ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

কুয়েতের শ্রমবাজারে বিরূপ প্রভাবের শঙ্কা

পাপুল কেলেঙ্কারি সংসদ ও দেশের ভাবমর্যাদা নষ্ট করেছে : অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

কুয়েতের জেলে বন্দি লক্ষীপুর-২ আসনের এমপি শহিদ ইসলাম পাপুলের স্ত্রী সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা ইসলাম গত বুধবার দুর্নীতি দমন কমিশনের জিজ্ঞাসাবাদের পর উপস্থিত সাংবাদিকদের দম্ভোক্তি করে বলেছিলেন, ‘আমরা (স্বামী পাপুল ও স্ত্রী সেলিনা) কিছু পেতে নয়, দেশকে কিছু দেয়ার জন্য এমপি হয়েছি। পাপুলের বিরুদ্ধে এই চক্রান্ত সরকার ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধেই ষড়যন্ত্র। পাপুল দেশে বিপুল রেমিট্যান্স এনে দেশের অর্থনীতিতে ভ‚মিকা রাখছে।’ এ নিয়ে সাংবাদিকরা জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়াকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘পাপুল শুধু সংসদের ভাবমর্যাদা নষ্ট করেনি; সে দেশেরও ভাবমর্যাদা নষ্ট করেছে। পাপুল ইজ এ স্মাগলার বাই প্রফেশন, এমপি বাইচান্স’।

এমপি শহিদ পাপুলের স্ত্রীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যের দু’দিন পরই গতকাল কুয়েতের সংবাদমাধ্যম আরব টাইমস খবর দিয়েছে পাপুলের অর্থ ও মানবপাচারের ঘটনায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিতে বিরূপ প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরব টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘পাবলো’ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশের সংসদ সদস্য ও কুয়েতে সে দেশের নাগরিকের সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ক্লিনিং কোম্পানির মালিক অর্থ ও মানবচাপারের অভিযোগে কুয়েতের কারাগারে রয়েছেন। তার এই ঘটনায় কুয়েতে বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিতে বিরূপ প্রভাব পড়বে।
বাংলাদেশ দূতাবাসের বরাত দিয়ে গালফ নিউজের এক খবরে বলা হয়, কুয়েতে বসবাস করেন সাড়ে তিন লাখ বাংলাদেশি। কিন্তু পাপুল কান্ড এবং রাষ্ট্রদূত আবুল কালাম আজাদের কারণে কুয়েতে বাংলাদেশের শ্রমবাজার হুমকির মুখে পড়েছে।

আরব টাইমসের প্রতিবেদন মতে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এই ঘটনার পর স¤প্রতি কুয়েতে জনশক্তি রফতানিতে বিরূপ প্রভাব পড়ার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, কুয়েতে জনশক্তি রফতানিতে বিরূপ প্রভাব যতটা সম্ভব কমিয়ে আনার বিষয়ে দেশটিতে বাংলাদেশ দূতাবাসকে উদ্যোগ নিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

কুয়েতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবুল কালাম স্বীকার করেন, বাংলাদেশের সংসদ সদস্যের অর্থ ও মানবপাচারের ঘটনায় তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানিতে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। তবে কতটা প্রভাব পড়বে সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত চাকরিচ্যুত হয়ে ছয় হাজারের বেশি বাংলাদেশি কুয়েত ছেড়েছেন। করোনার প্রভাবে কুয়েতের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আরও অনেককে দেশ ছাড়তে হতে পারে।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মনে করেন, সব মিলিয়ে পরিস্থিতি যতটা খারাপ বলে ধারণা করা হচ্ছে ততটা খারাপ নয়। তার মতে, কুয়েতে বিদেশি শ্রমিক কমানোর জন্যে সে দেশে রাজনৈতিক চাপ রয়েছে। তবে কুয়েত সরকার এখনো এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। এদিকে গতকাল বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এক ভার্চুয়াল সভায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের হাসিমুখে সেবা দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
পরাজিত মিজান ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:১৬ এএম says : 0
এক দেশে অপরাধের কারনে আটক হওয়ার পরও যদি তার সাংসদ থাকে তাহলে তো বলার কিছু নেই। আর আবার তার স্ত্রীও বলে এম পি। হাসি পায়।
Total Reply(0)
কাজী হাফিজ ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:১৭ এএম says : 0
ওকে দ্রুত বহিষ্কার করে সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হোক।
Total Reply(0)
জাহিদ খান ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:১৭ এএম says : 0
সাহেদ আর পাপুলরাই যথেষ্ট বিশ্বের দরবারে দেশকে অপমানিত করতে।
Total Reply(0)
হিমেল ২৫ জুলাই, ২০২০, ১:১৭ এএম says : 0
খুবই খারাপ খবর।
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন