ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভুল নীতিতে বহিষ্কারের মুখে ভারত : শাহ মাহমুদ কোরেশি

ইরানের চাহাবার প্রকল্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেছেন, ভারত তার ভুল নীতির কারণে চাবাহার প্রকল্পে ইরানের বহিষ্কারের মুখোমুখি হয়েছে এবং তিনি আরো যোগ করেন যে, দেশটি তার প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান, চীন, নেপাল এবং বাংলাদেশের সাথে ধীরে ধীরে সম্পর্ক সঙ্কুচিত করেছে।
বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে কুরেশি বলেন, ‘হিন্দুত্ববাদী মানসিকতার’ কারণে ভারত সম্পর্ক ছিন্ন করছে। তিনি আরও যোগ করেন, ‘বর্তমান সরকারের ঘৃণা ও পক্ষপাতিত্বমূলক নীতির কারণে এখন ‘শাইনিং ইন্ডিয়া’র তথাকথিত ধারণাটি শেষ হয়েছে। এ মাসের শুরুর দিকে খবর আসে যে, ইরান বিলম্বিত অর্থায়নের কারণ হিসাবে ভারতকে চাবাহার রেল প্রকল্প থেকে বাদ দিয়েছে।
ইরানের রেলওয়ে এবং রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কনস্ট্রাকশন লিমিটেডের (আইআরসিওএন) মধ্যে আলোচিত রেল প্রকল্পটি আফগানিস্তান এবং মধ্য এশিয়ার মধ্যে একটি বিকল্প বাণিজ্য পথ তৈরির ক্ষেত্রে ভারত, ইরান এবং আফগানিস্তানের ত্রিপক্ষীয় চুক্তির প্রতি ভারতের প্রতিশ্রæতির অংশ ছিল। বিগত ১০ বছর ধরে পাইপলাইনে থাকা এই উচ্চাভিলাষী গ্যাসক্ষেত্র প্রকল্পটিও ভারত হারাতে বসেছে।
ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে যে, তেহরান পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে ফারজাদ-বি গ্যাস ক্ষেত্রটি ‘নিজস্বভাবে’ গড়ে তুলবে এবং ‘পরবর্তী পর্যায়ে ভারতকে যথাযথভাবে জড়িত করতে পারে’। বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্কের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান ‘অতীতের তিক্ততা ভুলে একটি ভাল ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে’ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বজায় রাখতে চেয়েছে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত রাষ্ট্রদূত ভোলকান বোজকির সোমবার পাকিস্তান সফরে আসছেন। কুরেশি বলেন, তিনি ভারত অধিকৃত কাশ্মীর সম্পর্কে পাকিস্তানের অবস্থান বোজকিরের সামনে উপস্থাপন করবেন, যেটিতে তিনি বলেন যে, বিশ্বের ‘মানবাধিকারের সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি’তে ভুগছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যে, তিনি বোজকিরকে অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অত্যাচার সম্পর্কেও অবহিত করবেন।
কুরেশি একদিন আগে চিরিকোট সেক্টরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলওসি) বিদেশি গণমাধ্যম সাংবাদিকদের এ সফরকে এ ব্যাপারে ‘একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ’ বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, সীমান্তে বসবাসরত বাসিন্দাদের দুর্দশার জন্য সাংবাদিকরা সেনা বাহিনী সঙ্গে নিয়ে এ অঞ্চলে গিয়েছিলেন। কুরেশি বলেন, সাংবাদিকদের পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তাদের ‘ভারতের দ্বৈত মান দেখানোর’ আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।
‘ভারত কি একই পদ্ধতি অনুসরণ করবে এবং স্বাধীন মিডিয়াকে অধিকৃত উপত্যকা দেখার অনুমতি দেবে?’-প্রশ্ন তুলে তিনি আরও বলেন, ভারতও ‘জাতিসংঘ-মোতায়েন করা পর্যবেক্ষকদের সামনে সত্য গোপনে আন্দোলনকে সীমাবদ্ধ করেছে’।
পররাষ্ট্র দফতরের মতে, ভারত চলতি বছর এখনও পর্যন্ত ১ হাজার ৬৯৭ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে, যার ফলে ১৪ জন মারা গেছেন এবং ১৩৩ জন বেসামরিক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন। সূত্র : ডন অনলাইন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
হিমেল ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
ভারত শুধু আমাদের সাথেই পারে দাপট দেখাইতে। চীন,পাকি, নেপালের কাছে পিটানি খেয়ে তারা বন্ধু রাষ্ট্রের বর্ডারে নিরিহ মানুষ হত্যা করে
Total Reply(0)
মশিউর ইসলাম ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
"সরকারি পর্যায়ে বাংলাদেশের সঙ্গে উষ্ণ সম্পর্ক থাকলেও সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে ভারতের ব্যাপারে সন্দেহ ও অবিশ্বাস রয়েছে। দেশের নাগরিকদের একটি বড় অংশ মনে করে বাংলাদেশ ভারতকে নানা ক্ষেত্রে অনেক ছাড় দিলেও এর বিনিময়ে ভারতের কাছ থেকে তেমন কিছুই পাচ্ছে না" দেশের নাগরিকরা সরকারি পর্যায়ের লোকদেরকে ভারতের উপরিস্তরের দালাল মনে করে।
Total Reply(0)
বাতি ঘর ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
ভারত সম্ভবত পৃথিবীর একমাত্র দেশ যার সাথে প্রতিবেশী কারো সুসম্পর্ক নাই।
Total Reply(0)
তরুন সাকা চৌধুরী ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
যত দাদাগিরি সব বাংলাদেশের সামনে। অহংকারী ভারতীয়দের সমুচিত শিক্ষা দিচ্ছে । আগামী দিনে আরো বেশি করে শিক্ষা দেবে এই চীন এবং নেপাল।
Total Reply(0)
Kalam Sen Barua ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
There will not be any large scale conflict between India and China, and India and Pakistan because all these countries possess nuclear weapon.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন