ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মুসলিমবিদ্বেষে অভিযুক্ত বিজেপি নেতাকে নিষিদ্ধ করল ফেসবুক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

চাপের মুখে পড়ে অবশেষে তেলঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিংহের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। রোহিঙ্গা ও মুসলিমবিদ্বেষী সাম্প্রদায়িক উসকানি বা ঘৃণ্য বক্তব্য ছড়ানোর হিংসায় উস্কানি বা বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের অভিযোগে বৃহস্পতিবার ভারতের ক্ষমতাসীন দলের ওই নেতার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বিজেপি’র প্রতি পক্ষপাত দেখাচ্ছে এবং ঘৃণা ও বিদ্বেষমূলক প্রচারণায় সহায়তা করছে বলে ফেসবুকের বিরুদ্ধে অনেকদিন ধরেই অভিযোগ উঠেছে। এ জন্য পার্লামেন্টারি কমিটির সামনে জবাবদিহিতা করতে বুধবার ফেসবুকের শীর্ষ নির্বাহীদের তলবও করা হয়। ফেসবুকের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ঘৃণা এবং হিংসায় উস্কানিমূলক পোস্ট আমাদের নীতির পরিপন্থী। আমরা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পোস্টগুলি মূল্যায়ন করে দেখেছি, সেগুলি আমাদের নীতি লঙ্ঘন করছে। তাই আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে তার অ্যাকাউন্ট সরানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

গত মাসে মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত খবরে ফেসবুকের বিরুদ্ধে সরাসরি বিজেপির প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের অভিযোগ তোলা হয়েছিল। প্রকাশিত খবরে দাবি করা হয়, ভারতের শাসক দল বিজেপিকে রাগাতে ভয় পান ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। কারণ, তাতে ব্যবসায়িক ক্ষতির সম্ভাবনা প্রবল। আর তাই বিজেপি নেতাদের হিংসায় উস্কানি বা বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করেন না ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এমনকি, এ বিষয়ে ঘোষিত নীতি ভাঙতেও পিছপা হয় না জাকারবার্গের সংস্থা। প্রকাশিত প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়, সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে হিংসায় প্ররোচনা দিতে ফেসবুকে একাধিকবার বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করেছেন তেলঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিংহ।

‘বিপজ্জনক ব্যক্তি এবং সংস্থা’ নীতির ভিত্তিতে রাজাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার জন্য সুপারিশ করেছিলেন ফেসবুক কর্মীরা। কিন্তু সংস্থার ভারতীয় শাখার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাসের হস্তক্ষেপেই ওই বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে জানানো হয় প্রতিবেদনে। বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের অভিযোগ উঠেছিল কপিল মিশ্র, অনন্ত হেগড়ে-সহ একাধিক বিজেপি নেতার বিরুদ্ধেও। কিন্তু সংস্থার কর্মীদের আঁখি স্পষ্ট বলে দেন, বিজেপি নেতাদের আইনভঙ্গকারী হিসেবে শাস্তি দিলে ভারতে ফেসবুকের ব্যবসায়িক ক্ষতি হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে বুধবার হায়দরাবাদের ঘোসামহলের প্রভাবশালী বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে ফেসবুকের পদক্ষেপ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। সূত্র : ডন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (10)
মেহেদী ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৫ এএম says : 0
শুধু নিষিদ্ধ না, ফেসবুকে ওর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী হিসেবে প্রচারণা চালানো হোক।
Total Reply(0)
গাজী ওসমান ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৫ এএম says : 0
ভারতের উগ্রবাদী সকল হিন্দু নেতাকে নিষিদ্ধ করা উচিত।
Total Reply(0)
Afzal Sharif ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৩ এএম says : 0
ধন্যবাদ ফেসবুক,
Total Reply(0)
Ab Jalil ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৩ এএম says : 0
ওকে একটু গোমূত্র খাইয়ে দাও
Total Reply(0)
Mohammad Hafiz ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৪ এএম says : 0
Very good..fb
Total Reply(0)
Moktar Msstore ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৪ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ
Total Reply(0)
MD Nesar Uddin ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৪:০৪ এএম says : 0
ধন্যবাদ মার্ক জাকারবার্গ
Total Reply(0)
সৈয়দ আদনান ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:২০ পিএম says : 0
এই দলের জন্ম ও গঠনতন্ত্র জানলে সব পরিষ্কার হয়ে যাবে।
Total Reply(0)
Jack Ali ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১১:৫২ এএম says : 0
May Allah wipe out BJP government by corona Virus. Ameen
Total Reply(0)
Jaff ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:১৫ এএম says : 0
Akhi das is the main criminal.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন