ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা

বেক্সিমকোর পিপিই রপ্তানি

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম | আপডেট : ৯:০৭ এএম, ৩ জুন, ২০২০

মার্কিন বাজারে বাংলাদেশের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বা পিপিই রপ্তানির খবরে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। পাশাপাশি, দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্কের ক্রমবর্ধমান উন্নতি দেশটির অত্যন্ত প্রভাবশালী সংস্থা জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ব্যুরোও প্রশংসা করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বেক্সিমকোর পিপিই রপ্তানি সম্পর্কে পম্পেও বলেন, এটি একটি তাৎপর্যপূর্ণ মাইলফলক। এ ধরনের আন্তর্জাতিক অংশীদারিত্ব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বেক্সিমকো ও হ্যানস-এর মধ্যকার অংশীদারিত্ব হলো, কোভিড-১৯ কে পরাজিত করতে যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের যৌথ প্রচেষ্টার সেরা প্রতিফলন।

এক টুইটে নিজের প্রোফাইলে রি-টুইট করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও লিখেছেন, আমি এই তাৎপর্যপূর্ণ মাইলফলকের জন্য রাষ্ট্রদূত মিলারের সঙ্গে একমত হয়ে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাতে চাই। বিশ্বজুড়ে করোনা মোকাবিলায় সম্মুখ সারিতে থাকা সাহায্যকর্মীদের এখন পিপিই প্রয়োজন। এসব পিপিই যোগানে কোম্পানিগুলো এখন নজর দিচ্ছে। ফলে এ ধরনের আন্তর্জাতিক অংশীদারিত্ব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে, মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক ব্যুরো পৃথক এক টুইট বার্তায় বলেছে, অংশীদারিত্ব ও সৃজনশীলতার মাধ্যমে আমরা কোভিড-১৯ কে পরাজিত করবো। বেক্সিমকো ও হ্যানসকে ধন্যবাদ যুক্তরাষ্ট্রে পিপিই শিপমেন্টকে এত দ্রুত বাস্তবতায় পরিণত করার জন্য।

রাষ্ট্রদূত মিলারের টুইট রি-টুইট করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থাও। সংস্থাটি লিখেছে, ‘কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই ও অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার চেষ্টায় আমরা একে অপরকে সাহায্য করছি। তাই যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের অংশীদারিত্ব আরো শক্তিশালী হয়ে উঠতে দেখাটা দারুণ!’

এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন বলেন, এত অল্প সময়ের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে এত বিশাল পরিমাণ পিপিই রপ্তানি থেকে বাংলাদেশের সামর্থ্য প্রমাণিত হয়।

উল্লেখ্য, প্রথম বাংলাদেশি কোম্পানি হিসেবে বেক্সিমকো স¤প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ৬৫ লাখ পিপিই’র প্রথম চালান রপ্তানি করে। এ উপলক্ষে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে স্বশরীরে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার। পরে তিনি টুইটারে বেশ কয়েকটি টুইটে এ উপলক্ষে বাংলাদেশ ও বেক্সিমকোকে অভিনন্দন জানান। একটি টুইটে রাষ্ট্রদূত লিখেছেন, বাংলাদেশকে বিশ্বমানের বৃহৎ আকারের পিপিই উৎপাদনকারী দেশগুলোর কাতারে স্বাগত জানাতে পেরে আনন্দিত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন