ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

নাভালনিকে বিষ প্রয়োগ করায় ন্যাটো প্রধানের নিন্দা ও তদন্তের দাবি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:১২ পিএম

ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সি নাভালনিকে নোভিচক নার্ভ এজেন্ট নামের বিষ প্রয়োগে বুধবার নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এবং মস্কোর কাছে যথাযথ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।
স্টলটেনবার্গ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘জার্মান সরকার ঘোষণা করেছে যে, নাভালনিকে নোভিচক গ্রুপের নার্ভ এজেন্ট রাসায়নিক বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। এটি দুঃখজনক এবং আমি এর নিন্দা জানাই।’
বার্লিন বলেছে, জার্মান সশস্র বাহিনীর রাসায়নিক অস্ত্র পরীক্ষাগারে টেস্ট করে ‘স্পষ্ট প্রমাণ’ পাওয়া গেছে যে, নাভালনিকে নোভিচক গ্রুপের বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে।
স্টলটেনবার্গ বলেন, সামরিক রাসায়নিক অস্ত্র হিসেবে এই নার্ভ এজেন্ট তৈরি ও ব্যবহারের বিষয়ে রুশ কর্তৃপক্ষের সম্পূর্ণ ও স্বচ্ছ তদন্ত জরুরি। তিনি এর সঙ্গে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।
এর আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রধান কূটনীতিক জোসেফ বোরেলও রুশ কর্তৃপক্ষকে আলেক্সি নাভালনির দেহে স্পষ্টত: বিষ প্রয়োগের বিষয়ে “স্বাধীন ও স্বচ্ছ তদন্ত” শুরুর আহবান জানিয়েছেন।
জার্মান হাসপাতালে টিকিৎসাধীন নাভালনির টেস্টে বিষ প্রয়োগের ইঙ্গিত পাওয়ার কয়েক ঘন্টা পরে বোয়েল বলেন, “নাভালনির জীবনের ওপর স্পষ্টতঃ হুমকির ব্যাপারে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।”
এদিকে একমাত্র ভøাদিমির পুতিন ছাড়া কেউ বিষ প্রয়োগের অনুমোদন দিতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার বিরোধী নেতা আলেক্সেই নাভালনির একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। সরকারের সমালোচনা করায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে গতকাল বুধবার তিনি অভিযোগ করেন। তবে রাশিয়ান সরকারের পক্ষ থেকে সব অভিযোগ অস্বীকার করে সত্যিই বিষ প্রযোগের ঘটনা ঘটেছিল কিনা তা নিয়েও সন্দেহ পোষণ করা হয়। খবর রয়টার্সের।
এর আগে দেশটির ৪৪ বছর বয়সি বিরোধী নেতা নাভানলিকে সাইবেরিয়া থেকে মস্কোতে ফেরার সময় বিমানে খাদ্যে বিষ প্রযোগ করা হয়েছিল। পরবর্তীতে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জার্মানীতে পাঠানো হয়। গুরুতর অসুস্থ এ নেতার বন্ধু ইভান জাধানব সরাসরি পুতিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও এ ব্যাপারে কোন সত্যতা উপস্থাপন করেননি।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে রাশিযার সাবেক এক গোয়েন্দাকে ইংল্যান্ডে একইভাবে বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়। সেখানে রাশিয়া সরকারের হাত ছিল বলে মনে করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন