ঢাকা মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ষষ্ঠদিনের মতো চলছে ব্যাপক সংঘর্ষ, ৪০টি শহরে কারফিউ জারি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০২০, ২:১৩ পিএম

এক সপ্তাহ আগে পুলিশ হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শুরু হওয়া চলমান বিক্ষোভে উত্তাল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বিক্ষোভকারীদের ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ ঠেকাতে ইতিমধ্যেই অন্তত চল্লিশটি শহরে কারফিউ জারি করা হয়েছে। তবে কারফিউ না মেনে প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন বিক্ষোভকারীরা। লস এঞ্জেলস, নিউইয়র্ক, শিকাগো, ফিলাডেলপিয়াসহ বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভকারীরা জমায়েত হয়েছেন। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার শেল ও মরিচের গুড়ো নিক্ষেপ করেছে। এসময় পুলিশের সাথে সংঘর্ষ হলে আহত হন বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারী।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দেশটির কয়েকটি শহরে পুলিশের গাড়িতে আগুন ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে টিয়ার শেল ও ফ্ল্যাশ গ্রেনেড ছুড়ে। স্থানীয় বিভিন্ন টেলিভিশনে পুলিশের গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের দৃশ্য দেখা যায়।
এবিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, 'ফিলাডেলফিয়াতে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, ভয়াবহ। বিক্ষোভকারীরা দোকান লুটপাট করছে। আমাদের গ্রেট ন্যাশনাল গার্ডকে ডাকুন'। খবর বিবিসি বাংলার।
নিউইয়র্ক, শিকাগো, ফিলাডেলফিয়া ও লস অ্যাঞ্জেলসে দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার শেল ও মরিচের গুড়ো নিক্ষেপ করেছে। ন্যাশনাল গার্ড রোববার জানিয়েছে, ওয়াশিংটন ডিসিতে বিক্ষোভকারীরা আবারও জমায়েত হয়ে পুলিশের প্রতি মারমুখী আচরণ করেছে।
রোববারও কয়েকটি জায়গায় পুলিশের গাড়িতে আগুন ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। দাঙ্গা পুলিশও টিয়ার শেল ও ফ্ল্যাশ গ্রেনেড ছুড়ে পাল্টা জবাব দিয়েছে। ফিলাডেলফিয়াতে স্থানীয় টিভিতে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের দৃশ্য দেখানো হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান্টা মনিকায় লুটপাটের খবর পাওয়া গেছে।
ডেনভারে হাজার হাজার মানুষ মুখে বেঁধে ও পেছনে হাত রেখে ‘আমি নিঃশ্বাস নিতে পারছি না’ স্লোগান দিয়ে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে অংশ নিয়েছে। মানুষ বড় ধরনের প্রতিবাদে অংশ নিয়েছে আটলান্টা, বোস্টন, মিয়ামি ও ওকলাহোমা শহরে। কয়েকটি জায়গায় দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে সহিংসতা হয়েছে। আটলান্টায় দুজন পুলিশ কর্মকর্তাকে শক্তি প্রয়োগের দায়ে বরখাস্ত করা হয়েছে।
বিক্ষোভ শুরুর পর প্রায় ১০০ ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। ফ্লয়েডকে হত্যার দায়ে একজন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন