ২৪ঘন্টায় ঢামেকের করোনা ইউনিটে ১৬জন মৃত্যুবরন করেছেন। এদের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪জনের মৃত্যু হয়েছে। ৪জন মহিলাসহ অন্যান্যরা করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরন করেছেন। গত ২মে থেকে করোনা ইউনিটে গতকাল বিকাল সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত ২১দিনে মোট নারী ও পুরুষ মিলে ২১৮জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৪৪জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান এবং অন্যরা করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান।
ঢামেক হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির উদ্দিন জানান, তথ্য কমিশনের সাবেক অতিরিক্ত সচিব তৌফিকুল আলম করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ার পর এপ্রিলে ঢামেকে করোনা ইউনিট চালু করার কয়েক দিন পরে ভর্তি হন। তখন থেকেই তিনি আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর কিছুদিন পর তিনি কিছুটা সুস্থ হলে তাকে ভিআইপি কেবিনে নেয়া হয়। এরপর তাকে আবার আইসিইউতে নেয়া হয়। সেখান থেকে সর্বশেষ তাকে হাসপাতালের নতুন ভবনের আইসিইউতে নেয়া হয়। চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় সেখানে তার মৃত্যু হয়।
ঢামেকে শিশুদের জন্য প্রথম করোনা ইউনিট : ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শিশুদের জন্য পৃথক ইউনিট চালু করা হয়েছে। গত ১০ মে এ ইউনিট চালু হওয়ার মাধ্যমে দেশে প্রথম পৃথক শিশু করোনা ইউনিট স্থাপিত হয়েছে। গতকাল ওই ইউনিটে ১৭জন শিশু চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সাঈদা আনোয়ার জানান, এ ইউনিটে বর্তমানে ১৭টি শিশু চিকিৎসাধীন রয়েছে। চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন অনেকেই। মারা গেছে তিনটি শিশু। তবে যে শিশুগুলো মারা গিয়েছে তাদের তীব্র শ্বাসকষ্ট ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, শেষ সময়ে এসেছে, সব ম্যানেজমেন্ট করার পরও তাদের বাঁচানো যায়নি।
গত ২ মে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবন এবং পুরাতন বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটকে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য নির্ধারণ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তারপর গত ১০ মে প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত এইচডিইউকে (হাইডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) শিশু করোনা ইউনিট হিসেবে স্থাপন করা হয়েছে। প্রথমে সেখানে ১৪টি বেড নিয়ে শুরু হলেও পরে আরও ১০টি বেড সংযুক্ত করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ১৪ বেডের প্রতিটি বেডের সঙ্গেই মনিটর থেকে শুরু করে হেড বক্স অক্সিজেন সবই রয়েছে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন