ঢাকা সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ১০ সফর ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

সালাউদ্দিনের কাছে বাদল রায়ের আবেদন

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২০, ৭:৩৭ পিএম | আপডেট : ৬:৫৯ পিএম, ৯ আগস্ট, ২০২০

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে স্থগিত থাকা বহুল আলোচিত বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) নির্বাচন আয়োজন ও ঘরোয়া আসর শুরু করার সিদ্ধান্ত নিতে ১১ আগস্ট নির্বাহী কমিটির সভা ডেকেছে দেশের ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা। কিন্তু এ সভা নিয়ে দ্বিমত তৈরী হয়েছে। সভার পক্ষে নন বাফুফের অন্যতম সহ-সভাপতি বাদল রায়। তিনি এই সভার তারিখ পরিবর্তন করতে শনিবার বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন। আবেদনে বাদল রায় বলেন,‘১১ আগস্ট কার্যনির্বাহী কমিটির সভার আলোচ্যসূচি দেখে আমার মনে হয়েছে, এটা বাফুফে এজিএমের পূর্ব প্রস্ততি। কিন্তু ফিফার নোটিশ অনুযায়ী করোনাকালে কোনোভাবেই এজিএম করার সুযোগ নেই। তাই উক্ত আলোচ্যসূচি নিয়ে ডাকা সভাটি করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে করা উত্তম বলে মনে করি আমি।’ আবেদনে তিনি আরো বলেন,‘কোভিড-১৯ এর মধ্যে তাড়াহুড়ো করে বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা করার কোনো কারণ আমি খুঁজে পাই না। তাছাড়া অডিট রিপোর্ট এখনো ফাইন্যান্স কমিটিতে পর্যালোচনা হয়নি। তাই এ বিষয়টি ১১ আগস্টের সভায় উপস্থাপনের কোনো সুযোগ নেই।’ সভা স্থগিত করে ফিফার সঙ্গে আলোচনা পর পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ যথার্থ হবে বলেই মনে করছেন বাদল রায়।

পূর্ব নির্ধারিত দিনক্ষণ অনুযায়ী বাফুফের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল গত ২০ এপ্রিল। কিন্তু প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এই নির্বাচন স্থগিত করতে বাধ্য হয় বাফুফে। গত ২৭ মার্চ বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির এক ভার্চুয়াল সভায় নির্বাচন স্থগিতের ব্যাপারে মত দেন সদস্যরা। ফলে ওইদিনই বাফুফে জানায়, ‘২০ এপ্রিল হতে যাওয়া নির্বাচন স্থগিত করে স্বাভাবিক সময়ের জন্য অপেক্ষা করা হবে। বিষয়টি এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) ও বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফাকে জানানো হবে।’ পরে এএফসি ও ফিফা’কে নিজেদের সিদ্ধান্তের কথা জানায় বাফুফে। ওই সিদ্ধান্তের অনুমোদন দিয়ে গত ২ এপ্রিল বাফুফে’কে চিঠির মাধ্যমে একটি নির্দেশনা পাঠায় ফিফা। নির্দেশনায় বলা হয়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই সাধারণ সভা ও নির্বাচন আয়োজন করা যাবে। তবে এসময় পর্যন্ত বাফুফের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি দায়িত্ব পালন করবে। ফিফার এমন নির্দেশনা পেয়ে বাফুফের মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি (৩০ এপ্রিল মেয়াদ শেষ হয়েছে) এখন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছে। এই কমিটির অধীনেই বাফুফের এজিএম ও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে তা অবশ্যই করোনাকাল কেটে যাওয়ার পর।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন