ঢাকা সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১০ সফর ১৪৪২ হিজরী

সম্পাদকীয়

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০২০, ১২:১২ এএম

ওয়েব সিরিজের নামে অশ্লীলতা বন্ধ করতে হবে 

গল্প নেই। সংলাপের সঙ্গে অভিনয়ের মিল নেই। অশ্লীল অঙ্গভঙ্গী, কারণে অকারণে বিছানার যৌনতার দৃশ্য, যৌন সুরসুড়ি এবং অকথ্য গালিগালজ। এই হলো তথাকথিত ওয়েব সিরিজের উপজীব্য। পুরোটাই অশ্লীলতার পরিপূর্ণ। কোনো বিচারেই শিল্প নয়। বিনোদন নেই। অথচ অহরহ এইগুলো তৈরি হচ্ছে। যুব সমাজ ধ্বংসের পথে। যারা ভালো নাটক বানায়। তাদের বড় বিপদ। নাটক চ্যানেলে প্রকাশের আগে টিভি কতৃপক্ষ দেখেন। প্রচারযোগ্য কিনা। কিন্তু ওয়েব সিরিজ দেখার কেউ নেই। যত নোংরা হোক। বানিয়ে নেটে ছেড়ে দিলেই হয়। অশ্লীল অভিনয় যারা করেন তারাও বলেন, চরিত্রের প্রয়োজনে করেছি। এদেরকে কে বুঝাবে? অশ্লীলতা করে নাম করা যায় না। দর্শকদের মন জয় করা যায় না। টিভি নাটকের দুরবস্থা চরমে। অথচ এই নোংরা ওয়েব সিরিজের রমরমা অবস্থা। পর্ন ছবির সঙ্গে এর পার্থক্য খুব কমই। মন চাইলো, যা খুশি বানিয়ে নেটে ছাড়া যায় না। দেশীয় কৃষ্টি, কালচার ধ্বংস হবে এমন কিছু করলে তার বিচার হতে হবে। ইন্টারনেটে নিউজ পোর্টালে অসত্য সংবাদ প্রকাশ করলে শাস্তি হচ্ছে। নিউজ পোর্টাল বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। অথচ যুব সমাজকে ধ্বংসকারী ওয়েব সিরিজ বন্ধ হচ্ছে না। একটা ওয়েব সিরিজও দেখার মতো নয়। একা দেখলেও ঘেন্না লাগে। পরিবার নিয়ে দেখা তো দূরের কথা। ভালো যদি কিছু হয়, যুব সমাজের ক্ষতি না হয়, দেশের ক্ষতি না হয়, সে রকম কিছু ওয়েবে হলে দোষ নেই। তবে এখন ওয়েব সিরিজের নামে যা হচ্ছে এক কথায় তা ঘৃণ্য। বিবেকবোধ সম্পন্ন কোনো মানুষ এসব দেখতে পারেন না। তাই দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া সময়ের দাবি। ফেসবুকে একজন অভিনেত্রী অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করলে তাকে ডেকে সতর্ক করা হয়। তাহলে এই ওয়েব সিরিজ যারা করছেন তাদের কেন বিচারের আওতায় আনা হবে না? আশা করি, সরকারের সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ দ্রুত ব্যবস্থা নেবে।
মুহাম্মদ শফিকুর রহমান
মিরপুর-১২, ঢাকা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন