ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৭ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জনগণকে শান্ত ও সতর্ক থাকার আহ্বান মেয়র সাদিক খানের

প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : লন্ডনের কেন্দ্রস্থলে ছুরিকাঘাতের ঘটনার পর লন্ডনের জনগণকে শান্ত ও সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন শহরটির মেয়র সাদিক খান। ছুরিকাঘাতের ঘটনার পর দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি এ আহ্বান জানান। শহরজুড়ে নেয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সাদিক খান বলেন, আমি লন্ডনের মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এবং এসিসট্যান্ট কমিশনারের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা আমাকে আশ্বস্ত করেছেন, আমাদের পুলিশ কর্মকর্তারা কি ঘটেছে তা অনুসন্ধানে এবং আমাদের নিরাপদ রাখতে কঠোর পরিশ্রম করছেন। ঘটনাস্থল থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
লন্ডন মেয়র সাদিক খানের সাথে কথা বলে পুলিশ পুরো ঘটনা সম্পর্কে আরো খোঁজখবর এবং তার কারণ উদ্ধারের চেষ্টা করছে। এদিকে সন্ত্রাসী হামলার পরপর গোটা শহরজুড়ে নেয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে ভারী অস্ত্র হাতে পুলিশি পাহারা বসানো হয়েছে। প্রধান সড়কগুলো এবং ট্রেন-বাস স্টেশনগুলোতে একটু পরপরই পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে। বিনোদন কেন্দ্রগুলোতেও চলছে টহল। এমনকি রাস্তায় পুলিশের সাঁজোয়া যান, মোটরসাইকেল, নদীতে অস্ত্রবাহী নৌযান নিয়ে টহল চলছে। পুলিশের সহকারী কমিশনার মার্ক রাওলি জানিয়েছেন, শহরের আরও পুলিশ নামানো হবে। ওই হামলার প্রেক্ষিতেই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এদের মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান তিনি। স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের সদস্যরা অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও নিরাপত্তাবেষ্টিত নতুন একটি এলিট ইউনিট মোতায়েন করেছেন। সাদিক খান লন্ডনবাসীদের শান্ত ও সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে সন্দেহজনক কোনও কিছু চোখে পড়লে অনুগ্রহপূর্বক পুলিশকে অবহিত করার পরামর্শ দেন। আমাদের পুলিশ এবং নিরাপত্তা সংস্থার চোখ ও কান খোলা রেখে লন্ডনকে রক্ষা করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে বলে উল্লেখ করেন। পুলিশকে সমর্থন জানিয়ে সাদিক বলেন, আমাদের পুলিশ কর্মকর্তারা আমাদের স্বার্থে এক কঠিন কাজ করে যাচ্ছেন। আর তাতে আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। উল্লেখ্য, গত বুধবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে দশটার দিকে রাসেল স্কয়ারে হামলার খবর পেয়ে পুলিশ পাঁচ মিনিটের মধ্যেই সেখানে পৌঁছে যায়। পুলিশ রাত ১০টা ৩৯ মিনিটের দিকে ইলেকট্রিক স্টান গান ব্যবহার করে ইলেকট্রিক শক দিয়ে ১৯ বছর বয়সী ওই সন্দেহভাজনকে অচেতন করে গ্রেফতার করে। সন্দেহভাজন তরুণকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ঘটনাস্থলে ছুরি হাতে তাকে লোকজনের ওপর হামলা করতে দেখেছেন বলে দাবি প্রত্যক্ষদর্শীদের। ওই হামলায় নিহত হয়েছেন ষাটোর্ধ্ব এক নারী। এপি, দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন