বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাংলাদেশের অর্থনীতির অগ্রগতি চমৎকার ও ঈর্ষণীয়

ব্রিটেন ‘বিজনেস নেশন’-ব্যবসা চায় তবে নিরাপত্তা নিয়ে সতর্ক ব্রিটিশ হাইকমিশনার

প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কূটনৈতিক সংবাদদাতা : ঢাকায় নিযুক্ত বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেক বলেছেন, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য অব্যাহত রাখতে চায়। তারা মূলত ‘বিজনেস নেশন’। বাংলাদেশের সঙ্গে তারা ‘ব্যালান্সড ট্রেড’ বা সুষম বাণিজ্যিক সম্পর্ক গড়তে আগ্রহী। তবে, নিরাপত্তা নিয়ে ‘কনসার্নড’। নিরাপত্তার বিষয়ে তারা বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করতে চায় বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। গতকাল বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তিনি এসব কথা বলেন। পরে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেননের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন ব্লেক।
বৃটিশ হাইকমিশনার বলেন, বৃটেন তার নাগরিকদের প্রতি জারি করা ভ্রমণ সতর্কতা অব্যাহত রেখেছে। তবে, তারা ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। বৃহত্তর স্বার্থে সাবধানতার অংশ হিসাবে তারা এ সতর্কতা জারি করেছে। বাংলাদেশে সন্ত্রাস মোকাবিলা কার্যক্রমে বৃটিশ সহায়তারও ইচ্ছা ব্যক্ত করেন তিনি। বিমানবন্দরের নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি বলেন, সরকার ইতিমধ্যে অনেক উদ্যোগ নিয়েছে। তবে আরও কাজ বাকী রয়েছে। সরকার তাদের উদ্বেগকে আমলে নিয়েছে এতে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। বৃটিশ হাইকমিশনার আরও বলেন, ব্রেক্সিট-এর পর স্পষ্ট হয়েছে যে সারা পৃথিবীতে বৃটিশরা অনেক সক্রিয়। তিনি বলেন, আমরা ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছেড়ে দিচ্ছি। ইউরোপ নয়।
ব্লেক বলেন, গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনা খুবই দুঃখজনক। তবে এ সমস্যা শুধু বাংলাদেশের একার নয়, এটা একটা বৈশ্বিক সমস্যা। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির অগ্রগতি চমৎকার ও ঈর্ষণীয়। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা এই অগ্রগতির সঙ্গে যুক্ত হতে চাই। বাংলাদেশে নতুন নতুন খাতে বিনিয়োগ করতে চাই। তাই ব্রিটিশ ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও ব্যবসা বাড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি।
এদিকে মন্ত্রী তোফায়েল আহমদ বলেন, বৃটেন পদ্মা সেতু থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেল লিংক তৈরিতে বিনিয়োগ করতে চায়। তারা পায়রা সমুদ্র বন্দরেও বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। এছাড়া বৈঠকে নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তাদের দেশের নাগরিকদেরকে পূর্ণ নিরাপত্তা দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে।
মন্ত্রী দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক বিষয়ে বলেন, ট্রাইব্যুনালের বিচার থেকে প্রমাণিত হয়েছে যে জামায়াত একটা সন্ত্রাসী দল। এখন জামায়াত নিয়ে বিএনপির মধ্যে যে ক্রিয়া প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে তার সূত্র ধরে মন্ত্রী বলেন, জামায়াতকে সঙ্গে রেখে জাতীয় ঐক্যের কথা বলা ‘প্রতারণা, তামাশা নয় কি?’। মন্ত্রী বলেন, বিএনপি কল্যাণপুরে নিহত জঙ্গিদের বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে। অথচ তাদের মা-বাবাও এসে দাবি করেনি যে তারা জঙ্গি নয়।
বিদেশি হত্যার বিষয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, উদ্বেগ সৃষ্টি করার জন্যই এ হত্যাকা- ঘটানো হয়েছে। ফ্রান্স, জার্মান, যুক্তরাষ্ট্রেও এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। এগুলো উদ্বেগের বিষয়। সে কারণে বিদেশিরা ধরেই নিয়েছে এটা বৈশ্বিক ইস্যু। তবে বাংলাদেশের ঘরে ঘরে যেভাবে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্য হয়েছে পৃথিবীর কোথাও এমন হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন