ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

স্বরূপে ফিরেছে ঢাকা

যানজট-মোড়ে মোড়ে ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

লকডাউন সীমিত করে সরকারি অফিস খেলার তৃতীয় এবং গণপরিবহণ চালুর দ্বিতীয় দিনেই স্বরুপে ফিরেছে চিরচেনা রাজধানী ঢাকা। সড়কে গণপরিবহনের সংখ্যা কম হলেও সব ধরনের বিপুল পরিমাণ গাড়ি সড়কে চলাচল করছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। করোনা সংক্রমণের ভীতির মধ্যেই গতকাল রাজধানীর অনেক সড়কেই যানজট দেখা গেছে। অপরদিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেট, ঢাকা-আরিচা, ঢাকা-ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল মহাসড়ক থেকে ঢাকার প্রবেশপথেও যানজট লক্ষ্য করা গেছে।

জানতে চাইলে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জুন মাস হবে বাংলাদেশের জন্য ভয়ঙ্কর মাস। সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেই সবকিছু খুলে দিয়ে পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তোলা হচ্ছে। গতকালও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামসহ বাম দলের নেতারা লকডাউন তুলে নেয়া এবং গণপরিবহণ চালুর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছেন।

রাজধানীর সড়কে গণপরিবহণ ছাড়াও ট্রাক লরি, লেগুনা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ব্যক্তিগত গাড়ির আধিক্য দেখা গেছে। বলা যায় সব ধরনের যানবাহনই নগরীর সড়কে চলাচল করছে। যানবাহনের অধিক চাপে রাজধানীর বনানী, বিজয় সরণি, যাত্রাবাড়ী, আব্দুল্লাহপুর ও গাবতলী এলাকায় সিগনালে অপেক্ষা করতে হয়েছে গাড়িগুলোকে। ব্যক্তিগত গাড়ি ও সিএনজি অটোরিকশা বেড়েছে রাজধানীর সড়কে। এখনো বাইরের জেলাগুলো থেকে ঢাকায় ফিরছে কর্মজীবী মানুষ। ফলে বিভিন্ন জেলা শহর থেকে রাজধানীর সংযোগ মহাসড়কে যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে। রাজধানীর ভেতরেও বিভিন্ন এলাকায় মানুষের ভিড় দেখা গেছে। চলাচলকারীদের অধিকাংশের মুখে মাস্ক থাকলেও বেশির ভাগের হ্যান্ডগøাভস নেই। করোনা ট্রান্সমিশন থেকে রক্ষার সচেতনতার অভাবে সামাজিক দূরত্ব রক্ষার বালাইও দেখা যায়নি।

কয়েকদিন আগেও অনেককেই পায়ে হেঁটে কর্মস্থলে যেতে দেখা গেছে। কিন্তু গণপরিবহন চালুর পর পরই রাজধানী স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শনিরআখড়া ও নারায়ণগঞ্জের চিটাগাং রোড এলাকায় দেখা যায়, মহাসড়কে প্রচুর গাড়ি। রাজধানীর আশপাশের জেলাগুলোর বিভিন্ন রুটে যেমন গণপরিবহণ আসা যাওয়া করছে; তেমনি কিছু দূর পাল্লার বাসও দেখা গেছে।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গণপরিবহণ চালু হওয়ায় পরিবহণ শ্রমিকদের কর্মচাঞ্চল্য বেড়ে গেছে। যাত্রাবাড়ী মোড়ে দেখা গেল, ঘণ্টায় ঘণ্টায় যানবাহনের অধিক চাপে যানজট লাগছে। গুলিস্তান, বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেইট পয়েন্টে দেখা যায়, প্রচুর গাড়ি, তবে যাত্রী কম। সিএনজি অটোরিকশা, ইজিবাইক, রিকশা, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, পিকআপ, মিনি ট্রাকসহ সব ধরনের যানবাহনই চলছে।

রাজধানীর সাইনবোর্ড ও চিটাগাং রোড এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, ঢাকামুখী সড়কে পুরো যানজট লেগে আছে। ধীরগতিতে চলছে এসব যানবাহন। দূরপাল্লার বাস ও গণপরিবহন ছাড়াও মহাসড়কে ইজিবাইকসহ সবই চলছে। যাত্রী পরিবহনকারী গাড়িগুলোতে শারীরিক দূরত্ব মানার বালাই নেই। ভ্যানে গাদাগাদি করে মানুষ চলাফেরা করছে। জানা যায়, বিমানবন্দর সড়ক ও গাবতলী সড়কে গতকাল গাড়ির চাপ ছিল বেশি। মহাখালীতে থেমে থেমে যানবাহন চলতে দেখা যায়। গাড়ি সামাল দিতে পুলিশকেও হিমশিম খেতে হয়।

ঢাকাকে বলা হয় যানজটের শহর। করোনাভাইরাসের পাদুর্ভাবের কারণে সংক্রমণ ঠেকাতে গণপরিবহণসহ প্রায় সবকিছু বন্ধ ছিল দীর্ঘদিন। সচিবালয়সহ সরকারি অফিস, ব্যাংক-বীমা চালু এবং সব ধরনের যানবাহনের চলাচল খুলে দেয়ার পর নির্বিঘ্নে মানুষ চলাচল করতে শুরু করে। ঘনবসতিপূর্ণ ঢাকা মহানগরীতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি। প্রচারণা চলছে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করে সীমিত পর্যায়ে চলাফেরা করার। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীতে যানবাহন ও মানুষের চলাচল বাড়ছে। যানজটের শহর ঢাকা যেন আবার স্বরুপে ফিরে গেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Asad Khan ৩ জুন, ২০২০, ৩:৫৫ এএম says : 0
Gadahai gol khai golaia.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন