ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

করোনার চেয়েও ভয়াবহ ‘অজানা নিউমোনিয়া’ ধেয়ে আসছে বিশ্বজুড়ে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ জুলাই, ২০২০, ৪:৩৩ পিএম

করোনাভাইরাসের চেয়েও ভয়ঙ্কর অপরিচিত এক বিরল গোত্রের নিউমোনিয়ার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে কাজাখস্তান জুড়ে। চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে নতুন এ নিউমোনিয়ায় মারা গিয়েছেন ১,৭৭২ জন, যার মধ্যে গত জুন মাসেই ৬২৮ জনের মত্যু হয়েছে। জুন মাসে তার শিকার হয়েছেন আরো ৬০০ এর বেশি মানুষ। গোটা কাজাখস্তানে সম্পূর্ণ অচেনা প্রজাতির এই নিউমোনিয়া তাণ্ডব চালিয়ে বেড়াচ্ছে বলে জানিয়েছে সে দেশের চীনা দূতাবাস। কাজাখস্তানে বসবাসরত নিজ দেশের বাসিন্দাদের উদ্দেশে বৃহস্পতিবার জারি করা চীনা দূতাবাসের এক সতর্কবার্তায় এ তথ্য জানা গেছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার চীনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে উইচ্যাট প্ল্যাটফর্মে বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে, সেখানে বলা হয়েছে 'এই রোগে মৃত্যুর হার কভিড-১৯ এর চেয়ে অনেক বেশি।'
কাজাখস্তানের স্বাস্থ্য বিভাগ ও অন্যান্য সংস্থাগুলো তুলনামূলক গবেষণা চালিয়েও এই অজানা নিউমোনিয়া ভাইরাসের প্রকৃতি সম্পর্কে জানতে পারেনি বলে সতর্কবার্তায় জানিয়েছে চীনা দূতাবাস।
দূতাবাসটি জানায়, গত জুনের মাঝামাঝি থেকে সারাদেশে অজ্ঞাত ওই নিউমোনিয়ায় আক্রান্তের ঘটনা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এমনকি কিছু কিছু জায়গায় কর্তৃপক্ষ একদিনে শ’ খানেক আক্রান্তের খবরও নিশ্চিত হওয়া গেছে।
দূতাবাসের সতর্কবার্তায় স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, এই রোগের প্রকোপ এখন পর্যন্ত কাজাখস্তানের আত্রাউ, আক্টোবে ও শিমকেন্টের অঞ্চলে বেশি দেখা দিয়েছে। এই স্থানগুলোতে প্রায় ৫০০টি নতুন আক্রান্ত ও ৩০ জনেরও বেশি গুরুতর অসুস্থ রোগী রয়েছে।
কাজাখস্তানের সংবাদ সংস্থা কাজিনফর্মের মতে, সরকারি তথ্যের বরাতে রাজধানী নূর-সুলতানে এই জুনে নিউমোনিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি। সেখানে প্রতিদিন ২০০ জনের মতো হাসপাতালে ভর্তি হয়ে থাকলেও গত কয়েকদিন ধরে প্রতিদিন নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত প্রায় ৩০০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে।
উত্তর-পূর্ব চীনের শিংজিয়াং উইঘুর স্বশাসিত অঞ্চলের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সীমান্ত রয়েছে কাজাখস্তানের। স্বভাবতই বিরল নিউমোনিয়া নিয়ে আশঙ্কার প্রহর গুনছে বেইজিং।
নতুন নিউমোনিয়ার বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) আদৌ জানানো হয়েছে কি না, সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানায়নি চীন। তবে চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমের দাবি, কভিডের তুলনায় অচেনা নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা যে কমপক্ষে ২-৩ গুণ বেশি, তা বুধবার স্বীকার করেছেন কাজাখস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী।
করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে গত ১৬ মার্চ দেশজুড়ে লকডাউন আরোপ করেছিল কাজাখস্তান সরকার। মে মাসে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলেও পরে সংক্রমণের হার আবার বাড়লে ফের লকডাউন জারি করা হয়েছে কাজাখস্তানে। দেশের প্রেসিডেন্ট কাসিম-জোমার্ত তোকায়েভ আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, দ্বিতীয় করোনা সংক্রমণ প্রবাহের সম্মুখীন হতে পারে কাজাখস্তান।
চীনা দূতাবাস ওই অঞ্চলের বসবাসরত তাদের বাসিন্দাদের সতর্ক করেছে তারা যেন বাইরে যাওয়া সীমাবদ্ধ রাখেন এবং জনাকীর্ণ এলাকা এড়িয়ে চলেন। সতর্কতা হিসেবে মাস্ক পরিধান ও ঘন ঘন হাত পরিষ্কার করতে বলা হয়েছে। সূত্র: মিরর ইউকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন