ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৭ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধা নিবেদন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২০, ১২:০০ এএম

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন করেছে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ’র নেতৃত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন ট্রেজারার এসএম এহসান কবীরসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। দিবসটি উপলক্ষে শনিবার সকাল সাড়ে ৬টায় বিশ^বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত উত্তোলন করা হয়। পরে ১৫ আগস্টের সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে কুরআন খতমের আয়োজন করা হয়।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সকাল ৯টায় এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ বলেন, জাতির পিতার নির্দেশনায় ও নেতৃত্বে এদেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন এদেশকে স্বাধীন করেছে। যখন স্বাধীন হলো বাংলার মানচিত্র তখন জাতির পিতা দেখতে পেলেন একটি হতদরিদ্র দেশ, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ। তিনি এই দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য কাজ শুরু করেন। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস যুদ্ধাপরাধী স্বাধীনতা বিরোধী একটি চক্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের নির্মম ভাবে হত্যা করে এবং তিনি শাহাদাত বরণ করেন। যে অল্প সময় তিনি কাজ করেছেন এর মধ্যে শিক্ষা,অর্থনীতি এবং শিল্প কারখানা সর্বধিকে মনোযোগ দিয়ে তিনি অনেক কাজ করেছেন। এই যে আজকের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো রয়েছে এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পরিচালনার জন্য কোন সুনির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠান ছিল না। যার জন্য তিনি বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন প্রতিষ্ঠা করেন। শুধু তাই নয় ইসলামের জন্য এবং ধর্মীয় শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিকাশের জন্যেও তিনি কাজ করেছেন। এই লক্ষে তিনি বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন।

প্রফেসর আহসান উল্লাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কাজকে আরো বেগবান করেন একই সাথে তিনি মাদরাসা শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার পথ সুগম করার জন্য ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেকে দেশের জন্য উৎসর্গ করেছেন। আমাদেরকেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতে হবে। জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবনাদর্শ অনুসরন করে দেশের জন্য নিজেদেরকেও উৎসর্গ করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এএস মাহমুদের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল শোক সভায় আরও অংশ নেন ট্রেজারার এসএম এহসান কবীর, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর সিরাজ উদ্দিন আহ্মাদ, পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) প্রফেসর ড. মো. গোলাম আজম আযাদ, উপ-রেজিস্ট্রার ড. মো. আবু হানিফা, সহকারী অধ্যাপক ড. জাভেদ আহমাদ, সহকারী রেজিস্ট্রার মোঃ জাকির হোসেন, ফাহাদ আহমদ মোমতাজী, সহকারী পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মো. জিয়াউর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন