ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

প্রায় এক শ’ চেয়ারম্যান-মেম্বারের বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান

ত্রাণের চাল চুরি-আত্মসাৎ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম

ইউনিয়ন পরিষদের ৯৪ জন চেয়ারম্যান-মেম্বারের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল শনিবার কমিশনের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান সংস্থার পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব ভট্টাচার্য। তিনি জানান, দেশের বিভিন্ন জেলার অন্তত ৯৪ জন জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। করোনা প্রাদুর্ভাবের পর সরকারের বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচির প্রকৃত উপকারভোগীদের বঞ্চিত করে সুবিধাদি আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে এসব জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে। কমিশনের অভিযোগ ব্যবস্থাপনা কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত মহাপরিচালক একেএম সোহেলের নেতৃত্বাধীন যাচাই-বাছাই কমিটির সুপরিশের প্রেক্ষিতে কমিশন এ সিদ্ধান্ত নেয়। এসব জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে সরকারি ত্রাণ আত্মসাৎ,ভুয়া মাস্টাররোলের মাধ্যমে সরকারি চাল আত্মসাৎ,সরকারি ১০ টাকা কেজি দরের চাল বিতরণ না করে কালোবাজারে বিক্রি, জেলেদের ভিজিএফ’র চাল আত্মসাৎ, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে নগদ অর্ঘ সহায়তা কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রণয়নের স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম,উপকার ভোগীদের ভুয়া তালিকা প্রণয়ন করে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির খাদ্য সামগ্রি আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। এসব জনপ্রতিনিধির মধ্যে ৩০ জন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং ৬৪ জন ইউপি মেম্বার রয়েছেন। এসব জনপ্রতিনিধিদের এরই মধ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় সাময়িকভাবে বরখাস্তও করেছে। 

অনুসন্ধানের সিদ্ধান্তের বিষয়ে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, কমিশন সরকারের সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচির বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে এরই মধ্যে ২১টি মামলা করেছে। এসব মামলায় অনেকে এখন কারাগারেও রয়েছেন। নতুন করে এই ৯৪ জনের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। আমরা প্রত্যাশা করি জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে সবাই সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করবেন। ত্রাণ দুর্নীতি-আত্মসাতের বিষয়ে দুদক কঠোর অবস্থানে রয়েছে। এ দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের প্রত্যেককেই আইনের মুখোমুখি হতে হবে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন