ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

টাকা ফেরত দিলেন হ্যারি-মেগান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৫:৫৮ পিএম

ব্রিটিশ রানীর পাওনা ২৪ লাখ পাউন্ড বা প্রায় ২৭ কোটি টাকা ফেরত দিলেন প্রিন্স হ্যারি ও মেগান দম্পতি। রাজপরিবারের দায়িত্ব ও খেতাব ত্যাগ করলে তাদেরকে এই অর্থ ফেরত দিতে হবে বলে জানানো হয়েছিল। সে অনুযায়ি তারা দেনা শোধ করেছেন বলে সোমবার জানিয়েছেন তাদের এক মুখপাত্র।

২০১৮ সালে হ্যারি ও মেগানের বিয়ের পরে তাদেরকে উইন্ডসর প্রাসাদের কাছের ‘ফ্রগমোর কটেজ’ উপহার দিয়েছিলেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। সেই বাড়ি সংস্কারের জন্য ২৪ লাখ পাউন্ড ব্যয় হয়। এই টাকা দেয়া হয়েছিল রাজ পরিবারের জন্য ব্রিটিশ জনগণের দেয়া করের তহবিল থেকে। যেহেতু তারা রাজপরিবারের সদস্য থাকছেন না, সুতরাং তাদের বাড়ি সংস্কারের দায়িত্বও তাদের। যার ফলে সংস্কার কাজে ব্যয় হওয়া অর্থ ফেরত দিতে বলা হয়েছিল তাদেরকে।

বাড়িটি এখনো সাবেক ডিউক ও ডাচেস অব সাসেস্ক হ্যারি ও মেগানের নামেই থাকছে। যুক্তরাজ্যে গেলে তারা সেখানে অবস্থান করতে পারবেন। তাদের মুখপাত্র বলেছেন, ‘রানির সম্পত্তি ফ্রগমোর কটেজ সংস্কারে যেই টাকা খরচ হয়েছিল তার পুরোটাই দিয়েছেন প্রিন্স হ্যারি। তবে কটেজটি ডিউক ও তার পরিবারের যুক্তরাজ্যের বাসভবন হিসেবে এখনো থাকছে।’

গত সপ্তাহে এই দম্পতি ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। তারা বিনোদন সাইটটির জন্য সিনেমা, ডকুমেন্টারি, সিরিয়াল প্রযোজনা করবেন। যদিও নেটফ্লিক্সের সঙ্গে তাদের কত টাকার চুক্তি হয়েছে তা জানা যায়নি। সম্প্রতি হ্যারি ও মেগান ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা বারবারাতে বাড়িও কিনেছেন।

গত মার্চে ব্রিটেন ছেড়েছেন বহু আলোচিত এই দম্পতি। প্রথমে তারা ক্যানাডায় যান। তারপর যান লস এঞ্জেলসে। রাজপরিবার ছেড়ে বেরিয়ে আসার সময়ই জানিয়ে দিয়েছিলেন, তারা আর্থিকভাবে স্বনির্ভর হতে চান এবং যুক্তরাজ্যের মানুষের করের পয়সা আর নেবেন না। সূত্র: ডিপিএ, রয়টার্স, এপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন