ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

শ্রীলেখাকে একহাত নিলেন স্বস্তিকা মুখার্জি

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ জুন, ২০২০, ১:৫৬ পিএম

বলিউডে স্বজনপোষণ বির্তক এখন তুঙ্গে। এই বিতর্কের ছোয়া লেগেছে কলকাতার সিনেমা পাড়াতেও। গেল দু'দিন আগে স্বজনপ্রীতি নিয়ে বাংলা ইন্ডাস্ট্রির অনেকের বিরুদ্ধেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন শ্রীলেখা মিত্র। এবার সেই প্রসঙ্গে অভিনেত্রীর উল্টো মেরুতে অবস্থান নিলেন স্বস্তিকা মুখার্জি।

সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন স্বস্তিকা মুখার্জি। সেখানে তিনি লিখেছেন, 'একজন অভিনেত্রী যখন কোনও পরিচালকের সঙ্গে একাধিক সিনেমায় কাজ করেন, তখন বলা হয় প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে কাজগুলো পেয়েছেন। তা আমি এক পরিচালকের ক্যারিয়ারের ১৭ টা চলচ্চিত্রের মধ্যে আড়াইখানা সিনেমায় অভিনয় করেছি। কিন্তু এই পরিচালকের সঙ্গে সৌমিক হালদার ১১ টা, অনুপম রায় ৯ টা, প্রসেনজিৎ ৭টা, যীশু সেনগুপ্ত ৭টা সিনেমাতে করে কাজ করেছেন।

তিনি আরও লেখেন, তাহলে যেই অভিনেতারা ওই পরিচালকের সঙ্গে এত কাজ করলেন তারা নিশ্চয় আরও বেশি শুয়ে কিংবা প্রেম করে সিনেমাতে সুযোগ পেয়েছেন। ওরা সবাই সমকামী! যুক্তি তো সবার ক্ষেত্রে একই হওয়া উচিত তাই না?

স্বস্তিকার এই পোস্টে পরিচালকের নাম উল্লেখ না করলেও তার তথ্যানুযায়ী সৃজিত মুখার্জির নামই উঠে আসছে। তবে অভিনেত্রীর পোস্টে বলিউডের মতোই টালিগঞ্জকে স্বজনপোষণ বির্তকে দুইভাগে ভাগ করে কিনা সেই প্রশ্নই এখন চারপাশে ঘুরছে। কিন্তু নায়িকা যার জন্য এতো কড়া শব্দ খরচ করলেন তিনি কি বলবেন?

এদিকে স্বস্তিকার ফেসবুক পোস্টে নিয়ে কোনও আগ্রহ নেই শ্রীলেখার। গণমাধ্যমে তিনি বলেন, 'আমি কারও কোনও পোস্ট দেখিনি। শুধু তাই নয়, আমার অভিযোগের প্রেক্ষিতে অন্য কারও মন্তব্য জানার আগ্রহ আমার নেই। তাই যা বলার বলে দিয়েছি এ নিয়ে আর একটি শব্দও খরচ করতে চাই না। সবার প্রশ্নের উত্তর দিলে তাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়।'

এর আগে, নিজের ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে এসে স্বজনপ্রীতি নিয়ে মুখ খুলেন শ্রীলেখা। সেখানে প্রকাশ্যে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণাকে নিয়ে বোমা ফাটিয়েছিলেন তিনি। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেন নি তাদের দু'জনের কেউই। তবে মুখে কুলুপ এটে থাকেননি স্বস্তিকা। এখন টলিউডে 'স্বজনপোষণ' বিতর্কের পানি কোন দিকে গড়ায় সেটাই দেখার বিষয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Arman ২২ জুন, ২০২০, ৯:৫৩ এএম says : 0
বাংলা চলচ্চিত্র নষ্ট করার জন্য তারা সবাই সমান ভাবে দায়ী, কেউ একা দায়ী নয়।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন