ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

মাকে নিয়ে দেওয়ান লালন আহমেদের হৃদয়ছোঁয়া গান

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২০, ১১:১৩ এএম

সংস্কৃতি অঙ্গণে পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের অংশগ্রহণ নতুন কিছু নয়। অনেকে সদস্য অভিনয়, নাটক লেখা, গান লেখা থেকে শুরু করে পরিচালনার সাথে যুক্ত। তারা বেশ দর্শকপ্রিয়তাও পেয়েছেন। দেওয়ান লালন আহমেদ তাদের মধ্যে অন্যতম। ট্যুরিস্ট পুলিশের এসপি হিসেবে কর্মরত এই অফিসার ইতোমধ্যে লেখক ও গিতীকার হিসেবে বেশ খ্যাতি অর্জন করেছেন। তার লেখা গল্প-উপন্যাস যেমন পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে, তেমনি গানও শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। ইউটিউবে তার লেখা গানগুলো শ্রোতা-দর্শকদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করে চলেছে। সম্প্রতি শাহরিয়ার নাজিম জয় পরিচালিত ‘আমার মা’ নামে মুক্তিপ্রতিক্ষিত সিনেমায় তার লেখা একটি গান প্রকাশিত হয়েছে। মাকে নিয়ে লেখা অসাধারণ কথার হৃদয়গ্রাহী গানটি ইতোমধ্যে শ্রোতা-দর্শক দেখে এবং শুনে আবেগাপ্লুত হচ্ছে। গানটির চিত্রায়নে অংশ নিয়েছেন আরেক জনপ্রিয় চিত্রনায়ক এবং পুলিশ অফিসার ডি এ তায়েব, আনোয়ারা, চিত্রনায়িকা মাহি এবং শিশুশিল্পী টুনটুনি। গানটির কথার সাথে এর হৃদয়স্পর্শকরা গল্পের চিত্রায়ণ দেখে মানুষ আবেগাপ্লত হচ্ছেন। এবারের ঈদে এটিএন বাংলায় ওয়ার্ল্ড সিনেমাটির প্রিমিয়ার হবে। দেওয়ান লালন আহমেদ বলেন, সিনেমার গানের গল্পের সাথে সামঞ্জস্য রেখে গান লেখার ক্ষেত্রে অনেকে চিন্তা-ভাবনা করতে হয়। সেই গানটি যদি হয়, মাকে নিয়ে, তবে তার জন্য যে আবেগ-অনুভূতি এবং তার প্রকাশের ক্ষেত্রে যে ভাষার প্রয়োগ দরকার, তা যথাযথ না হলে দর্শকহৃদয় স্পর্শ করা কঠিন। আমি চেষ্টা করেছি, এসব কিছু বিবেচনা করে গানটি লিখতে। গানের কথার সাথে পরিচালক যুথবদ্ধ গল্পের সংমিশ্রণ ঘটিয়েছেন, সেই সাথে এতে যারা পারফরমেন্স করেছেন, তারা অসাধারণ দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। যার ফলে, গানটি দর্শককে আপ্লুত করতে সক্ষম হয়েছে। এটা আমার জন্য বড় পাওয়া। উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত দেওয়ান লালন আহমেদ ৩০০-এর বেশি গান লিখেছেন। সম্প্রতি তার লেখা ৬টি গান প্রকাশিত হয়েছে। জনপ্রিয় ব্যান্ডশিল্পী মিজানের কন্ঠে 'বীরাঙ্গনা' লুমিনের 'পচিশে মার্চ' ও ‘পাসওয়ার্ড' 'এবং সঙ্গীতশিল্পী মুনের ‘মায়ের নেই কোন বিকল্প’ লুমিনের গাওয়া ‘বঙ্গবন্ধু’ এবং ‘মা’। গানগুলো প্রকাশিত হয়েছে সিএমভি, ধ্রুব মিউজিক এবং জি সিরিজ থেকে। এছাড়া নাটকের জন্যও তিনি গান লিখেছেন। এগুলোর মধ্যে রয়েছে 'স্ট্যান্ড আপ নাদিম ' নাটকে ‘কষ্ট’ শিরোনামের গানটি পৃথ্বিরাজের সুর ও কন্ঠে, 'ভুল অংক' নাটকের 'ভুল অংক ' গানটি মুনের সুর ও কন্ঠে প্রকাশিত হয়েছে। এ ছাড়া মুক্তিপ্রতিক্ষিত রায়হান জুয়েলের পরিচালনায় অ্যাডভেঞ্চার অফ সুন্দরবন সিনেমায়ও তিনি গান লিখেছেন। এতে ‘সারেং ছাড়া জাহাজ চলে’ গানটি লিখেছেন। তার প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বাবার চোখে মুক্তিযুদ্ধ (২০১৬), ২০১৭ সালের একুশের বইমেলায় প্রকাশিত ‘পুলিশের খেরোখাতা’। ২০১৮ সালের একুশের বইমেলায় শিশুতোষ বই ‘বিতং বনে বন বনিয়ে’ ২০২০-এ মুজিব বর্ষের স্মারক গ্রন্থ ‘পুলিশের খেরোখাতা’ দ্বিতীয় পর্ব এবং ‘সাধু সঙ্গে ডুবাও অঙ্গ’ প্রকাশিত হয়েছে। তার লেখা গল্প কবিতা প্রবন্ধ দেশের বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। তিনি বাংলাদেশ পুলিশের মুখপাত্র ডিটেক্টিভ পত্রিকায় নিয়মিত লিখেন। দেওয়ান লালন আহমেদ ১৯৭৮ সালে টাঙ্গাইলে জন্মগ্রহণ করেন। পড়ালেখা করেছেন নটরডেম কলেজে এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করে ২৪তম বিসিএসে উত্তীর্ণ হয়ে পুলিশ ক্যাডারে যোগদান করেন। তার স্ত্রী ফারজানা গাজী তান্তিয়া, পুত্র দেওয়ান নুর তিওম ও কন্যা সেহলা তায়িবাহ আশনা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন