ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

চাঁদপুরে শ্মশানে লাশ নিয়ে গেল ইসলামী আন্দোলন

চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২০, ১০:১২ এএম

চাঁদপুরে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সনাতন ধর্মের এক ব্যাক্তির মৃত্যু হয় সোমবার বিকেলে। পরিবারের লোকজন মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার কারণে শ্মশানে সবদাহ সম্পন্ন করেছে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার স্বেচ্ছাসেবক টিম। ২ জুন রাত ৮টায় এ সবদাহের কাজ করা হয়।

চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার উত্তর আলগী কমলাপুর গ্রামের দাস বাড়ির বীরেশ্বর দাসের ছেলে সমীর চন্দ্র দাস (৪২) ২ জুন বিকেলে সদর হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যায়। সে উপজেলার আলগী বাজারে কাপড় স্ত্রির কাজ করতো।

ইসলামি আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সেক্রেটারি ইয়াসিন রাসেদসানী জানান, আমাদের খবর দেয়া হলে আমরা হাসপাতালের আইসোলেসন ওয়ার্ড থেকে মৃত ব্যাক্তির মরদেহ তার ভাই রবি চন্দ্রের কথামতো চাঁদপুর মহা শশ্মানে নিয়ে যাই। শ্মশানের কাজে নিয়োজিত ব্যাক্তিদের সাথে নিয়ে আমরা এই প্রথম করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত সনাতন ধর্মের ব্যাক্তির সৎকাজ সম্পন্ন করলাম।

সৎকাজে সহযোগিতা করেন ইসলামী যুব আন্দোলন জেলা শাখার সভাপতি হেলাল আহমেদ, সেক্রেটারি মাও. মেহেদী হাসান, সদর উপজেলা স্বেচ্ছা সেবক টিমের সমম্বয়কারী আনোয়ার আল নোমান, ইমরান হোসাইন প্রমুখ।

ইসলামী আন্দোলন এযাবত চাঁদপুরে করোনা ও উপসর্গে মৃত ২৫ জনের লাশ দাফন করেছে । এরমধ্যে এটিই প্রথম সনাতন ধর্মের ব্যক্তির মরদেহ শ্মশানে নিয়ে দাফন কাজে সহযোগিতা করা।

করোনায় আক্রান্ত হওয়া ব্যক্তির লাশ দাফনেও যখন পরিবারের লোকজন মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে, যখন মৃতের লাশ ঘরে ফেলে রেখে পরিবারের আপন মানুষগুলো পালিয়ে যাচ্ছে, ঠিক সেই ক্লান্তিকালে মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন কর যাচ্ছেন এদেশের দাঁড়ি টুপিওয়ালা আলেম সমাজ।
.
তারা কেবল মুসলিম নয়, হিন্দুদের মৃতদেহ নিয়ে যাচ্ছেন শ্মশানে।তেমনই এক সাম্য ও সম্প্রীতির ঘটনার জন্ম দিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক টিম সর্বমহলে প্রশংসিত হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন