ঢাকা, বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কুষ্টিয়ার বটতৈল ইউনিয়নের জামাল মেম্বর শ্রীঘরে

কুষ্টিয়া থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০২০, ৪:১৩ পিএম

কুষ্টিয়ার সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নে রেশন কার্ড জোরপূর্বক ভাবে ছিনিয়ে নেবার সময় সন্ত্রাসী হামলায় একজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আটক হয়েছেন ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য জামাল মৃধা।

জানাযায়, গত ২৩মে আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে বটতৈল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য জামাল মৃধা ও তার সন্ত্রাসী গ্রুপের সদস্য বটতৈল মোড়ের ছবেদ আলীর ছেলে মুছাব, বটতৈল ফকিরপাড়ার মৃত মজিবরের ছেলে তাইজাল আলীকে সঙ্গে নিয়ে একই গভীর রাতে এলাকার মিজান ডাক্তারের নাম ভাঙ্গিয়ে বটতৈল ফকিরপাড়া এলাকার মৃত আলী হোসেনের ছেলে লিয়াকত আলী (৫০) এর বাড়ীতে প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে তার রেশন রেশনকার্ড চাই। লিয়াকত আলী তার রেশন কার্ড দিতে অস্বীকৃতি জানালে জালাম,মুছাব ও তাইজাল মিলে লিয়াকত আলীকে মারধর শুরু করে। মারধরের একপর্যায়ে লিয়াকত আলীকে ঘুষি মেরে তার দাঁত ভেঙ্গে দেয়। বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে তারা লিয়াকত আলীকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি প্রদর্শন করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়।পরে লিয়াকত আলীকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন লিয়াকত আলীকে এখনো অবদি হুমকি প্রদর্শন করে আসছে বলে জানা গেছে। তবে সে মিজান ডাক্তারের নির্দেশে রেশন ছিনিয়ে নিতে যায় কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এব্যাপারে মিজান ডাক্তারের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানান, বাদির অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে মামলা নং ১৬ তারিখ ২৪-০৫-২০২০।

এলাকাবাসী জানান, জামাল মৃধা একজন মাদক সেবী। নিয়মিত মাদক সেবন করে এলাকায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলেও সে প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পাইনা। আবার কেউ প্রতিবাদ করলেও তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে তার উপর চালানো হয় নির্যাতন। যে কারনে তার বহু অপকর্ম এলাকাবাসী সহ্য করতে বাধ্য হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন