ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

করোনা উপসর্গে ১৩ জনের মৃত্যু

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

করোনা উপসর্গ সর্দি, জ্বর, কাশি, গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সারা দেশে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে এদের কারো শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ছিল কিনা তা নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।
যশোর ব্যুরো জানায়, যশোর ২৫০ বেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনা উপসর্গের দুই জন গতকাল সন্ধ্যায় মারা গেছেন।হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ হোসেন এই তথ্য জানান। তিনি বলেছেন, তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।
নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, নোয়াখালীতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময় আক্রান্ত হয়েছে আরও ২৫ জন। এ নিয়ে জেলায় মৃত্যুর সংখ্যা ৪৯জন ও আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২২৬৪জন। গতকাল এ তথ্য জানান নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার।
মৃতদের মধ্যে কবিরহাট, বেগমগঞ্জ ও সোনাইমুড়ি উপজেলায় একজন করে রয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে বিভিন্ন পেশাজীবি রয়েছে। এ যাবত সুস্থ হয়েছেন ১১০৩জন। আক্রান্তদের ২৫জনকে নোয়াখালী শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে স্থাপিত অস্থায়ী করোনাভাইরাস হাসপাতালের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এছাড়া নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ১০৮৩জন।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, রাজশাহী বিভাগে আট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৬২ জনের নমুনায় করোনা পাওয়া গেছে। ভয়ানক হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি। প্রতিদিন বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা। এছাড়া সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন আরও ১৪৪ জন এবং মারা গেছেন ১ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী।
রোববার সকাল পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৮৫১ জনে। এ বিভাগে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৯৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৯৪০ জন। রোববার দুপুরে এক প্রতিবেদনে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তারের পরিচালক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য এ তথ্য জানান।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্তের মধ্যে রাজশাহীর ৯৬ জন, নওগাঁর ১৭ জন, নাটোরের ২৯, জয়পুরহাট ৩ জন, বগুড়ায় ৬১ জন, সিরাজগঞ্জে ৩০ জন ও পাবনার ২৬। তবে বিভাগের অপর জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোন রোগি শনাক্ত হয়নি বলে তিনি জানান।
ডা. গোপেন্দ্র জানান, রাজশাহী বিভাগে এ পর্যন্ত ৬৮৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ বগুড়ায় ৩৩০৭ জন আক্রান্ত। এছাড়াও মহানগরীতে ৭৯৯ জনসহ রাজশাহী জেলায় ১০৮৫ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১০১ জন, নওগাঁয় ৫৫৯ জন, নাটোরে ২৪৪ জন, জয়পুরহাটে ৪৫৪ জন, সিরাজগঞ্জে ৬২৭ জন ও পাবনায় ৪৭৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
তিনি বলেন, সরকারি হিসেবে এ পর্যন্ত বিভাগের আট জেলার মধ্যে ছয় জেলায় মৃতের সংখ্যা ৯৫ জন। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১০ জন, নওগাঁয় সাতজন, নাটোরে একজন, বগুড়ায় ৬১ জন, সিরাজগঞ্জে আটজন ও পাবনায় আটজনের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। সরকারি হিসেবে এখনো জয়পুরহাট ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে কোন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা যায়নি।
গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন আরও ১৪৪ জন। এ নিয়ে বিভাগে সুস্থ হয়েছেন ১৯৪০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী। এর মধ্যে রাজশাহীর ১৫৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৬১ জন, নওগাঁয় ৩৪৩ জন, নাটোরে ৭৬ জন, জয়পুরহাট ১৫১ জন, বগুড়ায় ৯৩৭ জন, সিরাজগঞ্জ ৬৭ জন ও পাবনায় ১৪৯ জন।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, দক্ষিণাঞ্চলে রেকর্ড সৃষ্টি করে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমনে মৃত্যুর মিছিলে আরো ৫ জনের নাম যোগ হয়েছে। গত মার্চ থেকে এ পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলে একদিনে এত করোনা রোগীর মৃত্যু হয়নি। আক্রান্তের সংখ্যা আরো ১শ। তবে আগের দিন সংখ্যাটা ছিল ১৪২। ফলে দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় এপর্যন্ত প্রায় ৩ হাজার ৩শ আক্রান্তের বিপরীতে মৃত্য হল ৭৩ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মহানগরীর ভাটিখানা এলকার ১ জন ছাড়াও ঝালকাঠীর নলছিটি ও সদর উপজেলার দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বরিশালের বাবুগঞ্জ ও আড়ৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতালে একজন করে মারা গেছেন। ঝালকাঠী সদরের মৃত ব্যক্তির বয়স ছিল ৮০ বছর। তবে এসময়ে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় আরো ২৬ জন সহ মোট ১ হাজার ১০৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে।
গত ২৪ ঘণ্টায় পটুয়াখালীর অবস্থার অবনতি ঘটেছে। এসময়ে জেলাটিতে করেনা সংক্রমনে কোন মৃত্যু না হলেও আক্রান্তের সংখ্যা পূর্ববর্তী চব্বিশ ঘণ্টায় ৩৪ থেকে বেড়ে ৪০ হয়েছে। এ জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫১১’র বিপরীতে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। গতকাল এ জেলায় নতুন করে কারো সুস্থ হবার খবর না থাকলেও এ পর্যন্ত জেলাটিতে মোট ১০৮ জনের সুস্থ কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। বরগুনাতেও গতকাল দুপুরের পূর্ববর্তি ২৪ ঘণ্টায় পরিস্থিতির অবনতি ঘটে নতুন করে আরো ২৩ জনসহ মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০১-এ উন্নীত হয়েছে। মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলাটিতে নতুন কারো সুস্থ হয়ে ওঠার খবর না থাকলেও এপর্যন্ত মোট ১৫৬ জন সেরে উঠেছেন বলে জানা গেছে।
পিরোজপুরেও আগের দিনের ১১ জনের স্থলে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৮’তে উন্নীত হয়েছে। জেলাটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৪৪, মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। নতুন করে ৩ জন সহ মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪২ জন।
এদিকে বরিশাল মহানগরীসহ জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা আগের দিনের তুলনায় অবিশ^াস্যভাবে এক-তৃতীয়াংশেরও নিচে, ১৮ জনে হ্রাস পেয়েছে। যা আগের দিন ছিল ৬২। তবে এসময়ে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মহানগরীতে ১ জনসহ জেলায় মৃত্যু হয়েছে তিন জনের। ফলে মহানগরী সহ জেলায় মোট ১ হাজার ৬৮১ আক্রান্তের বিপরীতে মৃত্যু হল ২৮ জনের। এরমধ্যে মহানগরীতেই আক্রান্তের সংখ্যা দেড় হাজারের কাছে। মৃত্যুও হয়েছে ১৩ জনের। গতকাল জেলায় নতুন আক্রান্ত ১৮ জনের মধ্যে অন্তত ১১ জনই মহানগরীতে। এরমধ্যে শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একাধীক চিকিৎসক সহ চিকিৎসা কর্মীও রয়েছেন। এছাড়া নগরীর রূপাতলী, এন হোসেন লেন, ব্রাউন কম্পাউন্ড, আমতলা, নবগ্রাম রোডসহ কয়েকটি এলাকায় নতুন রোগী সনাক্ত হয়েছে।
অপরদিকে দক্ষিণাঞ্চলে অন্যতম হটস্পট ঝালাঠিতে করোনা সংক্রমনে দুই রোগীর মৃত্যু ঘটেছে। ফলে জেলাটিতে ২৪২ আক্রান্তের বিপরিতে মৃত্যু হল ১০ জনের। জেলাটিতে নতুন কোন আক্রান্তের খবর না থাকলেও ৩ জন সহ মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১১৭ জন।
এদিকে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৯ জনকে ভর্তি করা হয়েছে। এসময়ে দুজনকে ছাড়পত্র দেয়া হলেও হাসপাতালটির করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন আরো ৮জন। ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে দু জনকে। বর্তমানে হাসপাতালটির আইসোলেশন ও করেনা ওয়ার্ডে যথাক্রমে ৬৩ ও ৫১ জন চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে। এ দুটি ওয়ার্ডে এ পর্যন্ত ভর্তিকৃত ৭৫৪ জনের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১১২ জনের। ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ৫২৪ জনকে।
দিনাজপুর : দিনাজপুরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস জাহাঙ্গীর মানিক মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। গত শনিবার বিকেলে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার।
কুমিল্লা : কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা উপসর্গে গত ২৪ ঘণ্টায় এক নারীসহ আরও পাঁচজন মারা গেছেন।
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন জানান, আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন পাঁচজন। তাদের মধ্যে একজন নারী আর চারজন পুরুষ।
তিনি জানান, মারা যাওয়াদের মধ্যে আইসিইউতে ছিলেন কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার মৃত কবির মাহমুদের ছেলে আবদুল হালিম (৬৮) এবং চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তিউপজেলার আবদুর রশিদের ছেলে টিপু সুলতান (৪৬)। আইসোলেশন ওয়ার্ডে মৃত্যু হয়েছে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নাজিরবাজার এলাকার মৃত আবুল হাসেমের মেয়ে নূরজাহান (৮০) ও কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর এলাকার আবদুল মজিদের ছেলে মোশাররফ হোসাইন (৫৩) এবং করোনা ওয়ার্ডে মারা যান কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মৃত হাজী বাক্স আলীর ছেলে নুরুজ্জামান (৮৮)।
স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে জানান, চাঁদপুরে নতুন করে আরো ৮জনের দেহে করোনা াইরাস শনাক্ত হয়েছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৩জন, মতলব দক্ষিণে ৩জন, শাহরাস্তিতে ১জন এবং শাহরাস্তিতে ১জন রয়েছে। চাঁদপুর জেলায় এ নিয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১০৪৩জন। এরমধ্যে মৃতের সংখ্যা ৬২জন। চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, রোববার সকালে দুপুরে ৩৯টি রিপোর্ট আসে । এর মধ্যে ৮টি পজেটিভ। বাকি ৩১টি নেগেটিভ। জেলায় ১০৩৫জন করোনা আক্রান্ত রোগীর উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হচ্ছে; চাঁদপুর সদরে ৪১৭জন, মতলব দক্ষিণে ১১৬জন, শাহরাস্তিতে ১০৫জন, হাজীগঞ্জে ১০২জন, ফরিদগঞ্জে ১১০জন, হাইমচরে ৭৭জন, কচুয়ায় ৪৬জন এবং মতলব উত্তরে ৭০জন। চাঁদপুর জেলায় করোনায় মৃত ৬২জনের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ১৮ জন, হাজীগঞ্জে ১৬জন, ফরিদগঞ্জে ৭জন, কচুয়ায় ৫ জন, মতলব উত্তরে ৮জন, শাহরাস্তিতে ৪জন , মতলব দক্ষিণে ৩জন এবং হাইমচরে ১জন।
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে জানান, মাগুরায় গতকাল করোনা উপসর্গ নিয়ে শফিউদ্দিন চোপদার (৭৫) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। সে মাগুরা শহরের ভায়না চোপদার পাড়া এলাকার বাসিন্দা। পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন ধরে তিনি জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভুকছিলেন। গত শনিবার মাগুরা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা পরীক্ষার জন্যে নমুনা দেন। কিন্তু ভোর চারটার দিকে নিজ বাড়িতেই তার মৃত্যু হয়। যশোরের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবের পরিস্কার পরিছন্ন কাজ করার কারনে দুদিন পরীক্ষা কার্যক্রম বন্ধ থাকার কারনে তার নমুনার ফলাফল এখনো পাওয়া জানা জায়নি বলে মাগুরা সিভিল সার্জন জানান। দিকে শনিবার নমুনা দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়নি বলে সিভিল সার্জনের কার্যালয় থেকে জানান হয় এদিকে, মাগুরায় ১৬৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৯৩ জন মাগুরা পৌর এলাকার।
সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা জানান, করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই নারীসহ তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকালে ও শনিবার দিবাগত রাতে তারা মারা যান। এরা হলেন, দেবহাটা উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামের ইয়াছিন আলীর স্ত্রী কোহিনুর বেগম (৫০), শহরের পলাশপোল এলাকার জয়নাল আবেদিনের ছেলে রাহাতুল্লাহ (৯৫) ও কলারোয়া উপজেলার আলাইপুর গ্রামের আব্দুস সালামের স্ত্রী আমেনা খাতুন (৪০)।
সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে কোহিনুর বেগম শনিবার দুপরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন। এরপর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান।
এদিকে, রাত ১০ টার একই উপসর্গ নিয়ে আলহাজ্ব রাহাতুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন। এরপর রাত ১১ টার দিকে তিনি মারা যান। অপরদিকে, আমেনা খাতুনও একই উপসর্গ নিয়ে রোববার
টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা জানান, টাঙ্গাইলে নতুন করে এক স্বাস্থ্যকর্মীসহ ১৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় সর্বমোট আক্রান্ত হলো ৭৪৭ জন। আক্রান্তদের মধ্যে টাঙ্গাইল সদর উপজেলায় ১০জন, মির্জাপুরে এক স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৬জন ও বাসাইলে ১জন রয়েছে। জেলায় মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা ৩২৯ জন। মারা গেছে মোট ১৪ জন। নমুনা সংগ্রহের রিপোর্ট পেন্ডিং রয়েছে ২৩৫টি। বাড়িতে ও আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৩৮৬ জন। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াহিদুজ্জামান রোববার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. সদর উদ্দিন জানান, হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে সর্বমোট ২৮ জন ভর্তি হয়। ১৯ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে ৬ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরো ৫৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট ১ হাজার ১৭৮ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। ঢাকা থেকে আসা পিসিআর রিপোর্টে তাদের করোনা পজিটিভ আসে। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল আমিন ও একই আদালতের বেঞ্চ সহকারী শরিফ করোনা পজেটিভ এসেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ জানান, নমুনা পরীক্ষা পর শনিবার রাতে আসা রিপোর্টে ৫৮ জনের পজিটিভ আসে। এর মধ্যে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আল আমিন ও বেঞ্চ সহকারী শরিফের পজিটিভ আসে। তারা বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন। এখন পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২১ জন, সুস্থ হয়েছে ২৫২ জন ও আইসোলেশনে রয়েছেন ৮৬২ জন।
এদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সন্ধ্যা রানী (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি জেলার নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রামের মৃত শচীন্দ্র সরকারের স্ত্রী।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডাক্তার মো. শওকত হোসেন জানান, ওই বৃদ্ধার স্বজনরা করোনাভাইরাসে আক্রান্তের বিয়ষটি গোপন করেছিলেন। স্বাস্থ্যকর্মীরা বিষয়টি জানার পর আইসোলেশেন সেণ্টারে পাঠানোর সময় তিনি মারা যান।
ছাতক (সুনামগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সুনামগঞ্জের ছাতকে করোনা উপসর্গ নিয়ে সিলেটের জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেজিয়া বেগম নামের এক মহিলা মৃত্যুবরণ করেছেন। রেজিয়া বেগম ছাতক পৌরসভার দক্ষিণ বাগবাড়ী এলাকার মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী। শুক্রবার রেজিয়া বেগম চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.রাজীব চক্রবর্তী জানান, বেসরকারিভাবে ওই মহিলা চিকিৎসা নিয়েছেন। মৃত্যু ও দাফনের পর নমুনা পরীক্ষা শেষে তার করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়। এর আগে ছাতকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা জাউয়া ইউনিয়নের কৈতক গ্রামের বাসিন্দা আবদুল হক, পৌর শহরের বাগবাড়ী মহল্লার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা হাজী পিয়ারা মিয়া, ইসলামপুর ইউনিয়নের গনেশপুর গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী হাজী হিরা মিয়া। করোনা উপসর্গ নিয়ে সিলেটের শহিদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে মারা গেছেন ভাতগাও ইউনিয়নের হায়দরপুর গ্রামের বাসিন্দা দরাজ আলী মাস্টার। এ নিয়ে ছাতকে করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৫ জন। এখন পর্যন্ত ছাতকে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৫৬ জন।
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক স্বাস্থ্য সেবক ও পৌর শহরের কবি নজরুল ইসলাম সড়ক সংলগ্ন এলাকার একই পরিবারের ৫ জনসহ নতুন করে ৭ জনের শরীরের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন