ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২১ জনের মৃত্যু

করোনা উপসর্গ কোয়ারেন্টিনে ৫৮ হাজার ৫৪৫

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনার উপসর্গ জ্বর, শ্বাসকষ্ট, সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হয়েছে সারা দেশে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম চাঁদপুর ও খুলনায় তিনজন করে, ঝালকাঠি, মুন্সীগঞ্জও গাজীপুরে দুইজন করে, মৌলভীবাজার, ফেনী, লাকসাম. কক্সবাজার গফরগাঁও ও কলাপাড়ায় একজন করে। তবে এদের কারো শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ছিল কিনা তা নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। তবে নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে।
এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে আরও ৩৮৮ জনকে এবং বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন ৬ হাজার ২৪০ জন। ছাড় পেয়েছেন ১৬৯ জ জন । গত ২৪ ঘণ্টায় হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে ২ হাজার ৫০৬ জনকে। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে ২ লাখ ৯০ হাজার ৩৮৫ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৭ জন। বর্তমানে হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৫৮হাজার ৫৪৫ জন।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, চট্টগ্রামে উপসর্গ নিয়ে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল জেনারেল হাসপাতালে মারা যান প্রবীণ আইনজীবী কবির চৌধুরী (৮৫)। তার হৃদরোগও ছিলো। অন্যরা হলেন, করিম উল্লাহ (৫৩) ও পুলিশের এক এএসআই মোর্তজা কাইয়ুম (৪৫)।
এদিকে, প্রবীণ এ আইনজীবী কবির চৌধুরী জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ছিলেন। ১৯৯১ সালে তিনি আনোয়ারা আসনে বিএনপির মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশ নেন। তার ইন্তেকালে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, বিএনপির ভাইস চেয়াম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, নোয়াখালীতে নতুন করে আরও ৮১জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে কয়েকজন চিকিৎসক, একজন কাউন্সিলর ও ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজন রয়েছেন। এনিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত মোট ৭৬৯জন। গতকাল সকালে জেলা সিভিল সার্জন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তদের মধ্যে সদরে ৩১, বেগমগঞ্জে ৪৩, সেনবাগে ৫, সুবর্ণচরে ১ ও চাটখিল উপজেলায় ১জন রোগী রয়েছেন। জেলায় মোট আক্রান্ত ৭৬৯জন। যার মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৮৭জন। আইসোলেশনে রয়েছেন ৬৬৫জন। মারা গেছেন ১৭জন। মোট আক্রান্তদের মধ্যে বেগমগঞ্জে ৩৬৯, সদরে ১৬৯, কবিরহাটে ৬৮, সোনাইমুড়ীতে ৪৭, চাটখিলে ৪৫, সেনবাগে ৩৬, সুবর্ণচরে ২১, কোম্পানীগঞ্জে ৮ ও হাতিয়ায় ৬জন।
সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. নিলিমা ইয়াছমিন বলেন, উপজেলা নতুন আক্রান্ত ৩১জন। যার মধ্যে জেনারেল হাসপাতালের একজন চিকিৎসক, নোয়াখালী পৌরসভার একজন কাউন্সিলর ও জেলা শহরসহ উপজেলার একাধিক ব্যবসায়ী এবং বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজন রয়েছে।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণাঞ্চলে নতুন আক্রান্ত ৫৫ জনের মধ্যে বরিশালেই ৪৫। এসময়ে বরিশাল, পটুয়াখালী ও পিরোজপুরে ৩জনের মৃত্যু ঘটেছে। এ নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে মৃত্যু সংখ্যা ১৪। আর গত ২৪ ঘণ্টায় মহানগরীতে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩০জন। নতুন করে আরো ১৬ পুলিশকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনারও রয়েছেন বলে বিএমপি’র দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে।
এ অঞ্চলে মোট আক্রান্ত ৬৬২ জনের মধ্যে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা মাত্র ১৭৫। তবে এসময়ে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ছিল ৬৭৫। যার মধ্যে ইতোমধ্যে ৩০৮ জন সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র লাভ করেছেন।
গতকাল পর্যন্ত এ হাসপাতালটির আইসোলেশনে ১৬৮ জন ও করোনা ওয়ার্ডে ৭১ জন ভর্তি হয়েছে। যার মধ্যে আইসোলেশন থেকে ৯৯ জন ও করোনা ওয়ার্ড থেকে ২৬ জন ছাড়পত্র লাভ করেছেন। তবে এ পর্যন্ত আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৩৩ জন ও করোনা ওয়ার্ডে ৬ জনের মৃত্যু ঘটেছে বলে জানা গেছে।
খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন ওয়ার্ডে করোনা উপসর্গ নিয়ে তিনজনের জনের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার রাতে সাড়ে ১০ টায় ফারুক হোসেন (৫২) নামের এক ব্যক্তি এবং গতকাল নজরুল ও তহমিনা (৩৬) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়।
ফারুক হোসেন যশোর জেলার ঝিকরগাছা থানার বেতখানা গ্রামের কিতাব আলীর ছেলে এবং তহমিনা যশোর জেলার মনিপুর থানার গাংরা গ্রামের মজিবরের স্ত্রী ও নজরুল নগরীর শেখপাড়ার মো. নুর ইসলামের ছেলে।
খুমেক হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন ওয়ার্ডে মূখপাত্র ডা. শৈলান্দ্রনাথ বলেন, করোনা উপসর্গ নিয়ে সোমবার বিকেল ফারুক হোসেন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল। পরে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া তহমিনা সোমবারে কিডনি সমস্যা নিয়ে হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ড ভর্তি হয়েছিল। পরে শ্বাসকষ্ট বাড়লে রাতে তাকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। গতকাল ভোর রাত ৫ টায় তার মৃত্যু হয়। তাদের করোনা আক্রান্ত ছিল কিনা তা জানার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।
ময়মনসিংহ ব্যুরো জানায়, ময়মনসিংহে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৬৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলায় একদিনে এটিই সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা সিভিল সার্জন ডা. এ.বি.এম মসিউল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, নতুন আক্রান্তদের মাঝে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন এলাকায় ৩৬ জন, মমেক হাসলপাতালের দুই ডাক্তারসহ ১৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী। ঈশ্বরগঞ্জ ও ত্রিশাল উপজেলায় পাচঁ জন করে, নান্দাইলে চার জন রয়েছেন।
তিনি আরও জানান, এনিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা ৫৬৫ জন। আক্রান্তদের মাঝে বর্তমানে হাসলপাতালে ভর্তি রয়েছেন ২১ জন। হোম আইসোলেশনে আছেন ৩৪১ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ১৮৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের।
বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার থেকে জানান, কক্সবাজারে গত দুইদিনে করোনাকরোনা উপসর্গে মারা গেছেন ৭ জন। গতকাল করোনায় এবং করোনা উপসর্গে এক রোহিঙ্গাসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।
এর মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক বৃদ্ধ অপরজন কক্সবাজার সদরের ইসলামপুর এলাকার বদিউল আলম আযাদ (৪৫)। তিনি করোনা উপসর্গ নিয়ে গতকাল ভোরে চট্টগ্রাম মেডিকেলকলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। ১ জুন কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন ৪জন। মৃদুল পাল (৪২) নামে একজন টেকনাফ থেকে রোববার রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আনার পথে মারা যান।
জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে মারা গেছেন কক্সবাজার পৌর এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ করিম (৩০), শহরের পাহাড়তলী এলাকার ব্যবসায়ী এসারুল করিম (৩২), চকরিয়ার নুর হোসেন (৬৫) ও টেকনাফের আনোয়ারা বেগম (৬৫)। এতে করোনায় ও করোনা উপসর্গে গতকাল পর্যন্ত কক্সবাজারে মৃত্যুর সংখ্যা হল ২১ জন।
এদিকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে করোনার কারণে ডাক্তার শূন্য হয়ে পড়েছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ১৫ জন ডাক্তার, ২৫ জন নার্স, ১৭ জন স্টাফসহ মোট ৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মে মাসের ১১ তারিখে কক্সবাজারের রোগী ছিল ১০১ মাত্র। তার ২২ দিন পর গতকাল পর্যন্ত রোগীর সংখ্যা ৩২ জন রোহিঙ্গাসহ ৮০২ জন।
স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে জানান, চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ২ জনসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মঙ্গলবার ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে আইসোলেশন ইউনিটে আসমা আক্তার (৩২) নামে এক নারী মারা যায়। জেলার হাইমচর উপজেলার বাসিন্দা আসমা আক্তার সোমবার দিবাগত রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে আসেন।এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তির পরামর্শ দেন ।সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে ওই নারীর মৃত্যু হয় । দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে সমীর চন্দ্র (৪২) নামে এক ব্যক্তি মারা যান। তিনি দুপুর ২টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হন। চাঁদপুর সদর জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও করোনা বিষয়ক ফোকালপার্সন ডা সুজাউদ্দৌলা রুবেল জানান, করোনা টেস্টের জন্য তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের দাফন ও সৎকার করা হবে। এছাড়া সকালে রহিম কবিরাজ (২৯) নামে এক ব্যক্তি করোনা উপসর্গ নিয়ে নীজ বাড়িতে মারা যান। চাঁদপুর সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড তার বাড়ি।
এদিকে, চাঁদপুরে আরো ৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১৫জন । নতুন আক্রান্তদের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ২জন, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ২জন এবং হাজীগঞ্জ উপজেলায় ১জন। চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় স‚ত্র জানায়, সোমবার রাত সাড়ে দশটার পর ১৪ টা রিপোর্ট আসে। সেখানে ৫ জনের করোনা পজিটিভ। বাকি ৯টি নেগেটিভ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সনাক্ত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা থেকে আসা ৪০০ টি রিপোর্টে ৩৯ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানা যায়। আক্রান্তরা হলো ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় ১৩ জন, নবীনগরে ৫ জন, বিজয়নগরে একজন, কসবায় ৮ জন, বাঞ্ছারামপুর ৫ জন ও নাসিরনগরে ৬ আশুগঞ্জে ১ জন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন একরাম উল্লাহ জানান, এনিয়ে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭০ জনে দাঁড়ালো। আক্রান্তদের আইসোলেশনে রাখার প্রক্রিয়া চলছে।
ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা জানান, ঝালকাঠির নলছিটিতে জামাল উদ্দিন হাওলাদার নামে (৬০) এক ব্যক্তির করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকাল ১০টায় উপজেলার রায়াপুর গ্রামের বাড়িতে তাঁর মৃত্যু হয়। এক সপ্তাহ ধরে তাঁর শ্বাসকষ্ট, জ্বর ও সর্দি ছিল। এদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে সোমবার দুপুরে শাখাওয়াত হোসেন মোল্লা (৫০) নামে এক স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। শহরের পৌরসভা খেয়াঘাট এলাকার বাসায় বুকে ব্যাথা নিয়ে তিনি মারা যান। করোনা উপসর্গ থাকায় মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. শ্যামল কৃষ্ণ হাওলাদার। তিনি সদর উপজেলার নুরুল্লাপুর গ্রামের বাসিন্দা ও নুরুল্লাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন।
মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, মাদারীপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২৬ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মাদারীপুর সদর উপজেলায় ১১ জন, কালকিনি ৮ জন, রাজৈর ২ জন এবং শিবচরে ৫ জন। বিকেলে মাদারীপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যানবিদ মীর রিয়াজ আহমেদ জানান, জেলায় মোট করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা ১৪৯ জন।
মুন্সীগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে সোমবার রাতে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার চরকিশোরগঞ্জ এলাকার আব্দুল হান্নান মাদবর (৪৫) ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলার কামারখাড়া গ্রামের আলহাজ মতিউর রহমান শিকদার (৮০)। রাতে অসুস্থ অবস্থায় আবদুল হান্নান মাদবরকে এবং মতিউর রহমান শিকদারকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৬৮ জনে।
নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, নওগাঁয় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত না হলেও আরেক জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি নওগাঁ’র একজন বিশিষ্ট কাপড় ব্যবসায়ী। এক সময়ে দৌড় প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ের চ্যাম্পিয়ন, সাবেক ফুটবলার ও কাপড় ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম নুরু (৫৮) মৃত্যু বরণ করেছেন। সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে নওগাঁ শহরের কাপড়পট্টি এলাকায় নিজ বাসায় তিনি মারা যান। গতকাল সকাল ১০টায় নওগাঁ জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য জানিয়েছেন।
এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে ১৮৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে নওগাঁ সদর উপজেলায় ৫৫ জন, রানীনগর উপজেলায় ১৬ জন, আত্রাই উপজেলায় ১৪ জন, মহাদেবপুর উপজেলায় ৯ জন, মান্দা উপজেলায় ১ জন, বদলগাছি উপজেলায় ৩ জন, পতœীতলা উপজেলায় ১০ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৩৩ জন, নিয়ামতপুর উপজেলায় ১২ জন, সাপাহার উপজেলায় ৪ জন এবং পোরশা উপজেলায় ২৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬ জন। এ পর্যন্ত সর্বমোট সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৮৮ জন।
স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, নারায়ণগঞ্জে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৪ জন করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ। এসময়ের মধ্যে জেলায় তিনজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। গতকাল দুপুরে এ তথ্য জানান তিনি। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত সাত ব্যক্তি সুস্থ হয়েছেন।
ডা. ইমতিয়াজ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১২৪ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট ৩ হাজার ৪৭ জনের ফলাফলে পজিটিভ এসেছে। জেলায় এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত মোট রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৪৭ জন (মৃত্যুসহ)। এদের মধ্যে জেলায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৮৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৮১৩ জন।
নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, নীলফামারী জেলায় নতুন করে আরও ১৭ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। সোমবার রাতে জেলা সিভিল সার্জন রনজিৎ কুমার বর্মন নতুন আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪৭ জনে।
ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় স্বাস্থ্যকর্মী দম্পতিসহ ১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় করেনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১২২ জনে।এ পর্যন্ত সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ জন , মারা গেছেন ১ জন। সিভিল সার্জন ডা. মাহফুজার রহামান সরকার জানান জেলায় সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এ পর্যন্ত ১ হাজার ৬’শ ৫৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। ১ হাজার ৪’শ ৮৫ জনের ফলাফলের মধ্যে ১২২ জনের (কোভিড-১৯) পজিটিভ পাওয়া যায়। আর গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে দিনাজপুরে পাঠানো হয়েছে।
গাজীপুর : গাজীপুরে কালিয়াকৈরে করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডা. প্রবীর সরকার জানান, করোনার উপসর্গ নিয়ে (জ্বর, সর্দি) সোমবার (১ জুন) রাতে কালিয়াকৈরের হিজলতলী গ্রামের শওকত হোসেন (৫৫) ও নামাশুলাই গ্রামের কফিল উদ্দিন (৪৫) মারা যান।
মৌলভীবাজার : কুলাউড়ায় করোনা উপসর্গ জ্বর, সর্দি, গলা ব্যাথা ও ডায়রিয়া নিয়ে শামীম (২০) নামের যুবকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সে উপজেলার রাউৎগাও ইউনিয়নের লালপুর এলাকার বাসিন্দা। গত সোমবার বিকেলে পৃথিমপাশা ইউনিয়নের রবিরবাজারে স্থানীয় একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে এসে বাজারেই তার মৃত্যু ঘটে। জানা যায়, শামীম জ্বর, সর্দি, গলা ব্যাথা ও ডায়রিয়ার অসুস্ততা নিয়ে রবিরবাজারস্থ স্থানীয় এক চিকিৎসকের কাছে আসলে ডাক্তার তাকে প্যাথলজি ল্যাবে টেষ্টের জন্য পাঠান। কিন্তু সেখানেই তার মৃত্যু ঘটে।
ফেনী : ফেনীর দাগনভূঞায় জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে রফিকুল ইসলাম (৩৭) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে ফেনীতে ৮ জনের মৃত্যু হলো । গত সোমবার সন্ধ্যায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুরে নিজ বাড়ীতে তার মৃত্যু হয়।এর আগে গত শনিবার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে করোনা সন্দেহে সে নমুনা জমা দেয়। স্থানীয়রা জানায়, নিহত যুবক রফিকুল ইসলাম একজন কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। গত দু'মাস আগে তিনি নিজ কর্মস্থল চট্রগ্রাম থেকে গ্রামের বাড়ীতে ফিরেন।এরপরই জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় অসুস্থ হয়ে পড়েন।একপর্যায় হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়ে তার মৃত্যু হয়।
গফরগাঁও উপজেলা সংবাদদাতা জানান, গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানায় জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার পাগলা গ্রামের কোনাপাড়া এলাকার বেপারী বাড়ির ৩৩ বছর বয়সী ওই যুবককে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য গতকাল দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে রাস্তায় মারা যান বলে জানান দত্তেরবাজর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রোকসানা বেগম।
লাকসাম (কুমিল্লা) : কুমিল্লার লাকসামে করোনা উপসর্গ নিয়ে লোকমান হোসেন (৪৪) নামে এক ওষুধ ব্যবসায়ী মারা গেছেন। গত সোমবার রাত ১১টার দিকে নিজ বাড়িতে মারা যান তিনি। মৃত ওই ওষুধ ব্যবসায়ী পৌর শহরের ৬ নম্বর ওয়ার্ড পশ্চিমগাঁও পুরান বাজারের মো. আবদুস সামাদের ছেলে।
সৈয়দপুর (নীলফামারী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, গত সোমবার নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় নতুন করে আরো পাঁচজনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সৈয়দপুর উপজেলা করোনা সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩ জনে।
সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু মো. আলেমুল বাসার উপজেলায় নতুন করে আরো পাঁচ ব্যক্তির করোনা পজিটিভের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, করোনা পজিটিভ ব্যক্তিদের হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। সেই সঙ্গে তাদের বাড়ি লকডাউনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।
সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় আজ মঙ্গলবার নতুন করে ৯ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ জন পুরুষ ও ৩ জন নারী রয়েছে। এ নিয়ে এ উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১১৩ জনে। এ পর্যন্ত উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ্য হয়েছেন ৫৫ জন করোনা রোগী। দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: বদিউজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে পিয়ারা বেগম (৭০) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রাত বারোটার দিকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত ওই নারী মহিপুর থানার ডাবলুগঞ্জ ইউনিয়নের খাপড়াভাঙ্গা গ্রামের আবদুল আলী হাওলাদারে স্ত্রী। বিষয়টি গতকাল দুপুরে নিশ্চিত করেছেন কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিনময় হাওলাদার।
মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিজ্জামান ইসলাম জানান, নিহতের লাশ তার নিজ বাড়িতে কোভিট-১৯ প্রটোকলে দাফন করা হবে। এছাড়া নিহত ওই নারীর মেয়ে জামাইর বাড়ীসহ সেরাজপুর গ্রামের চারটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ঢাকার কেরানীগঞ্জে গত ২৪ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন দাঁড়িয়েছে ৪৯৭ জনে। নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ১১জনের মধ্যে ৯জনই হচ্ছে জিনজিরা ইউনিয়নের। বাকী ২ জনের ১ জন হচ্ছে কালিন্দী ও অপর ১ জন হচ্ছে রোহিতপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। জিনজিরার ১১ জনের মধ্যে আবার ৩ জন নারী রয়েছে। এপর্যন্ত উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে আক্রান্তের শীর্ষে অবস্থান করছে জিনজিরা ইউনিয়ন। জিনজিরা ইউনিয়নে আক্রান্তের শীর্ষ তালিকায় রয়েছে হাউলি ও মডেল টাউন এলাকা। অনেকেই জিনজিরা ইউনিয়নকে এখন করোনা আক্রান্তের ডেঞ্জার জোন হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।
এদিকে আক্রান্তের তালিকায় র‌্যাব ও পুলিশের পরে রয়েছে কেরানীগঞ্জ স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের চিকিৎসক,নার্সসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী,সাজেদা হাসপাতাল, আদদীন হাসপাতাল ও পল্লী বিদ্যুত অফিস। কেরানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মীর মোবারক হোসাইন জানান, মানুষ যদি সামাজিক দুরুত্ব বজায় না রাখে এবং সচেতন না হয় তাহলে প্রতিদিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়বে।
নান্দাইল (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহের নান্দাইলে ্এক দিনে করোনার নতুন করে ৪ জন আক্রান্ত হয়েছে। এতে করে করোনায় এ পর্যন্ত উপজেলার মোট ১৩ জন আক্রান্ত হয়েছে। তন্মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ২ জন এবং হোম আইসোলোশনে আছে ১১ জন। নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আব্দুর রহিম সুজন ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা. ইকবাল আহম্মেদ নাসের করোনায় সনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
শওকতআকবর ৩ জুন, ২০২০, ১০:০৭ এএম says : 0
কিছুটা ছাড় দেয়ায় যেন ভয়বহতা বাড়ছে।সামনের দিনগুলী কি আরও ভয়াবহ?আল্লাহই ভালো জানেন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন