ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সাবোটাজ কি না জানতে তদন্ত দাবি বিএনপির

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনা ইচ্ছাকৃতভাবে সাবোটাজ করা হয়েছে কি না জানতে উচ্চ পর্যায়ের বিশেষজ্ঞদের তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এটা কী বিদ্যুতের জন্য, গ্যাস কিংবা এসির জন্য না কী আপনার ইচ্ছাকৃত নাশকতামূলক কাজ হয়েছে কি না এ ব্যাপারে জাতি জানতে পারছে না। এই ব্যাপারে উচ্চ পর্যায়ের বিশেষজ্ঞ কমিটি দিয়ে অবিলম্বে তদন্ত কমিটি করা দরকার। এটার সঠিকভাবে তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা দরকার এবং তাদের শাস্তির বিধান করার দরকার।
গতকাল সোমবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
সরকারের গঠিত তদন্ত কমিটির বক্তব্যের প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ঘটনাটা খুবই রহস্যজনক। গভমেন্টের যে ভার্সন, সেই ভার্সনগুলো বিভিন্ন রকম হচ্ছে। ফায়ার বিগ্রেড প্রথমদিন একরকম কথা বলেছে, পরে বিদ্যুৎ বিভাগের লোকেরা গিয়েছে তারা এক রকম কথা বলেছে, গ্যাসের লোকেরা গিয়ে তারা আরেক রকম কথা বলেছে। এরই মধ্যে ২৬ জনের প্রাণ চলে গেছে। বাকিদের শ্বাসনালীসহ পুরো শরীর দগ্ধ হয়েছে। আরো যে কত জন মারা যাবে তা বলা মুশকিল। দুর্ভাগ্যজনক যে, এই ঘটনাকে সেই রকম গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।
তিনি বলেন, এটা (মসজিদের বিস্ফোরণ ঘটনা) নিয়ে তাদের বেশ কিছু বক্তব্য শোনা গেছে, যেগুলো বিভ্রান্তিকর। যেমন বলা হচ্ছে- বেআইনিভাবে সরকারি জায়গার ওপরে গ্যাস লাইনের ওপরে মসজিদ করা হয়েছে। এটা তো এই মুহূর্তে বিবেচ্য বিষয় নয়। এই মুহূর্তের বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে- বিস্ফোরণ ঘটলো কিভাবে? এই বিস্ফোরণের প্রকৃতিটা কী, তার চরিত্রটা কী? আহতদের রাষ্ট্র থেকে ক্ষতিপূরণের দাবিও জানান ফখরুল।
স্থানীয় সরকারসহ উপ-নির্বাচনে যাবে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে জানিয়ে দলটির মহাসচিব বলেন, আমাদের বরাবরই সিদ্ধান্ত ছিল নির্বাচনে অংশ নেয়ার। শুধুমাত্র কোভিড-১৯ এর কারণে দুইটি উপনির্বাচনে (যশোর ও বগুড়া) যোগ দিয়েও পরবর্তীকালে আমরা প্রচারণায় যাইনি, সরে দাঁড়িয়েছি। উপজেলা নির্বাচনসহ স্থানীয় নির্বাচনগুলোতে আমরা অংশগ্রহণ করব সেই সিদ্ধান্তই আছে।
সিনহা হত্যা বিগ রুটেড মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, মেজর অবসরপ্রাপ্ত সিনহার হত্যার বিষয়টা অত্যন্ত বিগ রুটেড। এখানে অনেকগুলো বিষয় সামনে চলে এসেছে। একটা হচ্ছে, স্পটে এক্সট্টা জুডিশিয়াল কিলিং। পুলিশকে এই অথোরিটি কে দিয়েছে? এখন পর্যন্ত আমাদের জানা নেই যে, পুলিশ মুহূর্তের মধ্যে কাউকে গুলি করে হত্যা করতে পারে। দুই নাম্বার হচ্ছে যে, হত্যার ইম্যুনিটি (দায়মুক্তি) দেয়া হয়েছে কি না। আমরা জানি না এই ধরনের দায়মুক্তি পুলিশের আছে কি না কাউকে গুলিকে হত্যা করতে পারে।
সিনহা হত্যাকান্ডের ঘটনা ধামচাপা দেয়া হচ্ছে- অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বলা হচ্ছে যে, এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। কোনোভাবে এটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। আমরা যে রিপোর্ট পড়লাম গণমাধ্যমের মাধ্যমে সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, প্রায় ২০০ লোক কিলিং হয়েছে কক্সবাজারে, সেগুলো বিচারবহির্ভূত হত্যা। অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারদের কোটি কোটি টাকার সম্পদ, বিভিন্ন জায়গায় সম্পদ। এ থেকে প্রমাণিত হয়, পুলিশের এই এজেন্সিরা এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংস্থারা তারা সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। এই সমস্যা বিএনপির সমস্যা নয়, গোটা জাতির সমস্যা। যখন একটা ছেলেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় এবং তার হদিস পাওয়া যায় না সেটা শুধু আওয়ামী লীগ-বিএনপি বলে নয়, যেকোনো মানুষের জন্য নিরাপত্তার ব্যাপার, তার পরিবারের ভবিষ্যতের ব্যাপার। অবিলম্বে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাসবপ বন্ধ ও যারা বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিও জানা তিনি।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দিনাজপুরের ঘোড়ারঘাটে ইউএনওকে রাতে হত্যার উদ্দেশ্যে আহত করা হলো আর র‌্যাব একটা প্রেস কনফারেন্স করে বলে দিল যে, চুরির জন্য আক্রমণ করা হয়েছে। যেটা আমরা মনে করি যে, একেবারেই দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক প্রতিচ্ছবি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংস্থাগুলোকে কারো কাছে জবাবদিহি করতে হয় না বলেই চট করে একটা সংবাদ সম্মেলন করে বলে দেয় যে, চুরির জন্য ঘটনা ঘটছে। গোটা বিষয়টা ডাইভার্ট হয়ে গেল।
এই অবস্থা থেকে উত্তরণে গণতান্ত্রিক ও জবাবদিহিতামূলক সরকার প্রতিষ্ঠায় জনগণকে ‘ঘুরে দাঁড়ানো’ উচিত উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, মানুষের এখন এই সরকারের কাছে জবাব চাওয়া উচিত। সরকারকে বলা উচিত- এনাফ ইজ এনাফ। দয়া করে বাংলাদেশের মানুষকে ক্ষমা দাও, তোমরা চলে যাও এবং তত্তবক্বধায়ক সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করার ব্যবস্থা করো।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন