ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সখিপুরে কাশেম হত্যাকান্ড এ গ্রেফতার এক,স্বীকারোক্তি জবানবন্দি

সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ আগস্ট, ২০২০, ২:৪৬ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুরে বৃদ্ধ কাশেম হত্যাকান্ডের সুরাহা হয়েছে।এ হত্যাকান্ডে গ্রেফতার আসাদুল স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। সখিপুর থানা পুলিশ ও বাদীর এজাহারে জানা যায়, আবুল কাশেম (৫০), পিতা মৃত ইমাম উদ্দিন, সাং- বেহেলাবাড়ী, পোঃ বল্লা বাজার, থানা কালিহাতি, জেলা টাঙ্গাইল এবং জামাল (৪৭), পিতা- মৃত কালু মিয়া @ কালু মাতাব্বর, সাং- বল্লা (খালপাড়) বর্তমানে কদিম খসিলা, থানা কালিহাতি জেলা টাঙ্গাইল একই সাথে চলাফেরা করতেন ও উভয়েই তাঁতের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তারা একসাথে মাঝে মধ্যে মদ্য পান করে নেশা করতেন। মাঝে মধ্যে মদ পান করার জন্য সখিপুর বহেড়াতৈল ইউনিয়নের ধোপারচালা এলাকায় আসতেন। গত ইং ১৯/০৮/২০২০ তারিখে মদ পান করার জন্য উভয়েই ধোপারচালা আসেন । ও্রই দিন রাত্রী ১০.৩০ ঘটিকা অতিবাহিত হওয়ার পরেও আবুল কাশেম বাড়ীতে ফিরে না যাওয়ায় পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজি কোন সন্ধান পান নাই। পরবর্তীতে ইং ২০/০৮/২০২০ তারিখ সকাল অনুমান ১০.৩০ ঘটিকার সময় জামাল পায়ে হেটে সখিপুর থানাধীন গোহাইলবাড়ী সাকিনে মোঃ বাবুল @ বাবলু এর ‘স’ মিলে যেযে তাকে জানান যে, আবুল কাশেম ও তিনি (জামাল) গত ইং ১৯/০৮/২০২০ তারিখ বিকাল ০৩.০০ ঘটিকার সময় তাঁতের কাজ সম্পন্ন করে সখিপুর থানাধীন ধোপারচালা সাকিনস্থ মান্দাই বাড়ীর উদ্দেশ্যে বাহির হয়ে রাত্রী অনুমান ০৭.০০ ঘটিকার সময় সেখানে পৌছাইয়া কাজ শেষে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা দেন। তারা পায়ে হেঁটে সখিপুর থানাধীন ঘাটেশ্বরী হয়ে আমবাগের দিকে যাওয়ার সময় রাত্রী অনুমান ১০.৩০ ঘটিকার সময় সখিপুর থানাধীন বহেড়াতৈল উলিয়ারচালা সাকিনস্থ শাহজাহানের সবজি বাগানের সামনে আম গাছের নিচে পায়ে হাটা কাঁচা রাস্তার উপর পৌছাইলে অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন লোক তাদেরকে উক্ত স্থানে এলোপাথারীভাবে কিল ঘুষি ও কাঠের সারক দিয়া মারপিট শুরু করে। মারপিট করে আবুল কাশেম এর নিকটে থাকা নগদ ১০০০/- টাকা ও ১টি মোবাইল ফোন মূল্য ২৫০০/- টাকা ও জামাল এর নিকট থাকা নগদ ১২০০/- টাকা ও ১টি মোবাইল ফোন মূল্য ২৫০০/- টাকা ছিনিয়ে নিয়া যায়। তখন জামাল কৌশলে দৌড়িয়ে পাশের জঙ্গলে আত্নগোপন করেন। মারপিট করার ফলে আমার পিতা আবুল কাশেম অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে যায় এবং ইং ১৯/০৮/২০২০ তারিখ রাত্রী অনুমান ১০.৩০ ঘটিকা হইতে ইং ২০/০৮/২০২০ তারিখ ভোর ০৬.০০ ঘটিকার মধ্যে যে কোন সময় মৃত্যু বরন করেছেন। আবুল কাশেম এর লাশ উক্ত স্থলে আছে। জামাল সংবাদটি আবুল কাশেম এর বাড়ীতে মোবাইল ফোনে জানিয়ে দেওয়ার জন্য স মিলের মালিক বাবলুকে অনুরোধ করেন। বাবলু সংবাদটি আবুল কাশেম এর বাড়ীতে জানান। পরবর্তীতে লাশের সংবাদ পেয়ে সখিপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যেয়ে লাশের সুরতহাল প্রস্তুত করতঃ ময়না তদন্ত সম্পন্ন করেন। উক্ত ঘটনায় সখিপুর থানার মামলা নং ১২ তাং ২৪/০৮/২০২০ ইং ধারাঃ ৩৯৪/৩০২ পেনাল কোড রুজু করা হয়।

পরবর্তীতে টাঙ্গাইল পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, বিপিএম এর নির্দেশনায়, মোঃ আমির হোসেন অফিসার ইনচার্জ সখিপুর থানা, টাঙ্গাইল সার্বিক তত্বাবধানে তদন্তকারী অফিসার এসআই/বিজয় দেবনাথ, সঙ্গীয় এসআই/ মোঃ আজিজুল ইসলাম, এসআই/ অমল চন্দ্র রায়, এএসআই/ কবির উদ্দিন, এএসআই/ আব্দুল হাকিম বিদ্যুৎ, এএসআই/ মোস্তাফিজুর রহমান, এএসআই/ মোঃ শাহীন আলম, কং/৪৮০ সুলতান সর্ব থানা সখিপুর, জেলা টাঙ্গাইলগন অত্যান্ত গুরুত্ব সহকারে বিভিন্ন ধরনের কলা কৌশল ব্যবহার করে ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত আসামী ১। মোঃ আসাদুল ইসলাম (২০), পিতা সবদুল, সাং- ঘাটেশ্বরী (গিলারচালা), থানা সখিপুর, জেলা টাঙ্গাইলকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করেছেন। আসামী মোঃ আসাদুল ইসলাম ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় বিজ্ঞ আদালতে স্বেচ্ছায় ফৌঃ কাঃ বিঃ আইনের ১৬৪ ধারা মোতাবেক দোষ স্বীকারোক্তী মূলক জবানবন্দী প্রদান করেছেন। সখিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.্সআমির হোসেন বলেন,অতি দ্থেরুত সময়ে কাশেম হত্যাকান্ডের সুরাহা হয়েছে এবং এ হত্যাকান্ডের সাথে আরো যারা জড়িত সেইসব আসামীদেরকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত আছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন