ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দুই জেলায় ৩ জনের আত্মহত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

 চাঁদপুরে এক তরুণী, এক গৃহবধূ ও ফরিদপুরে ময়না আক্তার নামে এক যুবতী বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। এ বিষয়ে আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন-
চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূ ও মতলব দক্ষিণ উপজেলায় এক তরুণী আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার ভোর রাতে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে তাদের মৃত্যু হয়। চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠান।
জানা যায়, মতলব দক্ষিণ উপজেলার আশ্বিনপুর গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির কিশোর পাটোয়ারীর কন্যা মিম আক্তার (১৬) পরিবারের সাথে অভিমান করে আত্মহত্যার পথ বেঁচে নেয়। লেখাপড়া ও প্রেম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পরিবারের সদস্যরা শাসন করলে সে অভিমান করে। পরবর্তীতে সকলের অজ্ঞাতে সে কীটনাশক পান করে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রাত ৩টা ৪৫মিনিটে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
অপরদিকে হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের বাকিলা গ্রামের দাস বাড়িতে এক গৃহবধূ বিষপান করে। দুবাই প্রবাসী নন্দ দুলাল দাসের স্ত্রী নিপা রানী দাস (২৫) পরিবারের সদস্যদের সাথে অভিমান করে বিষপান করে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নিপা রানী দাসকে মুমূর্ষ অবস্থায় সকালে চাঁদপুর সরবারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিপা মৃত্যু হয়।
হাসপাতাল থেকে চাঁদপুর মডেল থানাকে অবগত করলে পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।
ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরের সালথায় ময়না আক্তার (১৯) নামের এক যুবতী বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। গত সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ময়না আক্তার উপজেলার বলভদি ইউনিনের খলিশা বল্লভদী গ্রামের ওহিদুজ্জামান শেখের মেয়ে।
জানা যায়, পরিবারের লোকজনের ওপর অভিমান করে গত সোমবার আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ময়না আক্তার। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে আহত অবস্থায় মোকসেদপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান। সালথা থানার এসআই মিজানুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন