ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সাহেদকে নিয়ে শাখরা কোমরপুরে র‌্যাব

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

রিমান্ডের চতুর্থ দিনে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে খুলনার র‌্যাব কার্যালয় থেকে তার গ্রেফতার স্থল সাতক্ষীরার দেবহাটার সীমান্তবর্তী শাখরা-কোমরপুর এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে লাবণ্যবতী খালের ওপর বেইলি ব্রিজের ওপর মিনিট দশেক রাখা হয়। এরপর আবারো খুলনায় র‌্যাব ৬-এর সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে তদন্তের স্বার্থে র‌্যাব সাহেদ সম্পর্কে কোনো কথা বলেননি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরা ক্যাম্পের উপ-পরিদর্শক রেজাউল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, তবে অধিকতর তদন্তের স্বার্থে তা প্রকাশ করা যাচ্ছে না।
দেবহাটা উপজেলার কোমরপুর সীমান্তে অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার হওয়া রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত রোববার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন সাতক্ষীরার আমলী আদালত ৩-এর বিচারক (ভার্চুয়াল) রাজীব রায়। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা খুলনা র‌্যাব ৬-এর সাতক্ষীরা ক্যাম্পের উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিমের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। পরের দিন সোমবার তাকে ঢাকা থেকে খুলনা র‌্যাব-৬ এর কার্যালয়ে আনা হয়। এর আগে ১৫ জুলাই বুধবার ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার শাখরা-কোমরপুর সীমান্তের লাবন্যবতী খালের পাশ থেকে সাহেদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ডগুলি উদ্ধার করা হয়। ওই দিন রাতে র‌্যাব ৬-এর সিপিসি ১-এর ডিএডি নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৯৭৮ সালের আর্মস অ্যাক্টের ১৯-এ উপধারা এবং ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ এর বি/এ ধারায় দেবহাটা থানায় মামলা দায়ের করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন