ঢাকা শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

টিএনও’র উপর হামলার দুই আসামীর ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর

অপর আসামী আদালতে হাজির করা হয়নি

দিনাজপুর অফিস | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৭:৪২ পিএম

দিনাজপুরের টিএনও ওয়াহিদা খানম এর উপর হামলা ঘটনার র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তি দেয়া তিন আসামীর মধ্যে দুই আসামী সান্টু ও রকিবুলকে ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। আজ দিনাজপুরের গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ ইমাম জাফর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শিশির কুমার বসুর আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। আদালত ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করলে ডিবি পুলিশ তাদের হেফাজতে নিয়ে যান। অপর আসামী আসাদুল হক অসুস্থ হওয়ায় র‌্যাবের তত্বাবধানে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে ছাড়পত্র সহকারে তাকে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু করে। যে কোন সময় গোয়েন্দা শাখার কর্মকর্তারা তাকেও আদালতে হাজির করবেন বলে দায়িত্বশীল ডিবি কর্মকর্তা জানান। উল্লেখ্য আসামী গ্রেফতারে পুলিশ র‌্যাবসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালায়। আটক করা হয় দুই যুবলীগ নেতা, নৈশ প্রহরীসহ মোট ৬ জনকে। গতকাল র‌্যাব প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে তিনজনকে আসামী করে জাহাঙ্গীর, পলাশসহ অন্যান্য ছেড়ে দেয়ার কথা জানান।
এসময় র‌্যাব ১৩ অধিনায়ক জানান আসাদুল চুরির উদ্দেশ্যেই এই কাজ করেছে নবিউলের পরিকল্পনায়। তবে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি চুরির বিষয়টি নিয়ে বলেন এখন আরো অধিকতর তদন্ত হবে আর তদন্ত হলেই প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে। অর্থাৎ বিষয়টি যে নিছক চুরির ঘটনা নয় সাধারন জনগনের মত আইন শৃংখলা বাহিনী মানতে নারাজ।
এদিকে টিএনও ও তার বাবার উপর হামলা ঘটনা নিয়ে দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। জীবনের ঝুকি নিয়ে উপজেলার সুরক্ষিত এবং প্রশাসনের সর্বোচ্চ সরকারী অফিস এবং অফিস প্রধানের বাসায় কেবল চুরির জন্য প্রবেশ করবে সাধারন জনগনসহ টিএনও’র সহকর্মী এমনটি এক্স্র সার্ভিস ক্যাডার সদস্যসহ বিভিন্ন মহল এটাকে মেনে নিতে পারছেন না। আর চুরি করতে যেয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাতের পর কোন মালামাল না নিয়েই পালালো কেন দূর্বত্তরা ?
আহত টিএনও ও বাবাকে উদ্ধারের সময় সংগৃহিত আলামত ও ছবি তোলা অথবা সংরক্ষন করা হয়েছে কিনা। আর করা হলে সেগুলি আদালতে দাখিল করা হয়েছে কিনা। অপরদিকে দিনাজপুর -৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলি সাদিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে জাহাঙ্গীরকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। যদিও র‌্যাব কার্যত প্রাথমিকভাবে ছেড়ে দিয়েছে। তবে ছেড়ে দেয়ার পর জাহাঙ্গীরসহ অন্যান্যরা কোথায় আছেন তা জানা যায়নি।
যা হোক সঠিক তদন্ত হলে উপজেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তার বাড়ীতে ঢুকে হামলার বিষয়ে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে আসতে পারে। বের হয়ে আসতে পারে থলের বিড়াল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন