ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট ২০২০, ২২ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

এবার আক্রান্ত মাশরাফি, নাজমুল

সুস্থ্যতার পথে নাফিস

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

বিশ্বজুড়ে দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। তা থেকে রেহাই পাচ্ছেন না সরকার প্রধান থেকে শুরু করে ক্রীড়াবিদরাও। তবে ফুটবলের তুলনায় ক্রিকেটে এর সংখ্যা বেশ সীমিত। বড় নামের ভিড়ে কদিন আগেই আক্রান্ত হয়েছিলন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি। এবার সেই তালিকায় নাম লেখালেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও। গতকালই কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হবার ভকর নিশ্চিত করেছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা। দুদিন ধরেই জ্বর মাশরাফির। সঙ্গে গা ব্যথা ও মাথা ব্যথাও আছে বেশ। গতপরশু তার পরীক্ষা করানো হয়। গতকাল তার ফলাফল পজিটিভ এসেছে।
করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামনে থেকেই লড়ছিলেন মাশরাফি। ক্রিকেটার সত্তার বাইরে নিজের জনপ্রতিনিধি পরিচয়ে নড়াইলকে করোনামুক্ত করার লড়াইয়ে নেমেছিলেন সাবেক অধিনায়ক। নিজ এলাকার মানুষের সহায়তার জন্য দুই দফায় নড়াইল গিয়েছিলেন মাশরাফি। তবে সেটিও বেশ আগে। নড়াইল থেকে ঢাকায় ফিরে আলাদা একটি বাসায় কোয়ারেন্টিনে ছিলেন দুই সপ্তাহ। তারপর বাসায় ফিরে সাবধানেই ছিলেন। বাইরে খুব একটা যাননি। তারপরও রক্ষা পেলেন না আক্রান্ত হওয়া থেকে। জ্বর ও গা ব্যথা ছাড়া আপাতত কোনো সমস্যা তার নেই। নিজের বাসাতেই আইসোলেশনে আছেন তিনি। তার বাসার বাকিরা এখনো সুস্থ আছেন। কারও মধ্যে এখনো করোনার কোনো উপসর্গ প্রকাশ পায়নি।
এর আগে গত ১৫ জুন মাশরাফির শাশুড়ি হোসনে আরা ও শ্যালিকা রিপার মেয়ে আগামীর করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর এসেছিল। তারাও বর্তমানে ঢাকায় ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তবে তাদের সংস্পর্শে আসেননি মাশরাফি। আক্রান্ত হয়েছেন অন্য কোনোভাবে। নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত পেসারের ছোট ভাই মোরসালিন বিন মর্তুজা গতকাল বলেন, ‘দুদিন থেকে জ্বরে ভুগছেন তিনি (মাশরাফি)। মনের মধ্যে শঙ্কা তৈরি হওয়ায় গতকাল (পরশু) সন্ধ্যায় তিনি করোনা পরীক্ষা করান। আজ (গতকাল) ফল জানা গেছে। পজিটিভ এসেছে। জ্বরের সঙ্গে হালকা গা ব্যথা আছে তার। অন্য কোনো উপসর্গ নেই। তিনি বাসাতেই (ঢাকায়) আইসোলেশনে আছেন। তার স্ত্রী-সন্তানদের কারও উপসর্গ নেই। উপসর্গ দেখা গেলে তাদেরও করোনা পরীক্ষা করানো হবে। আপাতত বাসাতেই তার চিকিৎসা চলবে।’
একই দিন করোনা পজিটিভ হবার দুঃসংবাদ দিয়েছেন জাতীয় দলের বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম (অপু)। গত সপ্তাহে নাজমুলের শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। গত বুধবার করোনা পরীক্ষা করিয়ে গতকাল দুপুরে তার করোনা ধরা পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়। এখন তিনি নারায়ণগঞ্জের নিজ বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকে নারায়নগঞ্জের অসহায় মানুষদের নানাভাবে সাহায্য–সহযোগিতা করে আসছিলেন তিনি।
এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার খবর দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ব্যাটসম্যান ও ওয়ানডে সংস্করণের বর্তমান অধিনায়ক তামিম ইকবালের বড় ভাই নাফিস ইকবালও। খবরটি নিশ্চিত করেছেন ৩৪ বছর বয়সী নাফিস নিজেই। বেশ কয়েক দিন আগে তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তবে শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন তিনি।
ডানহাতি ওপেনিং ব্যাটসম্যান নাফিস বাংলাদেশের হয়ে ১১টি টেস্ট ও ১৬টি ওয়ানডে খেলেছেন। দারুণ সম্ভাবনাময় হিসেবে বিবেচিত হলেও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তার পথচলা থেমে গেছে আড়াই বছরেরও কম সময়ে। ২০০৩ সালের নভেম্বরে চট্টগ্রামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে শুরু, ২০০৬ সালের মার্চে বগুড়ায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে শেষ। টেস্টে ২৩.৫৪ গড়ে এক সেঞ্চুরি ও দুই হাফসেঞ্চুরিসহ ৫১৮ রান করেছেন নাফিস। ওয়ানডেতে ১৯.৩১ গড়ে তার সংগ্রহ ৩০৯ রান। হাফসেঞ্চুরি পেয়েছেন দুটি। ২০১৮ সালের ঘরোয়া ক্রিকেটকে বিদায় বলেছেন নাফিস। খেলা ছাড়লেও তিনি যুক্ত আছেন ক্রিকেটের সঙ্গেই। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগসহ (বিপিএল) বিভিন্ন ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন