ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

প্রথমবারের মতো লকডাউন ঘোষণা করলো ভুটান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ আগস্ট, ২০২০, ১০:৫৮ এএম

বিশ্বের মধ্যে যে অল্প কয়েকটি দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নেই বললেই চলে, সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত দক্ষিণ এশিয়ার ছোট দেশ ভুটান। সেখানে এখন পর্যন্ত মাত্র ১১৩ জনের শরীরে মরণব্যাধী এই ভাইরাসটি শনাক্ত করা হয়েছে। যার মধ্যে আবার ৯৭ জনই সুস্থ হয়ে গেছেন। মারা যাননি কেউই। অর্থাৎ মৃত্যুহার শূন্য।

বিদেশফেরত এক নাগরিকের দেহে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উপস্থিতি শনাক্ত হওয়ার পর দেশজুড়ে প্রথমবারের মতো লকডাউন দিয়েছে ভুটান।
সম্প্রতি কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পাওয়ার পর ওই ব্যক্তি রাজধানী থিম্পুর অনেক বাসিন্দার সংস্পর্শে আসেন এবং গত সোমবার তিনি করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। খবর রয়টার্সের

গত মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের এক পর্যটকের দেহে করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ার পর ট্যুরিজমে নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পাশাপাশি ভুটানের কর্তৃপক্ষ বিদেশফেরত প্রত্যেককে তিন সপ্তাহের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রাখার নির্দেশনা দিয়েছিল।

করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ পরীক্ষায় ফল 'নেগেটিভ' আসার পর কুয়েত থেকে আসা ২৭ বছর বয়সী এক নারী সম্প্রতি কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন। সোমবার একটি ক্লিনিকে করা শনাক্তকরণ পরীক্ষায় তার দেহে এ ভাইরাসের উপস্থিতি মেলে। কর্তৃপক্ষ এর পরপরই দেশজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা দেয়।
ভুটানে সংক্রমণের চেইন ভেঙে দিতে, রোগী শনাক্ত ও তাদের আইসোলেশনে রাখতে এ লকডাউন দেওয়া হয়েছে। উপসর্গবিহীন রোগী, সংক্রমণের বিস্তৃতি ও রোগটি থেকে নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের সুরক্ষিত রাখতে সবাইকে ঘরে থাকতে বলা হচ্ছে।

ঘোষিত লকডাউনে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস ও বাণিজ্যিক স্থাপনা বন্ধ থাকবে। স্থগিত করা হয়েছে সব ধরনের পরীক্ষাও। আবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে থাকা শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ নিজ ক্যাম্পাসের মধ্যেই থাকতে বলা হয়েছে।

করোনার বিস্তার রোধে দেশটিতে ঢোকার সব প্রবেশপথে যাচাই-বাছাই, পর্যবেক্ষণ ও শনাক্তকরণ পরীক্ষার ওপর জোর দিতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সীমান্ত সিল করে দেওয়া হয়েছে, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে দেশটির একমাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটিও। বাণিজ্যিক যাতায়াত বন্ধ থাকলেও বিভিন্ন দেশে আটকেপড়া ভুটানের নাগরিকদের নিয়ে আসতে বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রায় সাড়ে সাত লাখ জনসংখ্যার দেশটিতে জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচল সীমিত করা হয়েছে। সবাইকে ঘরে থাকতে এবং অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের না হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন