ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্টের বাড়িতে ডাকাতি, তিনজন জখম

গৃহকর্তার প্রতিরোধের মুখে ডাকাতদের পলায়ন

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০২০, ২:১৫ পিএম

গত গভীর রাতেজেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়নের মুকুয়া গ্রামে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট মামুন হাওলাদারের বাড়িতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে একদল ডাকাত হামলা চালিয়ে ডাকাতি করেছে। ডাকাতিকালে ডাকাতরা গৃহকর্তা মামুন হাওলাদার, তার স্ত্রী ও সন্তানকে জখম করেছে।এ সময় গৃহকর্তা মামুন মোল্লার প্রতিরোধের মুখে ডাকাতদলের সদস্যরাও জখম অবস্থায় পালিয়ে যায়।
ডাকাতদের হামলায় জখম গৃহকর্তা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট মামুন মোল্লা জানায়, গত রাত আনুমানিক দুইটার দিকে ৬/৭ জনের দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ডাকাত দল তার ঘরের দরজার রড লোহার শাবল দিয়ে খুলে ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল এবং ঘরের লাইট নিভানো ছিল।ডাকাত দল তার স্ত্রীর বালিশের নীচে রক্ষিত সোনার চেন ও গরু কেনার ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যাওয়ার সময় তার স্ত্রী টের পেয়ে চিৎকার দিলে
তিনি খাট থেকে লাফ দিয়ে নিচে নামলে ডাকাত দল তার মাথায় কোপ দেয়,এ সময় তিনি তার খাটের পাশে রক্ষিত রামদা দিয়ে অন্ধকারে এলোপাথাড়ি কোপানো শুরু করলে ডাকাতদল ঐ কক্ষ ত্যাগ করে সামনের রুমে যেয়ে তার ছেলেকে পেটানো শুরু করে। ছেলেকে বাঁচাতে তিনি এগিয়ে গেলে ডাকাতদের সাথে তাদের ধস্তাধস্তি হয় , এসময় ডাকাতদের হামলায় জখম হয় মামুন মোল্লার স্ত্রী হাসিনা বেগম(৪০) ও তার ছেলে জুবায়ের (১৭)।পরে ডাকাতদল পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
মির্জাগঞ্জ থানারভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তিনি রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, প্রাথমিকভাবে জিডি করা হয়েছে,মামুন মোল্লা সহ তার পরিবারের লোকজনকে রাতেই চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে হাসপাতালে এনে। দুর্বৃত্তদের পালিয়ে যাওয়ার পথে রাস্তায় রক্তের চিহ্ন রয়েছে। তাদেরকে ধরতে জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন