ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

এ বছরের এশিয়া কাপ বাতিল!

প্রতি সিরিজেই দিবা-রাত্রির টেস্ট চান গাঙ্গুলি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম


‘যথা সময়ে’ চ‚ড়ান্ত হবে এবারের এশিয়া কাপের ভেন্যু। গেল মাসে ভার্চুয়াল সভা শেষে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এমনটাই বলেছিল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। যদিও নির্ধারিত সূচি অনুসারে আসরটি মাঠে গড়াবে কিনা সে বিষয়ে তখন কিছু জানানো হয়নি। তবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলিকে উদ্ধৃত করে দেশটির গণমাধ্যম আনন্দবাজার জানিয়েছে, বাতিল হয়ে গেছে এ বছরের এশিয়া কাপ। কিছুদিনের মধ্যেই দেওয়া হবে চ‚ড়ান্ত ঘোষণা।
গতকালই জীবনের ইনিংসে ৪৭ বছর পূর্ণ করে ৪৮-এ পা দিয়েছেন ভারতের সাবেক তারকা অধিনায়ক সৌরভ। তার জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ সাক্ষাৎকার ছাপিয়েছে কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা। ‘মহারাজা’র কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, ‘বিদেশে ফুটবল শুরু হয়েছে, ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট শুরু হচ্ছে বুধবার থেকে। কবে নাগাদ বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মাদের ফের মাঠে দেখা যেতে পারে? এশিয়া কাপে?’
জবাবে সৌরভ সরাসরি বলেছেন, এশিয়া কাপ এবার আর মাঠে গড়াচ্ছে না। বরং তাদের সব মনোযোগ এখন স্থগিত হয়ে যাওয়া ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) আয়োজনের দিকে, ‘এশিয়া কাপ বাতিল হয়ে গেছে। এবার আর হচ্ছে না। আমরা আইসিসির সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি। দেখা যাক, কবে ওরা চ‚ড়ান্ত ঘোষণা করে। তারপর আইপিএল নিয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। আমরা মাথায় রাখছি, যদি অক্টোবর-নভেম্বরের দিকে পরিস্থিতির উন্নতি হলে আইপিএল করা যায়। এই মুহ‚র্তে ওই সময়ের আগে ক্রিকেট শুরু হওয়ার সম্ভাবনা দেখছি না।’
সৌরভের বক্তব্য থেকে আরও একটি ইঙ্গিত মিলেছে। আর তা হলো, চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও হয়তো স্থগিত হয়ে যাবে। কারণ, এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার সূচি রয়েছে আগামী সেপ্টেম্বরে। এরপর অক্টোবর-নভেম্বরে বিশ্বকাপের আসর বসার কথা অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে। কিন্তু ওই সময়েই আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা করছে ভারতীয় বোর্ড। এখনও বিশ্বকাপ নিয়ে আইসিসির চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত না প্রসঙ্গে ‘প্রিন্স অব ক্যালাকাটা’ খ্যাত সাবেক বাঁহাতি ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘আইসিসি হয়তো চেষ্টা করছে, সবদিক ভালোভাবে দেখে নিতে যে, বিশ্বকাপ আয়োজনের আর কোনো সম্ভাবনা আছে কিনা। বিশ্বকাপ থেকে প্রাপ্ত মুনাফা থেকে সব দেশকে আর্থিক অনুদানও দেওয়া হয়। তা থেকে ক্রিকেট উন্নয়নের অনেক কাজ হয়। নানা দিক নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। তাই হয়তো আইসিসি চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি।’
স্থবির সময় কাটিয়ে এদিনই ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ দিয়ে ফিরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। কিন্তু অনেকগুলো সিরিজ ও টুর্নামেন্ট বাতিল হওয়ায় বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতিতে আছে ক্রিকেট বোর্ডগুলো। তাই এসব বিবেচনা নিয়েই প্রতি সিরিজে একটি করে দিবারাত্রির টেস্টের গুরুত্ব দেখছেন সৌরভ। বিসিসিআইয়ের ওয়েবসাইটে ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি কথা বলেছেন ক্রিকেটের কুলীন সংস্করণের জৌলুস বাড়ানো নিয়ে, ‘আমার মনে হয়, প্রতি টেস্ট সিরিজে একটা করে দিবারাত্রির টেস্ট গুরুত্বপ‚র্ণ। কারণ, সবাই মিলে ক্রিকেটকে এখন চাঙা করা দরকার। আমরা কলকাতায় গোলাপি বলে খেলেছি এবং আমার মনে হয় না সেটা কেবলই ভারত-বাংলাদেশের সাধারণ একটা টেস্ট ম্যাচ ছিল। আমরা আশা করেছিলাম, খেলাটা পাঁচ দিনে যাবে। কিন্তু তিন দিনেই আমরা সাড়ে তিন লাখ দর্শককে মাঠে আনতে পেরেছিলাম।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন