ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

জয়নাল হাজারীর বিরুদ্ধে ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল চৌধুরীর থানায় অভিযোগ

ছাগলনাইয়া (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ৮:২৬ পিএম

‘ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল্লা এবং সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র খোকন্না’জানতে চাই আজকে ফেনী শহরের কোথায় তোরা,এখানে যারা আছে তারাই তোদেরকে যেখানে পাইবে টুকরো টুকরো করবে,বঙ্গবন্ধুকে ছাড়াই আমরা দেশ স্বাধীন করেছি।” ফেনী ২ আসনের সাবেক এমপি জয়নাল হাজারীর এমন বক্তব্যকে ঔদ্ধত্যপূর্ণ উল্লেখ করে জয়নাল হাজারীর সন্ত্রাসীরা খুন করতে পারে এমন শঙ্কায় নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ও জয়নাল হাজারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ছাগলনাইয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল । অপরদিকে, একই শঙ্কা ও ব্যবস্থা নিতে সোনাগাজী থানায় জয়নাল হাজারীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম খোকন ।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, গত ১ আগষ্ট বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাদের জড়িয়ে জয়নাল হাজারীর ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য কারা দেখেন ও শুনেন । এ নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্ঠি করেছে । নিজেরা উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়র হওয়ায় উন্নয়ন কর্মকান্ড দেখার জন্য বিভিন্ন স্থানে তাদের যেতে হয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন তারা, জয়নাল হাজারীর নির্দেশে সন্ত্রাসীরা তাদের খুন,জখন করতে পারে এমন আশঙ্কা করে জয়নাল হাজারীর বিরুদ্ধে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেয়ার আবেদন করেছেন তারা ।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ব্যাপারে ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল বলেছেন, জয়নাল হাজারীর অপরাজনীতির শিকার হয়ে অনেক মায়ের বুক খালি হয়েছে। তার অন্যায় অবিচারকে সমর্থন না করায় ছাত্র রাজনীতি করার সময় তিনি আমাকে দু-দফায় মৃত্যুদন্ড দিয়েছিলেন । বর্তমানে মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও ফেনী ২ আসনের এমপি নিজাম উদ্দিন হাজারীর নেতৃত্বে দেশের মধ্যে ফেনী উন্নয়ন ও শান্তির মডেল হিসেবে স্বীকৃত । জয়নাল হাজারী শান্তির জনপদ ফেনীকে অশান্তি করার পায়তারা করছে বলেও তার অভিযোগ ।
প্রসঙ্গত, ফেনী ২ আসনের সাবেক এমপি জয়নাল হাজারী ২০০১ সালে তৎকালীন ফেনী জেলা প্রশাসক এএফএম সোলেমান চৌধুরীর সময়ে প্রশাসনের অভিযানের মুখে তিনি ফেনী ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছিলেন । আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ এ দেশে এসে আদালতে আত্মসমর্পন করেন । পরে জামিন নিয়ে শহরের মাষ্টার পাড়ার শৈলকুঠিরে বসবাস করেছিলেন তিনি । একসময় দলীয় প্রতিপক্ষের তোপের মুখে একই বছর ফেনী ছেড়ে ঢাকায় বসবাস করেন জয়নাল হাজারী । প্রায় এক দশক পর ফেনীতে এসে ফেনী শহরের মাষ্টার পাড়ায় বাড়ির সামনে সমাবেশের বক্তব্য রাখেন তিনি । দুই জনপ্রতিনিধিকে নিয়ে দেয়া তার দেয়া বক্তব্যের ভিড়িও মূহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয় । করোনা দুর্যোগে নিজের অর্থে দুস্থ,অসহায়,কর্মহীনদের মাঝে দিনে-রাতে টানা চার মাস ব্যাপী খাদ্য ও অর্থ সহায়তা প্রদান, নিজে উপস্থিত থেকে তার পৃষ্ঠপোষকতায় গঠিত করোনা রেসপন্স টিমের মাধ্যমে করোনায় মৃত ও উপসর্গ নিয়ে অসংখ্য মৃতের লাশ দাফনসহ মানব সেবামূলক কর্মকান্ড করে সর্বমহলে মানবতার ফেরিওয়াল হিসেবে পরিচিত ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরীকে জড়িয়ে জয়নাল হাজারীর বক্তব্যের পর থেকে ফেসবুক ও ঘরোয়া সমাবেশে নেতাকর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে ।
ছাগলনাইয়া থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন আহম্মদ অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন