ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

মহানগর

করোনাকালে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করুন -ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ৫:৫২ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেছেন, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ অসহায় জীবন যাপন করছে, মানুষের আয় নেই। অনেকে চাকরি হারাচ্ছেন। বেতন দেয়া হচ্ছে অর্ধেক বা তারচেয়েও কম। বিশেষ করে নগর জীবনে মানুষকে সব কিছুই ক্রয় করে সংসার চালাতে হয়। অর্থের অভাবে মানুষ এখন চরম সঙ্কটে দিন পার করছে। অনেকেই বাড়ি ভাড়া ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের ব্যয়ভার বহন করতে না পেরে ইতোমধ্যে শহর ছেড়ে গ্রামে চলে যাচ্ছে।
আজ বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তরের দায়িত্বশীলদের এক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ হোসেন, মুফতি ফরিদুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন (পরশ), ডা. মুজিবুর রহমান, অ্যাভোকেট শওকত আলী হাওলাদার, অ্যাডভোকেট হানিফ ও আলহাজ আলাউদ্দিন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, মৌলিক অধিকার চিকিৎসাটুকু নিশ্চিত করতে সরকার চরমভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে। চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে হচ্ছে দ্বিগুন বা বহুগুণ অতিরিক্ত খরচে। অনেক সময় খরচ করেও চিকিৎসা সেবা পাওয়া দুরূহ হয়ে পড়ছে। এর মধ্যে হুরহুর করে বাড়ছে চাল-ডাল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য। কাঁচামালের দাম বাড়ছে লাগামহীনভাবে। কেউ কেউ বন্যা পরিস্থিতির দোহাই দিলেও বাজারে সরবরাহ কম নেই। অন্যদিকে কৃষক টাকা পাচ্ছে না বলেও অভিযোগ রয়েছে ব্যাপক ভাবে। তাহলে দামটা বাড়াচ্ছে কারা? কারণটা জনগণের চেয়ে সরকার বেশি জানলেও, নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েই চলছে। বাজার নিয়ন্ত্রণ করার সক্ষমতা সরকারের আছে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কেননা সরকার আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। এক স্বাস্থ্য খাতের হ-য-ব-র-ল দেখতে দেখতে জনগণ বিরক্ত।
নেতৃবৃন্দ বলেন, এতো কিছুর পরেও বাস্তবতা হল দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করতে না পারলে নগর ছাড়তে বাধ্য হবে আরও অনেকে। জনজীবন সম্মুখিন হবে মারাত্মক হুমকির। কাজেই অনতিবিলম্বে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করুন। অসাধু ব্যাবসায়ী ও মুনাফাখোর যে দলেরই হোক না কেন তাকে বিচারের আওতায় আনুন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Jack Ali ৫ জুলাই, ২০২০, ৬:১১ পিএম says : 0
You are asking Jackle to save the chicken.. Alem's duty is to establish the Law of Allah's world.. now Alem's are busy with fighting each other.. In Judgement day what answer will you give O'Alem in Bangladesh...???
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন