ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

হাসপাতালে করোনা রোগীদের ভোগান্তি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে বললেন কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০২০, ৩:৫৪ পিএম

হাসপাতালে করোনা রোগীদের ভোগান্তি বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ শুক্রবার আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির উদ্যোগে করোনা সংক্রমণ রোধ ও চিকিৎসা সহায়তা বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে অনলাইন প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালে করোনা রোগীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছে বলে মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। আমি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখার অনুরোধ করছি।

সারা বিশ্বের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি তুলে ধরে সেতুন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারি একটি বৈশ্বিক সংকট। বিশ্বের ২১৫টি দেশে মহামারি ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্ত ও সংক্রমণ বিস্তারের দিক থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত বাংলাদেশ ২১তম অবস্থানে এসেছে।

করোনা সংক্রমণের চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় উন্নত দেশগুলো হিমশিম খাচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, উন্নত বিশ্বের দেশগুলো অর্থনীতির শক্ত ভীত এবং স্বাস্থ্য খাতের সক্ষমতা নিয়েও তারা আজ অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে এই মহামারির কাছে। একটি রোগ যখন মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ে তখন বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা দিয়েছে তাকে আটকে রাখা কঠিন। তখন প্রয়োজন পড়ে বিশেষ ব্যবস্থাপনা, সমাজের সব স্তরের মানুষের ঐক্য অসচেতনতা, সবার সম্মিলিত ও সমন্বিত প্রয়াস।

করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের ব্যবস্থাপনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার সংকটের শুরু থেকে দক্ষতা ও সমন্বয়ের সঙ্গে নানা সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও করোনা সংক্রমণ রোধ, চিকিৎসা ব্যবস্থার সক্ষমতা বাড়াতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।’

সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে সহযোগিতা করে আসছে। সরকার অর্থনৈতিক সুরক্ষায় ঘোষণা করেছে এক লাখ কোটি টাকার বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজ।

আওয়ামী লীগের উপকমিটির প্রশিক্ষণের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বর্তমান বাস্তবতায় করোনা সংক্রমণ রোধে সচেতনতা তৈরি এবং আক্রান্ত হলে ভীত না হয়ে চিকিৎসা ব্যবস্থা কীভাবে করা যায় তা নিয়ে এ উপ-কমিটির স্বেচ্ছাসেবী প্রশিক্ষণ অত্যন্ত প্রশংসনীয় উদ্যোগ বলে মনে করি। উদ্যোগ উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে উপ-কমিটির চেয়ারম্যান ড. হোসেন মনসুর, সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সবুরসহ কমিটির সদস্যরা এবং প্রশিক্ষণার্থীরা সংযুক্ত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন