ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পালানোর পথ খুঁজছিলেন প্রদীপ

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:০২ এএম

চট্টগ্রাম থেকে পালানোর পথ খুঁজছিলেন টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ। দ্ইু দিন চট্টগ্রামে অবস্থান করে এ বিষয়ে অনেকের সাথে পরামর্শ করেন তিনি। অনেকের সাহায্যও চান। তবে সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় আদালতে আত্মসমর্পণ করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

গতকাল দুপুরে নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনে বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল থেকে তাকে পুলিশ হেফাজতে নেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি টিম। সেখান থেকে তাকে কড়া নিরাপত্তায় কক্সবাজার পাঠানো হয়। তবে দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টিকারী একটি হত্যাকাÐের গ্রেফতারি পরোয়ানাপ্রাপ্ত আসামি এই পুলিশ কর্মকর্তার কর্মস্থল থেকে চট্টগ্রামের বাড়িতে আসা নিয়েও নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আবার তাকে গ্রেফতার না করে হেফাজতে নেয়া নিয়েও চলছে নানামুখী আলোচনা। তবে সিএমপির কমিশনার মোহাম্মদ মাহবুব রহমান বলেন, ওসি প্রদীপ কুমার দামপাড়ায় পুলিশ লাইনে হাসাপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন। সেখান থেকে তাকে হেফাজতে নিয়েছি। তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করবেন। তবে তাকে সিএমপির হাতে আটক বা গ্রেফতার বলা যাবে না। গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকার পরও তাকে কেন গ্রেফতার করা হলো না এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ কমিশনার বলেন, তিনি যাতে পালাতে না পারেন সে জন্য তাকে পুলিশ পাহারায় কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

টেকনাফ মেরিন ড্রাইভে পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামি প্রদীপ মঙ্গলবার অসুস্থতার অজুহাতে টেকনাফ থানা থেকে রেব হয়ে যান। পরদিন মেজর সিনহার বড় বোন কক্সবাজার আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তাকে দুই নম্বর আসামি করা হয়। আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোনা জারি করেন।

ওই রাতেই তাকে থানা থেকে ক্লোজ করা হয়। জানা গেছে কক্সবাজার থেকে এসে প্রদীপ সরাসরি পুলিশ হাসপাতালে যান। সেখান থেকে তিনি নগরীর লালখান বাজারের বাসাসহ বিভিন্ন জনের বাসায় যান। অনেকের সাথে কথা বলেন, পরামর্শ চান। তবে সবাই তাকে আশ্রয় দিতে অপরগতা প্রকাশ করেন। এতে অনেকটা হতাশ হয়েই আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ‘ক্রসফায়ারের’ জন্য আলোচিত এবং দাপুটে এই পুলিশ কর্মকর্তা।

জানা যায়, বিএনপি সরকারের সময়ে এক মন্ত্রীর মাধ্যমে পুলিশ বাহিনীতে এসআই পদে যোগ দেন প্রদীপ কুমার দাশ। সিএমপির ওসি থাকাকালে তার বিরুদ্ধে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠে। নানা অনিয়ম দুর্নীতি ও দখলবাজির ঘটনায় তাকে সাময়িক বরখাস্তও করা হয়। এরপর সিএমপি থেকে তিনি কক্সবাজার বদলী হয়ে যান। তার ভাই সদীপ কুমার দাশ সিএমপির ডবলমুরিং থানার ওসি হিসাবে কর্মরত।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (15)
Akas Khan ৭ আগস্ট, ২০২০, ১:৩৪ এএম says : 0
আর কোন ক্রসফায়ার চাই না, বিচার চাই.. নাটক বন্ধ করো,
Total Reply(0)
Oyes Rahman ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৩৬ এএম says : 0
বিতর্কিত ওসি প্রদীপ সাহার মৃত্যুদণ্ড চাই
Total Reply(1)
৭ আগস্ট, ২০২০, ১০:০০ এএম says : 0
Minhaj Mukul ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৩৭ এএম says : 1
তাদের চাকরী জীবনের অর্জিত সব অবৈধ আয়ের ও কর্ম কাণ্ডের একটি সঠিক ফিরিস্তি জনগন দেখতে চায় । ডি জি এফ আই ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থা কে এ কাজে লাগানো হউক । কেননা জাতীর কাছ থেকে নেয়া খাজনায় বেতন দিয়ে রাষ্ট্র কাদেরকে পোষতেছে - তা জানার অধিকার জনগনের আছে এবং জনগন তা চায় ।।
Total Reply(0)
ইকবাল শেখ ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৪৭ এএম says : 0
তার সম্পদ কি পরিমাণ এটাও বের হওয়া উচিত এবং তাকে ক্রস ফায়ার দেয়া হোক
Total Reply(0)
Shipen Bormon ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৪০ এএম says : 0
আসল ঘটনা কি,সত্যি কি ঘটছিল সেদিন,কারা এঘটনা ইন্ধন দাতা এসব উম্মোচন করতে,হব।তবেই সঠিক বিচার নিশ্চিত হবে।
Total Reply(0)
Kamal ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৪১ এএম says : 0
ওসি প্রদীপ কে জনগণের সামনে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিয়ে মারা হোক
Total Reply(0)
Mahamudul Hasan ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৪২ এএম says : 0
এই বিচারের মাঝেই নির্ভর করছে" পুলিশের ভাবমূর্তির সাথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আত্মমর্যাদা""" সুষ্ঠু নিরপেক্ষ বিচার নাহলে পুলিশের যেমন ভাবমূর্তি হুমকির সম্মুখভাগ হবে" তেমনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আত্মমর্যাদা রক্ষার প্রশ্নটিও গুরুত্ব হারাবে""" সাধারণ গণমানুষের চাওয়া" বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সমমর্যাদা যেন অক্ষুণ্ন থাকে প্রকৃত অপরাধীদের বিচার নিশ্চিতের মাধ্যমে"
Total Reply(0)
Md M Monir ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৪৮ এএম says : 0
সঠিক বিচার হোক এটাই চাই।। খোঁজ নিয়ে দেখা যাবে হাজার হাজার কোটি টাকা ভারতে পাচার করছে।।
Total Reply(0)
সুহানা ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৫৩ এএম says : 0
সুযোগ পেলে সে সত্যি পালিয়ে যেতো
Total Reply(0)
রোদেলা ৭ আগস্ট, ২০২০, ২:৫৪ এএম says : 0
তাকে হ্রেফতার করায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
habib ৭ আগস্ট, ২০২০, ১০:৫১ এএম says : 0
it is very unfortunate for bangladesh that security force like police and rab were continuously torture and killing innocent peoples in the country.
Total Reply(0)
aktharuzzaman ৭ আগস্ট, ২০২০, ৬:৫১ এএম says : 0
দয়া করে ক্রসফায়ার নাটক বন্ধ করেন আর কোন নিরহ মানুষের কাছ থেকে এটা পাওয়া গেছে ওটা পাওয়া গেছে পিস্তল পাওয়া গেছে বই পাওয়া গেছে এসব মিথ্যা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেওয়া বন্ধ করুন তবে মিডিয়া এই ব্যাপারে অনেক ভুমিকা পালন করতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় পুলিশ কর্মকর্তা গুলো সাংবাদিক সম্মেলন করে যেসব কথা বলে মিডিয়া সেগুলোর সত্যতা যাচাই না করে সরাসরি প্রচার করেন।
Total Reply(0)
Nannu chowhan ৭ আগস্ট, ২০২০, ৭:২২ এএম says : 0
Eai Joghonno noro pishach OC shorbbomoy kormo jiboner kahini ja porlam janlam tate obak o dhikkar janai je kon deshe amader jonmo,keno bar bar tar biridhe eto oporadh prokash hoyese ebonng koyekta mamla o koyekbar chakuri theke suspend howar poro kivabe take abar podobi dia eairokom eakta shusringkhol bahinite firaia ana hoy ?tarpor abar tar thanar odhiner jongonke jimmi kore abar shei opokormo tar shathe tar arek vaio jorito eai shob opokormo khun hotta kore tara koti koti takar malik hoye par paia jai ,eder jonnoi Bangladesher muktikami manush shadhinotar jonno hanadar bahinir hate pran diasilo? Eai prodipder moto lokder kara polish bahinite lalon palon korse kar khutir jore tara eaker por arek ,eai shob joghonno borborota chalia jaitese ,pulishbahinite oai shob god father der ayner aowtai ene polish bahinike eakta shusringkhol sringkholaboddo sheba dan kari protishtan hishabe goria yolar ahabban janai ......
Total Reply(0)
Md. Enamul Haque ৭ আগস্ট, ২০২০, ৯:২৭ এএম says : 0
aki poribare dui bhai osi
Total Reply(0)
salman ৮ আগস্ট, ২০২০, ১:০০ পিএম says : 0
.......... k CROSS FIRE & Oor somosto oboidho OMPOD Rastreo Kosha gat a Joma kora hok. Ai Pasondor vai SODIP Kumar k o Chakori chuto koray tar Karjo kolap o TODONTO kora hok. R Khuni, PIG Leyakoitta k o CROSS Fire chai, na hoi oder ARMYR kaday Hand Over kora hok.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন