ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ০৭ মাঘ ১৪২৭, ০৭ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে মানবপাচারেও এমপি পাপুলের নাম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধ বিষয়ক তালিকায় যাদের নাম ওঠে তারা কার্যত সারাবিশ্বের কাছে ‘অপরাধ জগতের ট্রেডমার্ক’ হয়ে যান। তাদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধসহ নানা বিধি-নিষেধে পড়তে হয়। মূলত তাদের নামের সঙ্গে আন্তর্জাতিক অপরাধীচক্রের হোতা হিসেবে ট্রেডমার্ক তকমা দেয়া হয়।
আন্তজাতিক পর্যায়ে মানবপাচারের মতো গুরুত্বর অপরাধে মার্কিনীদের সেই রেড তালিকায় ল²ীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের নাম উঠেছে। বাংলাদেশ থেকে কুয়েতে এমপি পাপুলের মানবপাচারের অপকান্ডকে খুবই গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাফিকিং ইন পার্সন রিপোর্ট। বাংলাদেশ সময় গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপদেষ্টা ইভাঙ্কা ট্রাম্প রিপোর্টটি প্রকাশ করেন। সেই রিপোর্টে মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে আটক বাংলাদেশের এমপি পাপুলের মানবপাচারকে গুরুতর অপরাধ হিসেবে অভিহিত করা হয়।

এদিকে পাপুলের মামলার তালিকায় থাকা কুয়েতি নারী ব্যবসায়ীকে দুই হাজার কুয়েতি দিনার মুচলেকায় জামিন দেয়া হয়েছে। কুয়েতের এক সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তার বোন ওই নারীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।
পাপুলের সম্পর্কে মার্কিন ওই রিপোর্টে বলা হয়, শহিদ ইসলাম পাপুলসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন সংসদ সদস্য ও সরকারের কর্মকর্তারা বিদেশে চাকরি দেয়ার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। যা অভিবাসনবান্ধব পরিবেশ তৈরির ক্ষেত্রে সাংঘর্ষিক। এর ফলে রিক্রুটমেন্ট এজেন্সিগুলো অভিবাসী শ্রমিকদের ঠকায় এবং তাদেরকে সুরক্ষার বিষয়টি বাধাগ্রস্থ করে।

রিপোর্টে আরো বলা হয়, কুয়েতি কর্মকর্তাদের ঘুষ দিয়ে ২০ হাজার বাংলাদেশিকে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে কুয়েতে নিয়ে যায় পাপুল। তাদের যে চাকরি দেয়ার কথা বলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তার বেশিরভাগই ওই চাকরি পায়নি। যে বেতন নির্ধারণ করা হয়েছিল তার থেকে কম বেতন পেয়েছে অথবা একদম পায়নি। মিডিয়া এ বিষয়ে ২০১৫ থেকে বিভিন্ন রিপোর্ট করেছিল বলে উল্লেখ করা হয়।

অন্যদিকে মানবপাচারের বিষয়ে আরো বলা হয়, মালয়েশিয়ার এমপ্লয়মেন্ট এজেন্সিগুলো এবং বাংলাদেশের ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সি উভয় দেশের কর্মকর্তা ও রাজনীতিবিদদের ঘুষ দিয়ে গোটা প্রক্রিয়াটি নিজেদের কাছে কুক্ষিগত করে রেখেছিল। মালয়েশিয়ায় পাঠানো প্রতিটি ব্যক্তির কাছ থেকে চার লাখ টাকা পর্যন্ত আদায় করা হয়েছে। যদিও মালয়েশিয়ায় যাওয়ার জন্য সরকারের নির্ধারিত ফি ছিল ৩৭ হাজার টাকা। এর ফলে অভিবাসীরা ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়ে। দুইবার সতর্কবার্তা পাওয়ার পরে নভেম্বরে সরকার তাদের তদন্ত রিপোর্ট হাইকোর্টে জমা দেয় এবং এর শুনানি এখনও বাকি আছে।

কুয়েতি নারীর জামিন : কুয়েতি সংবাদমাধ্যম আল সিয়াসাহ ডেইলির বরাত দিয়ে দেশটির আরেক সংবাদমাধ্যম আরব টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মানব ও অর্থপাচারে পাপুলের সহযোগী সে দেশে গ্রেফতার কুয়েতি নারী ব্যবসায়ীকে জামিন দেয়া হয়েছে। কুয়েতের সিনিয়র কর্মকর্তার বোন ওই নারীকে বিদেশ যাওয়ার ওপর বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

পত্রিকাটির প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই নারী ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ঘুষ ও অর্থপাচারের অভিযোগ রয়েছে। তিনি ডেকর কোম্পানির মালিক, যার মূলধন আড়াই লাখ কুয়েতি দিনার। কুয়েতের সরকারি কৌঁসুলিরা ওই নারীকে প্রায় দেড় ঘণ্টা যাবত জেরা করেছেন। তার আইনজীবী মোহাম্মদ তালিব ওই নারীকে নির্দোষ দাবি করেছেন। বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, এমপি শহিদের বিরুদ্ধে করা মামলায় সরকারি কৌঁসুলিরা এখন ফাইন্যান্সিয়াল ইউনিটের তদন্তের ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছেন।

কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য। মানব ও অর্থপাচারের অভিযোগে গত ৬ জুন কুয়েতের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) তাকে গ্রেফতার করে। দফায় দফায় রিমান্ডের পর ২৪ জুন তাকে ২১ দিনের জন্য কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখার সিদ্ধান্ত নেয় কুয়েতের অ্যাটর্নি জেনারেল। এর আগে বাংলাদেশের ১১ জন প্রতারিত প্রবাসী কুয়েতের আদালতে পাপুলের প্রতারণার চিত্র তুলে ধরে জবানবন্দি দেন। তাদের বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে সে দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (10)
SyEd Shakil AL-Hossaine ২৭ জুন, ২০২০, ১:২৮ এএম says : 0
এই রকম একটা ফেরেস্তারে হেনস্থা মেনে নেয়া যায় না
Total Reply(0)
S.m. Hamza ২৭ জুন, ২০২০, ১:২৮ এএম says : 0
উনাকে মঙ্গলগ্রহে পাঠিয়ে দেয়া হোক
Total Reply(0)
Kopil Uddin Chowdhury ২৭ জুন, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
ওরা সব কাজে পারদর্শী ওদের কথা বলে লাভ নেই
Total Reply(0)
Mohammad Islam ২৭ জুন, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
Good news for Bangladesh. Desh need this kind of illegal MP and nondemocricay government. Bangladesh government should bring him back to Bangladesh and punishment him dead penalty.
Total Reply(0)
তপন ২৭ জুন, ২০২০, ১:৩০ এএম says : 0
যে যাই বলুক, কুয়েত অফিসিয়ালি না জানালে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কোনো ব্যাবস্থা নিতেতো পারেননা (পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন)
Total Reply(0)
তাসলিমা বেগম ২৭ জুন, ২০২০, ১:৩০ এএম says : 0
কুয়েত আর যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের উন্নয়নের গতিতে প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে কিসব আবোলতাবোল বকছে !! পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচিৎ এর প্রতিবাদ করা।।
Total Reply(0)
Mohammad Ruhul Amin ২৭ জুন, ২০২০, ১:৩০ এএম says : 0
After getting such famous Musa named himself Prince Musa, now we will probably get the second prince from our fertile land of corruption, The Prince Paplu.
Total Reply(0)
তানিম আশরাফ ২৭ জুন, ২০২০, ১:৩০ এএম says : 0
এত সম্মান, রাখি কোথায়? আমাদের এমপিরা বাইরের দেশে রাজনীতিকদের সামনে মুখ দেখাবেন কিভাবে? আমরা তো তাদেরকে দেখেই সম্মানিত!!!
Total Reply(0)
Nannu chowhan ২৭ জুন, ২০২০, ৭:৪৮ এএম says : 0
Shorkar bina vote khomotai eashe nijerai nijeder bahaba dia jaitese,pritibadkarider shokto hate mamla jel hajot dia domon koritese,eakhon je bohi bishshe shob prokash paitese tahar ki koriben?
Total Reply(0)
habib ২৭ জুন, ২০২০, ৯:১২ এএম says : 0
Awamlegue parena emon kono kaz nai...
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন