ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

৭০ দেশের ওপর থেকে কোয়ারেন্টিন তুলে নিলো যুক্তরাজ্য

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাস সংক্রান্ত কঠোর কোয়ারেন্টিন আইন তুলে নেয়া হয়েছে যুক্তরাজ্যের অন্তর্ভুক্ত অঞ্চল এবং বিশ্বের ৭০টিরও বেশি দেশের ভ্রমণকারীদের জন্য। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের ঠিক পরেই দেশটির পররাষ্ট্র দফতর এক টুইট বার্তায় এ ঘোষণা দেয়। পরিবর্তিত নতুন নিয়ম গতকাল থেকে ওয়েলস এবং ইংল্যান্ডে কার্যকর হয়েছে। ভ্রমণকারীদের এখন থেকে ১৪ দিনের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে না হলেও ভ্রমণকারীরা যেখানে অবস্থান করবেন, তাদেরকে সেখানকার ঠিকানা নথিবদ্ধ করতে হবে। তবে, যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডা থেকে আগতদের এখনও কোয়ারেন্টিনের নিয়ম অনুসরণ করতে হবে।

ঠিকানা না দেয়ার ক্ষেত্রেও কিছু ব্যতিক্রম রেখেছে যুক্তরাজ্য। ঘোষণায় উল্লেখ করা হয় যে, যারা গতানুগতিক অঞ্চলের মধ্যে ভ্রমণ করছেন এবং যারা গত ২ সপ্তাহ ধরে সেই অঞ্চলগুলোতে রয়েছেন, ক‚টনীতিকগণ, আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মী, বিদেশি প্রতিনিধি এবং প্রতিরক্ষা কর্মীদের নির্দিষ্ট ঠিকানা না থাকলেও চলবে।

বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনের নিয়ম বিমান, সমুদ্র বা ট্রেনে করে আগতদের এবং যুক্তরাজ্যের নাগরিকদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য ছিল। তবে এখন ৫৮টি দেশ এবং ১৪টি ব্রিটিশ অঞ্চল থেকে কম ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করা ইংল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ডে আগত ভ্রমণকারীদের ছাড় দেয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যের কোয়ারেন্টিন শিথিলের পুরো তালিকায় ফ্রান্স, ক্রোয়েশিয়া এবং স্পেনের মতো অনেক জনপ্রিয় ইউরোপীয় অবসর গন্তব্য অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

তালিকায় নেই এমন দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, পর্তুগাল, সুইডেন, মেক্সিকো, ব্রাজিল, রাশিয়া, ইরান, ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং চীন। যে দেশগুলোর ক্ষেত্রে কোয়ারেন্টিন নিয়ম প্রযোজ্য হবে না, সেই তালিকায় সার্বিয়াকে অন্তর্ভুক্ত করা হলেও পরে তা সরিয়ে ফেলা হয়। স্কটল্যান্ডের কোয়ারেন্টিন নিয়মও ৫৭টি দেশের জন্য শিথিল করা হয়েছে, যার মধ্যে স্পেন এবং যুক্তরাজ্যের নেতিবাচক তালিকাভুক্ত ১৪টি দেশের নাম নেই।

যুক্তরাজ্যের কোয়ারেন্টিনহীন তালিকার কয়েকটি দেশও পর্যটকদের প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না। যেমন, অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড কেবলমাত্র তাদের নিজস্ব নাগরিক বা স্থায়ী বাসিন্দাদের জন্য উন্মুক্ত। এর আগে, গেল বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্য ঘোষণা করে যে, আগামী সোমবার থেকে দেশটির বিউটি সেলুন, গায়ের রঙ বাদামী করার ও ট্যাটু করার দোকানগুলো আবার চালু করা যাবে এবং জিম ও ইনডোর সুইমিং পুলগুলো চলতি মাসের শেষের দিকে খুলে দেয়া হবে। সূত্র : স্কাই নিউজ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
Saiful Alam ১১ জুলাই, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
ভালো খবর। আস্তে আস্তে সব স্বাভাবিক হয়ে যাক সেই আশা করি।
Total Reply(0)
তাসফিয়া আসিফা ১১ জুলাই, ২০২০, ১:১১ এএম says : 0
ইউকে সরকারকে ধন্যবাদ জানাই। েএখন আসলে এসব নিষেধাজ্ঞা আর প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না।
Total Reply(0)
সাকা চৌধুরী ১১ জুলাই, ২০২০, ১:১২ এএম says : 0
এখন সব দেশের ওপর থেকে তুলে নেয়া যায়। স্বাস্খবিধি মেনে চলার ওপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।
Total Reply(0)
চাদের আলো ১১ জুলাই, ২০২০, ১:১৩ এএম says : 0
সবকিছু স্বাভাবিক করে দেয়া হোক। আর অচলাবচস্থা ভালো লাগে না।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন