ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিএনপি লড়াই থেকে সরে যায়নি -মির্জা ফখরুল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ আগস্ট, ২০২০, ৭:৪৬ পিএম

নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতার, গুম-খুনের পরও বিএনপি লড়াই করছে, কখনো সরে যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে। এটা তো অকল্পনীয় ব্যাপার। যে নেত্রী স্বাধীনতার পতাকা, গণতন্ত্রের পতাকাকে নিয়ে এগিয়ে গেছেন, জনগণ তার পেছনে ছুটেছে। সেই নেত্রীকে তারা আটক করে রেখেছে। এটার একটি মাত্র কারণ। তিনি যদি বাইরে থাকেন তাহলে জনগণকে আটকে রাখা যাবে না। আজকে আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সাহেব নির্বাসিত। আমাদের নেতারা দুই-একজন বাদ দিয়ে সকলের বিরুদ্ধে অসংখ্য মামলা। কারো কারো মামলার রায় হয়ে যাবে কিছুদিনের মধ্যে। এইরকম একটা পরিস্থিতিতেও আমরা লড়াই করছি, কখনো সরে যায়নি।

বৃহস্পতিবার বিএনপির মরহুম মহাসচিব ব্যারিস্টার আবদুস সালাম তালুকদারের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ‘ব্যারিস্টার আবদস সালাম তালুকদার স্মৃতি সংসদ’ আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের দমনপীড়নের চিত্র তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে বিএনপির ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা, এক লাখের ওপরে মামলা। হাজারো নেতাকর্মী গুম হয়েছে, খুন হয়েছে। ইলিয়াস আলীর মতো নেতা, চৌধুরী আলমের মতো নেতা, লাকসামের পারভেজের মতো নেতাসহ বহু নেতাকর্মী গুম হয়ে গেছেন। তাদের কোনো খোঁজ নেই।আমরা এই পরিস্থিতির সঙ্গে পরিচিতি ছিলাম না। আমরা গুম শব্দটা জানতামই না গুম কাকে বলে। আজকে আমরা আমাদের নেতাদেরকে গুম হয়ে যেতে দেখেছি। আমরা দেখেছি খুন করছে, বিচারবর্হিভূত হত্যাকা- চলছে এবং মানুষের সমস্ত অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে। এই অবস্থা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। প্রত্যেকটি মানুষ এখান থেকে বেরিয়ে আসতে চায়। বিশেষ করে নতুন প্রজন্ম এথান থেকে বেরিয়ে আসতে চায়।

তিনি বলেন, আমরা সংগ্রাম করছি, আমরা দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখার জন্য কাজ করছি। আমাদের সবচেয়ে বড় সফলতা হলো- দলকে ঐক্যবদ্ধ রেখেছি, বিভক্ত হতে দেয়নি। ইনশাল্লাহ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে এই দলকে ঐক্যবদ্ধ রেখেই এই যে ফ্যাসিস্ট দানবের মতো সরকার, এই সরকারকে পরাজিত করতে আমরা সক্ষম হবো, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে আমরা সক্ষম হবো। স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের পরিচালনায় আলোচনায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, কেন্দ্রীয় নেতা রুহুল কবির রিজভী, ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সিরাজুল হক, নিলোফার চৌধুরী মনি, রশিদুজ্জামান মিল্লাত, যুবদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মরহুমের সহধর্মিনী মাহমুদা সালাম, তার মেয়ে সালিমা বেগম, স্বামী মাহমুদুল হাসান, ভাতিজী সাদিয়া হক, স্মৃতি সংসদের সুজাত আলী, শামসুজ্জামান মেহেদি প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Mohammed Shah Alam Khan ২০ আগস্ট, ২০২০, ১০:১৪ পিএম says : 0
বিএনপি দল এখন রাজনৈতিক ঝুড়ির তালায় চলে গিয়েছে। এখান থেকে উঠে আসতে হলে তাদেরকে তাদের দলের সংবিধানকে জনগণমুখি সংবিধান হিসাবে রূপায়িত করতে হবে। বর্তমানে দলের সংবিধানে একজন দুষ্কৃতিকারীও দলের প্রধান হতে পারবে এই আইন যতক্ষন পর্যন্ত না পরিবর্তন করা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত দলের দফারফা হতেই থাকবে। কাজেই মির্জা ফখরুল ইসলামের মত একজন বিজ্ঞ রাজনীতিবিদ এত ভাল ভাল কথা বলার পরও তিনি অরাজনৈতিক নেতার মতকরে তোষামদি রাজনীতি অবলম্বন করে দুষ্কৃতিকারী দল নেতাদেরকে রক্ষা করার জন্যে রাশি রাশি মিথ্যা কথা বলে নিজেকে বারবার অবমূল্যায়নই করে যাচ্ছেন। শুধু তাইনয় বিএনপিতে বাঘা বাঘা রাজনীতিবিদরাও এই কারনে একেবারে চুপসে গেছেন তাদের তেমন কোন বক্তব্য পাওয়া যায়না। একারনেই এখন আওয়ামী লীগ বিএনপিকে রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে বিতাড়িত করার চেষ্টায় রয়েছে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন