ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

হাজীগঞ্জে সরকারি সৌরবিদ্যুতের স্ট্রীট লাইট ইউপি চেয়ারম্যানের মাছের প্রজেক্ট

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২০, ১:০৬ পিএম

গ্রামাঞ্চলের জনবহুল এলাকার জন্য বরাদ্দকৃত সৌর বিদ্যুতের স্ট্রিট লাইট ইউপি চেয়ারম্যানের মাছের প্রজেক্টকে আলোকিত করছে। এ নিয়ে জনমনে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। কিন্তু চেয়ারম্যান প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ মুখ খোলার সাহস পায় না। এমনই ঘটনা ঘটেছে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলা ৮নং হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নে।

সরকারিভাবে বরাদ্দকৃত সৌর বিদ্যুতের ৮টি স্ট্রীট লাইট ইউপি চেয়ারম্যান মির্জা জলিলুর রহমান তার মাছের প্রজেক্টে ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

১০ জুলাই শুক্রবার সরেজমিনে দেখা গেছে, পূর্ব হাটিলা দক্ষিণ বিলে জনস্বার্থের জন্য বরাদ্দকৃত একে একে সরকারি ৮টি সৌর বিদ্যুৎ চালিত স্ট্রীট লাইট ইউপি চেয়ারম্যান ব্যক্তিস্বার্থে নিজের মাছের প্রজেক্টে স্থাপন করেছেন। তদারকি না থাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে।

ইউপি চেয়ারম্যান মির্জা জলিলুর রহমান দুলাল তার মৎস্য চাষের সুবিধার্থে বেড়িবাঁধের চারপাশে ৮টি সৌর বিদ্যুৎ চালিত স্ট্রীট লাইট স্থাপন করেন। তিনি গত দুই বছরের মধ্যে সরকারি বরাদ্দকৃত ৮টি সৌর বিদ্যুৎ চালিত স্ট্রীট লাইট ওই বেড়িবাঁধের চারপাশে স্থাপন করেছেন। সর্বশেষ গত ১জুলাই সরকারের পিআইও অফিসের বরাদ্দকৃত ৪টি লাইট প্রজেক্টে এলাকায় স্থাপন করেন। অথচ এই লাইটগুলো ইউনিয়নের জনস্বার্থে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বসানোর কথা।

জানা গেছে, সরকারি এই লাইট গুলোর আনুমানিক মূল্য ৪/৫ লাখ টাকা।

পূর্ব হাটিলা গ্রামের ভূঁইয়া বাড়ির ইমাম, জহির, শাহাদাৎ বলেন, চেয়ারম্যানের মাছের প্রজেক্টি ৮নং ও ৩নং ওয়ার্ডের প্রায় ৩০ একর জমিতে । প্রজেক্টের দুই পাশে গত ১ জুলাই পিআইও অফিসের বরাদ্দের ৪টি স্ট্রীট লাইট লাগানো হয়েছে।

ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক রাসেল মজুমদার বলেন, জনস্বার্থে ব্যবহৃত সৌর বিদ্যুৎ চালিত স্ট্রীট লাইট ব্যক্তিস্বার্থে ব্যবহার করার কোন সুযোগ নেই। সংসদ মেজর রফিকুল ইসলাম বীর উত্তমের জরুরী হস্তক্ষেপে ওই লাইটগুলো জনস্বার্থে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বসানোর অনুরোধ জানান তিনি। ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি শুনেছি, চেয়ারম্যান সরকারি লাইটগুলো বেড়িবাঁধের পাড়ে স্থাপন করেছেন।

উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা জাকির হোসাইন বলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলায় সম্প্রতি প্রায় ১৫০টি সৌর বিদ্যুৎ চালিত স্ট্রীট লাইট বসানো হয়েছে। তার মধ্যে হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে ৩টি দেওয়া হয়েছে। তিনি কোথায় স্থাপন করেছেন, তা জানা নাই। তিনি বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান জনস্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বসানোর কথা। কিন্তু তিনি যদি ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করে থাকেন তাহলে বিষয়টি ঠিক করেননি।

হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়ুয়া বলেন, লাইটগুলো তদারকির দায়িত্ব প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের। তারপর ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মির্জা জলিলুর রহমান মির্জা দুলাল বলেন, ‘সবগুলো লাইট সরকারি রাস্তার উপরে জনস্বার্থে লাগানো হয়েছে। আমার বেড়িবাঁধের স্বার্থে ব্যবহারের জন্য নয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন