ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লঘুচাপের বর্ষন আর ফুসে ওঠা সাগরের জোয়ারে দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানিও বাড়ছে

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ৪:৪১ পিএম

শ্রাবনের পূর্ণিমার ভরা কোটালে ভর করে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে উপক’লভাগ সহ সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলে দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া অব্যাহত রয়েছে। সাগর মাঝারী মাত্রায় উত্তাল রয়েছে। বরিশাল সহ দক্ষিণের সব নদী বন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেতের আওতায় রাখা হয়েছে। কুয়াকাটা সৈকতে ব্যপক গর্জনের সাথে ৫Ñ৭ ফুট উচ্চতার ঢেউ আছরে পড়ছে। পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরারত সব ট্রলার ও নৌকাকে উপক’লের কাছাকাছি থেকে সতর্কতার সথে চলাচল করতে বলা হয়েছে। উত্তরের বণ্যার প্রবল শ্রোতের সাথে ফুসে ওঠা সাগরের জোয়ারে দক্ষিণাঞ্চলের সব নদ-নদীর পানিও বাড়ছে। দফায় দফায় বর্ষনে বরিশাল মহানগরীর পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা ভেঙে পড়ছে। নগরীর রাস্তাঘাট বারবারই প্লাবিত হচ্ছে মাঝারী বর্ষনে।
শ্রাবনের দুঃসহ তাপ প্রবাহের পরে ৪ আগষ্ট ভোরে দক্ষিণাঞ্চল যুড়ে ব্যাপক বজ্রপাতের সাথে ঝড়ো হাওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পরার সাথে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাও লন্ডভন্ড হয়ে যায়। ঐদিন সকাল সোয়া ৪টা থেকে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ৬০ মিলিমিটার এবং সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত আরো ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয় বরিশালে। এর পর থেকেই দক্ষিণাঞ্চল যুড়ে ঝড়ো হাওয়া সহ বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। দফায় দফায়
বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার পূর্ববর্তি ২৪ ঘন্টায় পটুয়াখালীতে দেশের সর্বাধীক ৯১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এসময়ে কুয়াকাটা সংলগ্ন কলাপাড়ায় ৫৯ মিলি এবং ভোলাতেও ৪০ মিলি বৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত বরিশালে বৃষ্টি হয়েছে ২৮ মিলিমিটার । আবহাওয়া বিভাগ থেকে আরো দু দিন দক্ষিণাঞ্চল যুড়ে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকার কথা বলা হয়েছে।
আবহাওয়া বিভাগ থেকে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন ভারতের উত্তর উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপক’লে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি বর্তমানে মধ্য প্রদেশ এলাকায় লঘুচাপ হিসেব অবস্থান করছে বলে জানিয়ে মৌশুমী বায়ুর অক্ষ ভারতের বিভিন্ন রাজ্য হয়ে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে বলে জানান হয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটমুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় মাঝারী থেকে প্রবল অবস্থায় থাকায় বরিশাল অঞ্চল সহ বিভিন্নস্থানে মাঝারী ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষনের কথাও বলা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন