ঢাকা, সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৯ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আমার নাম কাশ্মীর

কাশ্মীরের সমর্থনে তুরস্কের গান

স্ত্রাতুর্কা | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

যুদ্ধকবলিত ও নিপীড়িত কাশ্মীরের উদ্দেশ্যে লেখা একটি গান বর্তমানে সাশ্যাল মিডিয়ায় বিপুল আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। গত বুধবার বিশ্বব্যাপী প্রকাশিত ‘আমার নাম কাশ্মীর’ শিরোনামে এ গানটি রচনা করেছেন তুরস্কের ইস্তাম্বুলের কবি তুরগা এভরেন। ইংরেজী ভাষার প্রভাষক এবং পেশায় সংগীতজ্ঞ এভরেন বলেছেন, ‘গানটি বিশ্বের সমস্ত নিপীড়িত মানুষের জন্য লেখা।’ গানটি গেয়েছেন তুরস্ক, জার্মানি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বিশ্বখ্যাত গায়িকা ডেলা মাইল্স।
গানটি প্রথমে টুইটার এবং ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছিল আজিজ বাবুস্কুর মাধ্যমে। তিনি তুরস্কের গ্র্যান্ড ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্য যেখানে তিনি ইস্তাম্বুলের ক্ষমতাসীন একে (জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট) পার্টির প্রতিনিধিত্ব করছেন। টুইটারের এক পোস্টে বাবুস্কু বলেন, ‘জেরুজালেমের মতো, সারায়েভো, আরাকান (রোহিঙ্গা), আলেপ্পোর মতো কাশ্মীর আমাদের অন্যতম পদক্ষেপ। আমরা নিপীড়িতদের গানগুলি সবচেয়ে ভাল জানি। #কেসমিরের (কাশ্মীরের) গানগুলি মৃত্যু, গণহত্যার কথা বলে।’

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চলমান জর্জ ফ্লয়েড বিক্ষোভকে কাশ্মীরের সাথে সংযুক্ত করে এভরেন বলেন, ‘প্রতিদিনই কাশ্মীরের মানুষ জর্জ ফ্লয়েডের সাথে যা ঘটেছিল, তেমন নিপিড়নের সম্মুখীন হয়।’ উল্লেখ্য, গত মাসে মার্কিন পুলিশরা ফ্লয়েডকে হত্যা করার পর দেশটিতে কালো সম্প্রদায়ের প্রতি বৈষম্যের বিরুদ্ধে গণবিক্ষোভের সূত্রপাত হয়।

কাশ্মীর পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যবর্তী একটি বিতর্কিত অঞ্চল। কাশ্মীরিরা ভারতীয় শাসনের বিরোধী। তারা অঞ্চলটিতে গণভোটের পথ প্রশস্ত করতে এবং সামরিক হস্তক্ষেপ সম্পূর্ণভাবে রোধ করতে হাতে অস্ত্র তুলে নিয়েছে। ভারত অধু্যুষিত কাশ্মীর স্বাধীনতার লাভের জন্য ৭০ বছরেরও বেশি সময় ধরে নিরলস যুদ্ধ করে যাচ্ছে। গত ৪ দশক ধরে এ অঞ্চলের বেসামরিক নাগরিকসহ প্রায় এক লাখ প্রাণ কেড়ে নিয়েছে সহিংস সঙ্ঘাত।

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের আওতায় এ অঞ্চলে তথাকথিত সীমিতভাবে নিশ্চিত করা স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে দেয়া হলে কাশ্মীরের পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠে। ভারত এই বিতর্কিত অঞ্চলে প্রায় ১০ লাখ সেনা নামিয়ে তার সামরিক দখল পোক্ত করেছে, যা কাশ্মীরকে বর্তমানে বিশ্বের সর্বোচ্চ সামরিকীকরণ অঞ্চলে পরিণত করেছে। কাশ্মীর থেকে সংবাদ বাইরে আসা বন্ধ করতে এক সময় সমস্ত রকমের যোগাযোগ ব্যবস্থার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল যা পরে ধীরে ধীরে শিথিল করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন