ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চীনের সেনাকে যুদ্ধপ্রস্তুতির নির্দেশ দিলেন শি জিনপিং

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০২০, ১২:১৪ পিএম | আপডেট : ৩:৫১ পিএম, ২৭ মে, ২০২০

চীন ভারতে তুমুল উত্তেজনা। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং মঙ্গলবার তাদের সেনাকে যুদ্ধপ্রস্তুতির নির্দেশ দিয়েছেন। সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি দৃশ্যমান জানিয়ে তাদের দৃঢ়ভাবে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। যদিও তিনি কোনও বিশেষ দেশ বা প্রতিপক্ষের নাম করেননি, কিন্তু প্রকৃত সীমান্তরেখায় ভারত ও চীনের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনার মধ্যেই এমন মন্তব্য করেছেন তিনি।

৬৬ বছরের এই রাষ্ট্রনায়ক বেজিংয়ে চলতে থাকা সংসদীয় অধিবেশনের সময় ‘পিপলস লিবারেশন আর্মি' ও ‘পিপলস আর্মড পুলিশ ফোর্স'-এর প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে এই মন্তব্য করেন।

দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও যে কোনও জটিল পরিস্থিতিকে সঠিক ভাবে মোকাবিলা করার জন্য তিনি নির্দেশ দিয়েছেন চিনা সেনাকে। সেদেশের ‘জিনহুয়া নিউজ এজেন্সি'-র প্রতিবেদন থেকে একথা জানা গিয়েছে। তবে তিনি চিনের জন্য বিপজ্জনক হয়ে ওঠা কোনও বিশেষ ইস্যুর কথা উল্লেখ করেননি।

গত কয়েক দিন ধরেই লাদাখ ও উত্তর সিকিমের প্রকৃত সীমান্তরেখায় ভারত ও চিনের সেনা প্রভূত ভাবে মোতায়েন হয়েছে। আর এর ফলে উত্তেজনার পারদ ক্রমশই চড়ছে।

তবে শুধু ভারত নয়— মার্কিন সেনার সঙ্গেও উত্তেজনা তৈরি হয়েছে চীনের সেনাবাহিনীর। মার্কিন নৌবাহিনীকে বিতর্কিত দক্ষিণ চীন সাগরে টহল দিতে দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি করোনা সংক্রমণকে কেন্দ্র করেও উত্তপ্ত বাদানুবাদ হয়েছে চীন ও আমেরিকার।

এদিকে কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রনালয় জানিয়েছে, সীমান্তরেখায় তৎপর রয়েছে ভারত। তাদের দাবি, ভারত বরাবরই সীমান্তের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। একই সঙ্গে এও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ভারত দেশের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

৫ মে ২৫০ চীনা সেনা ও ভারতীয় সেনার মধ্যে সংঘর্ষের পর থেকেই পূর্ব লাদাখের পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হয়েছে। ওইদিন ভারতীয় ও চীনা সেনা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছিল লোহার রড, লাঠি নিয়ে। এমনকী পাথর ছোড়াও হয়েছিল। জখম হয়েছিলেন উভয়পক্ষের সেনারাই।

সূত্র: এনডিটিভি

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Hasib ২৭ মে, ২০২০, ১:৩০ পিএম says : 0
যুদ্ধ নয় শান্তি চাই।
Total Reply(0)
Abdur Rafi ২৭ মে, ২০২০, ১:৫৬ পিএম says : 0
চিনের প্রতি বিদ্বেষ ছড়াতে এক নাম্বার ভারত। চিন-ভারতের যুদ্ধের দরকার আছে। দুই দেশই এখন ইসলাম বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত।
Total Reply(0)
Abul Kalam Azad ২৭ মে, ২০২০, ২:২৫ পিএম says : 0
India is the most selfish country. India has increasing their aggression to the small countries therefore China could give them proper treatment.
Total Reply(1)
Aakash ২৭ মে, ২০২০, ৩:২২ পিএম says : 0
be careful ... may be after few years China will occupy Bangladesh also as they already have occupied Taiwan and Hongkong ... if you'll support China...this could become an example of "Khal kete kumir ana" ....
ash ২৮ মে, ২০২০, ৫:১৩ এএম says : 0
THIS IS THE TIME TO MAKE INDIA 100 PICECS !
Total Reply(0)
Salamat Khan ২৯ মে, ২০২০, ৭:৩৮ পিএম says : 0
No war l want peace....
Total Reply(0)
Khurshed Alam ৩০ মে, ২০২০, ৯:৩০ এএম says : 0
China is preparing for war .But it is not pretty clear which will be his first frontier. Because there are lot of International pressure to China .This exercise may be a firm footings to defend his enemies. We must keep our open and observe the situation closely as we have bear the heat if something escalates in this region.
Total Reply(0)
Nazrul ৩০ মে, ২০২০, ৯:২৮ পিএম says : 0
We want peace
Total Reply(0)
Nazrul ৩০ মে, ২০২০, ৯:২৮ পিএম says : 0
We want peace
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন