শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮, ২০ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের সফরের মূল বিষয় জাতি জানতে চায় -খেলাফত মজলিস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ আগস্ট, ২০২০, ৭:৩৩ পিএম

খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধণ শ্রিংলার আকর্ষিক বাংলাদেশ সফর ঘিরে জনমনে যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে সরকারকে তা দূর করতে হবে। ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের সাথে কি আলোচনা হয়েছে দেশবাসীকে তা জানাতে হবে। যারা প্রয়োজনের সময় পিঁয়াজ দেয় না তার কিভাবে বাংলাদেশকে করোনা ভ্যাকসিন দেবে? বলা হয়েছে সফল আলোচনা হয়েছে কিন্তু তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার বিষয়ে কি সমাধান হয়েছে, সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশি নাগরিকদের হত্যার ঘটনা বন্ধের বিষয়ে কি সমাধান হয়েছে? ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের সফরের মূল বিষয় কি ছিলো জাতি তা জানতে চায়। খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের এক ভার্চুয়াল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।
গতকাল রাতে খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এ ভার্চুয়াল বৈঠকে সংযুক্ত ছিলেন সংগঠনের নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, অধ্যাপক আবদুল্লাহ ফরিদ, যুগ্মমহাসচিব- এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মাওলানা তোফাজ্জল হোসাইন মিয়াজী, অধ্যাপক আবদুল হালিম, অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল, মুক্তিযোদ্ধা ফয়জুল ইসলাম, বুরহান উদ্দিন সিদ্দকিী, ডাঃ রিফাত হোসনে মালিক ও মুফতি সাইয়্যেদুর রহমান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
এন ইসলাম ২০ আগস্ট, ২০২০, ১০:১৪ পিএম says : 0
শুধু শুধু মাঠ গরমের বক্তৃতা না দিয়ে উনারাওতো এই সফরের বিশ্লেষনমূলক তথ্য জাতির সামনে তুলে ধরতে পারেন । হয়তো উনাদের সময় নেই । ভারতীয় ও বাংলাদেশী প্রচার মাধ্যম সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের লেখাগুলো পড়ে যে কারনটি আমার কাছে সবচেয়ে গ্রহনযোগ্য মনে হয়েছে তা নিম্নরূপঃ দীর্ঘদিন ধরে তিস্তা চুক্তি করতে বিফল হয়ে বাংলাদেশ সরকার বিকল্প পথ অনুসন্ধান শুরু করে এবং সম্প্রতি চীনের সাথে ১০০ কোটি ডলারের একটি প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে । চুক্তিটি সম্পাদনের চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে । এই প্রকল্পের মাধ্যমে বর্ষাকালে তিস্তা নদীর পানি ধরে রেখে খরা মৌসুমে ব্যবহার করা যাবে । এই চুক্তি নিয়ে ভারতীয়মহলে তোলপাড় শুরু হয়েছে এবং তড়িঘড়ি করে শ্রিংলা সাহেবের ঢাকা আগমন । উদ্দেশ্য - বাংলাদেশকে এই চুক্তি থেকে বিরত রাখা । ভ্যাকসিন সংক্রান্ত বক্তব্য - মূল বিষয় থেকে মানুষের দৃষ্টি সরিয়ে ভ্যাকসিন বিক্রি করে ভারতের জন্য কিছু অর্থনৈতিক লাভের ব্যবস্থা করা । আমরা এও জানি, বাংলাদেশের চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ উপেক্ষা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চীনের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল আটকে দিয়েছে । এসব কার স্বার্থে হয়েছে, এ ব্যাপারে আমি কিছু বলতে চাইনা ।
Total Reply(0)
Mohammed Kowaj Ali khan ২০ আগস্ট, ২০২০, ১১:০২ পিএম says : 0
ভারতীয় ঘৃনিত।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন