ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

স্বামীর সাথে মিলনে বাধা দিচ্ছেন শশুর, থানায় অভিযোগ নারীর

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০২০, ৬:২১ পিএম

এই আধুনিক যুগেও ভারতের বেশিরভাগ মানুষই যে কুসংস্কারে আচ্ছন্ন, আবারও তার প্রমাণ মিলল। এবার গুজরাতের ভাদোদরা এলাকার গান্ধিনগরের এক নারী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন যে, ‘তাকে স্বামীর সাথে যৌনমিলন করতে নিষেধ করেছেন তার শ্বশুর। কারণ, শশুরের বিশ্বাস তার ভেতরে ‘ভূতের আত্মা’ বসবাস করে। মিলনের সময়ে সেটি তার স্বামীর শরীরে প্রবেশ করতে পারে।

অভিযোগকারী ওই নারীর বাসা গান্ধিনগরের সেক্টর-২২ এলাকায়। তিনি জানান, তিনি এই কুসংস্কারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালে তার শ্বশুর ও স্বামী তাকে মারধর করে। উপায় না পেয়ে তিনি পুলিশের কাছ থেকে সহায়তা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং রোববার ঘরোয়া সহিংসতা আইনে থানায় অভিযোগ (এফআইআর) দায়ের করেন।

এফআইআর অনুসারে, অভিযোগকারী ৪৩ বছর বয়সী ওই নারী বোধোদরের আলকাপুড়ির বাসিন্দা। তার স্বামী গান্ধীনগরের বাসিন্দা। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তারা ভাদোদরার আদালতে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ওই নারী বলেন, ‘আমার শ্বশুর বিশ্বাস করেন যে, আমার ভেতরে আত্মা ভর করেছে এবং আমি যদি আমার স্বামীর সাথে যৌনমিলন করি তবে সেই আত্মা তার শরীরে প্রবেশ করবে।’ তিনি বলেন, ‘আমি এই আচরণের প্রতিবাদ করলে, আমার শ্বশুর এবং স্বামী আমাকে মানসিকভাবে হয়রানি ও লাঞ্ছিত করে।’ তিনি আরও অভিযোগ করেন, তার শ্বাশুরীও তার শ্লীলতাহানির জন্য শ্বশুরকে প্ররোচিত করেন। তিনি বলেন, ‘যখনই আমাকে একা পেতেন, আমার শ্বাশুড়ী আমাকে যৌন হয়রানি করার জন্য শ্বশুরকে বলতেন।’

অভিযোগে ওই নারী জানান, ‘গত ১০ মার্চ তাকে তার স্বামীর বাড়ি ছেড়ে যেতে বাধ্য করা হয়েছিল। এবং তার পর থেকে তিনি এবং তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা একটি আপস করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু, শ্বশুরবাড়ির লোকেরা তাকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যেতে অস্বীকার করেছিল।’ তিনি আরও অভিযোগ করেন, ‘তার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হলে তাকে মারাত্মক পরিণতির হুমকি দিয়েছে।’ তিনি আহত, অপরাধমূলক ভয় দেখানো ও লাঞ্ছিত করার জন্য ঘরোয়া সহিংসতার অভিযোগ দায়ের করেছেন। সূত্র: টিওআই।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন