ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

লকডাউন এলাকায় অব্যবস্থাপনা নেই : ডিএসসিসি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০২০, ৮:৫২ পিএম

উয়ারীর লকডাউন এলাকায় কোনও অব্যবস্থাপনা নেই। প্রতিটি কাজ সুচারুভাবে করা হচ্ছে। লকডাউন এলাকা পরিদর্শনে এসে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. এমদাদুল হক বলেন, ‘লকডাউন এলাকায় আমাদের কোনও অব্যবস্থাপনা নেই। প্রতিটি কাজ সুচারুভাবে করছি। তবে প্রথমদিন হিসেবে যদি কোনও ঘাটতি থেকেও থাকে তা আগামী দিনগুলোতে ঠিক হয়ে যাবে।’

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আমাদের কোথাও কোন গ্যাপ নেই। ই-কমার্স ও ভ্যান সার্ভিস রয়েছে। তারা বিভিন্ন খাবার নিয়ে ভেতরে অবস্থান করছে। ওষুধের ফার্মেসিগুলো খোলা রয়েছে। দেড়শতাধিক স্বেচ্ছাসেবী তিন শিফটে কাজ করছে। এছাড়া আমাদের অফিসার ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনার লোকজন পরিষ্কার পরিছন্নতা কাজে নিয়োজিত রয়েছে।’

তিনি বলেন, লকডাউন এলাকায় করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এখানে দুই জন ডাক্তার রয়েছেন। তারা করোনায় আক্রান্ত ৪৬ জন রোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করে কাজ করছেন। তাদের চিকিৎসা সহায়তা দিচ্ছেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমদাদুল হক বলেন, ‘লকডাউন হবে কী হবে না এটা আমাদের কোনও সিদ্ধান্ত নয়, সরকার এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। আমরা শুধু সেটা বাস্তবায়ন করছি।’

তিনি জানান, একটি করোনা অ্যাম্বুলেন্স ও একটি নন করোনা অ্যাম্বুলেন্স ওই এলাকায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য হাসপাতাল তৈরি রাখা হয়েছে। সূত্র: বাসস

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Mohammed Shah Alam Khan ৪ জুলাই, ২০২০, ৯:২৭ পিএম says : 0
খুবই ভাল খবর ডিএসসিসি সাধারণত এতসুন্দর পরিকল্পিত ভাবে পূর্বে কখনও কোন কাজ করেনি আমার যতটা মনে পরে। আমি ডিএসসিসির এই কৃতকার্যের জন্যে মেয়র তাপসকেই ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমার বিশ্বাস মেয়র তাপস যেভাবে তাঁর দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে তাতে অবশ্যই তিনি ডিএসসিসিকে সুন্দর ভাবে সাজিয়ে একটি আদর্শ সিটি কর্পোরেশন হিসাবে তুলে ধরতে পারবেন। এখনও ঢাকাবাসী উত্তরের প্রয়াত মেয়র আনিছুল হকের সুনামে পঞ্চমুখ কারন সেইসময়ে তিনি তেজগাঁয়ের ট্রক শ্রমিক যানজট, মীরপুরের যানজট (যদিও একাজে সেসময়ের পানিমন্ত্রীর অবদানও ছিল) সহ ২/৪টা অস্থায়ি কাজ সম্পন্ন করে চমক লাগিয়ে প্রচুর বাহবা নিয়েছিলেন। কিন্তু পরিকল্পনার মাধ্যমে স্থায়ী ভাবে কোন কাজ তিনি করতে পারেননি বা করার সময় পাননি। বরং দেশের বিতর্কিত রাজনীতির সাথে জড়িত হয়ে পরেছিলেন এমন বদনাম নিয়েই ওনাকে পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল। এটা অবশ্যই ওনার কোন ভুল নয় কারন উনি ছিলেন একজন ব্যাবসায়ি। অপরদিকে বর্তমান দক্ষিণের মেয়র ব্যারিস্টার তাপস একজন বিজ্ঞ আইনজীবী ছিলেন। আইনজীবীরা দেশের আইন প্রণয়ন করে থাকেন বা বলতে গেলে দেশের রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিয়ে থাকেন আইনজীবীরা সেই পেশা থেকে এসেছেন দক্ষিণের মেয়র কাজেই আমরা অবশ্যই উনার কাছ থেকে ভালটাই আশা করবো। আল্লাহ্‌ মেয়র তাপসকে ঢাকা দক্ষিণের জনগণের খেদমত করার যোগ্যতা দান করুন। আমিন
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন