ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লেবাননের বিস্ফোরণের ঘটনায় আটক ১৬

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ আগস্ট, ২০২০, ১২:০৩ পিএম

লেবাননের রাজধানী বৈরুত বন্দরে সাম্প্রতিক ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৬ জনকে আটক করেছে লেবানন কর্তৃপক্ষ। আগামী চারদিনের মধ্যে বিস্ফোরণের কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আহতদের চিকিৎসায় খোলা হয়েছে অস্থায়ী হাসপাতাল। সরকারি গাফিলতেই ভয়াবহ এ বিস্ফোরণ অভিযোগ করে ক্ষোভে ফুঁসছে লেবাননের সাধারণ মানুষ।

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ক্ষতচিহ্ন এখনো দগদগে। নিখোঁজ অনেকে। ধ্বংসস্তূপ খুঁড়ে চলছে অনুসন্ধান। পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখতে বৃহস্পতিবার লেবানন সফরে যান ফরাসির প্রেসিডেন্ট ইমানুলে ম্যাক্রোঁ। বিস্ফোরণের পর বিদেশি নেতাদের মধ্যে ম্যাক্রোঁই প্রথম বৈরুত সফরে গেলেন।
বৈরুত পৌঁছেই বিস্ফোরণস্থলসহ ধ্বংস হয়ে যাওয়া রাস্তা-ঘাট ঘুরে দেখেন তিনি। এসময় নিজ দেশের নেতৃত্বকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে এই শোষণ অবসানের দাবিতে স্লোগান দেন লেবানের সাধারণ মানুষ। পরে এক সংবাদ সম্মেলনে লেবাননকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন ম্যাক্রোঁ।
ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, আমি মনে করি লেবানন একা নয়। তবে রাজনৈতিক অস্থিরতায় আক্রান্ত লেবানন গভীর অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে দেশটিতে সংস্কার আনা না হলে এই সংকট আরও তীব্র হতে পারে।

আহতদের চিকিৎসায় খোলা হয়েছে অস্থায়ী হাসপাতাল। বিভিন্ন দেশ থেকে আসতে শুরু করেছে সহায়তা। এরই মধ্যে তুরস্ক, রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ জরুরি ওষুধ ও খাবার পাঠিয়েছে। এছাড়া, উদ্ধার কাজে দমকলবাহিনীর টিম পাঠিয়েছে ইতালি।
আদালতের বিচারক ফাদি আকিকি বলেছেন, কমপক্ষে ১৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। অধিকাংশই বন্দর ও কাস্টসসের কর্মকর্তা। ১৬ জনকে আটক দেখানো হয়েছে। বাকিদের বিরুদ্ধে তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

মঙ্গলবার রাজধানী বৈরুতের বন্দর এলাকায় ছয় বছর ধরে একটি ওয়্যারহাউজে সংরক্ষিত ২ হাজার ৭৫০ মেট্রিক টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। এই বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত ১৫৭ জন মারা গেছে। আহত হয়েছে ৫ হাজারের বেশি।

বিস্ফোরণের তীব্রতায় গোটা শহরই ভূমিকম্পের মত কেঁপে ওঠে। ২৪০ কিলোমিটার দূর থেকেও টের পাওয়া গিয়েছিল বিস্ফোরণের তীব্রতা। শক ওয়েবে ভেঙে পড়েছিল ৫ কিলোমিটারের মধ্যকার দালানগুলোর জানালার কাচ। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বৈরুতের ৪০ শতাংশ ঘরবাড়ি। ৩ লাখ মানুষ হয়েছে গৃহহারা।
এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বুধবার গৃহবন্দি (হাউজ অ্যারেস্ট) দেখানো হয়। তাদের মধ্য থেকে ১৬ জনকে বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আটক করা হয়। বাকিদের বিরুদ্ধেও তদন্ত চলছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার লেবাননের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৭ মিনিটে ঘটা বিস্ফোরণের তীব্রতায় গোটা শহরই কেঁপে ওঠেছিল। ২৪০ কিলোমিটার দূর থেকেও টের পাওয়া গিয়েছিল বিস্ফোরণের তীব্রতা। বিস্ফোরণে বৈরুত শহরজুড়ে আতঙ্ক তৈরি হয়। শহরের বাসিন্দারা বলেছেন, বিস্ফোরণে তাদের শহরটি ভূমিকম্পের মতো কেপে ওঠে।
ভয়াবহ বিস্ফোরণের কারণ অনুসন্ধানে লেবাননের তদন্ত এখনও চলতে থাকলেও সম্ভাব্য একটি কারণের প্রতি ইঙ্গিত করেছেন দেশটির কর্মকর্তারা। সেটি হচ্ছে কৃষিকাজে সার তৈরিতে ব্যবহৃত বিপজ্জনক অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট এর বিশাল একটি চালান।
মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন বলছে, এমভি রোসেস নামের রুশ মালিকানাধীন একটি জাহাজ ২০১৩ সালে বৈরুত বন্দরে পৌঁছালেও আর্থিক জটিলতায় সেখানে আটকা পড়ে। বারবার সতর্ক করা হলেও নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা ছাড়াই বিস্ফোরক বোঝাই ওই চালানটি কয়েক বছর ধরে বৈরুত বন্দরে আটকে ছিল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Kader sheikh ৭ আগস্ট, ২০২০, ১২:১৪ পিএম says : 0
দীর্ঘদিন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট এর মত অত্যন্ত ভয়াবহ বিস্ফোরক অসতর্ক অবস্থায় ফেলে রাখার ফলে এই ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটেছে বাংলাদেশেও পুরাতন ঢাকায় জনবহুল এলাকায় এরকম কেমিক্যালের গুদাম রয়েছে সরকার বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল গুদাম সরানো যায়নি ফলে এ ধরনের ঝুঁকির মুখে রয়েছে বাংলাদেশ ও।
Total Reply(0)
Jaker ali ৭ আগস্ট, ২০২০, ১২:১৮ পিএম says : 0
এই ঘটনার পিছনে যারাই আছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন