ঢাকা শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রিমান্ড শেষে আজ রবিউলকে আদালতে হাজির করা হবে

ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলা

দিনাজপুর অফিস | প্রকাশের সময় : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার পিতার উপর হামলা’র ঘটনায় গ্রেফতার মালি রবিউলকে ৬ দিনের রিমান্ড শেষে আজ আদালতে হাজির করা হবে। ইতিমধ্যে পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি প্রেস ব্রিফিংয়ে রবিউলকে গ্রেফতার এবং তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক হামলায় ব্যবহৃত হাতুড়ি, মইসহ অন্যান্য মালামাল উদ্ধারের কথা জানিয়েছেন।

এদিকে রিমান্ড শেষে আজ তাকে আবারও রিমান্ডে নেয়া হবে নাকি সে স্বেচ্ছায় ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিবে সে বিষয়ে কিছু বলতে নারাজ তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। এদিকে রিমান্ড থাকা অবস্থায় পুলিশের কাছে কি তথ্য দিয়েছে তার বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে খবর প্রচারিত হয়েছে। সে সব খবরে রবিউলের উপর ১৬ হাজার আবার কোনো প্রতিবেদনে ৪০ হাজার আবার কোনো প্রতিবেদনে ৫০ হাজার টাকা চুরির দায় চাপানো হয়। রবিউল চাকরি বাঁচাতে ইউএনওকে ৫০ হাজার টাকা ফেরত দিলেও তাকে সাময়িকভাবে সাসপেন্ড করা হয়। এই ঘটনা গত ফেব্রুয়ারি মাসে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দিনাজপুরের পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেনের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয়। তবে তিনিও এ ঘটনার সঠিক তথ্য স্পষ্ট করে জাননি। উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, হামলা ঘটনার পর থেকে তথ্য প্রদানে পুলিশ অনেকটা সাবধানী এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে এড়িয়ে যান। অথচ রিমান্ডে থাকাকালীন রবিউলের স্বীকারোক্তি’র বিষয়টি পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে প্রকাশ হওয়ায় সচেতন মহলে ব্যাপক আলোচনা’র ঝড় উঠেছে। অপরদিকে, পরিবার থেকে পরিকল্পিতভাবে রবিউলকে ফাঁসানোর অভিযোগ তোলা হয়েছে। রবিউলের শশুর বাড়ী থেকে হাতুড়ি নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে তার শশুর আবু বক্কর সিদ্দিক জানিয়েছেন। রবিউলের স্ত্রী বলেছেন, পুলিশ তাকে নিয়ে শশুর বাড়ি থেকে হাতুড়ি নিয়েছে। তবে পুলিশ বরাবর একই কথা বলছে তদন্ত সাপেক্ষে হামলার কারণ এবং হামলাকারীকে চিহ্নিত করে আদালতে উপস্থাপন করা হবে। রিমান্ডে থাকা রবিউলের কাছে কি তথ্য এবং প্রমাণ পেয়েছে আদালতে হাজিরের পর এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, গত ২ সেপ্টেম্বর দিনগত রাতে ইউএনও ওয়াহিদার সরকারি বাসভবনের ভেন্টিলেটর ভেঙে বাসায় ঢুকে ওয়াহিদা ও তার বাবার ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে ইউএনও ও তার বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে ইউএনওকে প্রথমে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (রমেক) নিয়ে ভর্তি করা হয়। এরপর তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে তাকে ঢাকায় আনা হয়। পরে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। এছাড়াও তার বাবা ওমর আলী শেখকেও ঢাকা আনা হচ্ছে। তাকেও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারা দুইজনের শারীরিব অবস্থা আগের চেয়ে অনেক উন্নত হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Farhana Jahangir ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৪০ এএম says : 0
এত টাকা বাসায় এল কিভাবে ঘুষের বিনিময়ে আনা হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখতে হবে পুলিশকে আর চাকরি করা একজন সরকারি কর্মকর্তা তার বেনেটি বেগে পঞ্চাশ হাজার টাকা হওয়ার কথা নয় মনে হচ্ছে সরকারি কর্মকর্তা মানে টাকা ইনকাম করার মেশিন।
Total Reply(0)
Md Rashad Khan ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৪০ এএম says : 0
একজন ইউ এন ওর বাসায় এতো টাকা কিসের দয়াকরে জানাবেন
Total Reply(0)
Md Easin ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৪১ এএম says : 0
এবার বলবে ঐ মহিলা ৪০ লাখ টাকা পেলো কোথায় তার পর দিরে দিরে এদের বিছার বাদ সুরু হবে দুদোক আসবে ৪০ লাখ টাকার খোজে এর পর সুরু হবে হেমিলিয়নের বাসি হলার গল্প
Total Reply(0)
Molla Mamun ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৪১ এএম says : 0
এটাই north bengal ক্ষমতা village politics এর কাছে একজন uno ও অসহায়। আর সাধারণ মানুষের কথা তো বাদ ই দিলাম।
Total Reply(0)
Md Mithu ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১:৪৩ এএম says : 0
বাংলাদেশে প্রতিটা নাগরিকের সাথে একটি করে নিরাপত্তা রক্ষী দেওয়া হোক কারন প্রতিটা নাগরিক নিরাপত্তা হীনতার ভুক্তভোগী। স্বাধীন দেশের জনগন এখনও পরাধীন...............।
Total Reply(0)
Sheikh Mehedi Hasan ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:১৪ এএম says : 0
সমাজের এই সব নেক্কার জনক ঘটনা দূর হবে না যতক্ষণ পর্যন্ত সমাজে থেকে বিশৃঙ্খলা, আর্থিক সচ্ছলতা, অরাজকতা, দূর্নীতি অনিয়ম দূর হবে।
Total Reply(0)
Md Shahin ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:১৫ এএম says : 0
এখন দেশের বর্তমান অবস্থা হয়ে গেছে নাইজেরিয়ানদের মত তারা যা খুশি তাই করে বাংলাদেশে এমন হয়ে গেছে দেশের বিচার ব্যবস্থা না থাকার কারণে
Total Reply(0)
Mohammed Shah Alam Khan ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:৪৮ এএম says : 0
রবিউল জজ মিয়ার অভিনয় করছেন এটা পরিষ্কার বুঝা যাচ্ছে। গরীবতাঁর সুযোগ নিয়ে পুলিশ এধরনের লোকদেরকে জজ মিয়াঁ বানিয়ে তাদের (পুলিশের) মনমত গল্পের নায়ক বানিয়ে হাকিমের সামনে নিয়ে যায় এবং জবানবন্দি দেয়। মামলার প্রকৃত ঘটনা চাপা পরেযায় পুলিসদের পকেট বানিজ্যের কারনে।
Total Reply(0)
Badrul Alam ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:৪০ এএম says : 0
মালিকে দেখে তো মনে হচ্ছে সে একটা মুরগি ও চুরি করতে পারবে না, সে তো খাটো আর ভিডিও ফুটেজ যা দেখলাম সে তো অনেক লম্বা,, একবার সুনলাম আসাদুল প্রথম আসামি,,তারপর আবার এলো মালি ,,অথচ মালি দোষ স্বীকার করে টাকা ফেরত ও দিয়েছে তাহলে,,আর ঘটনার রাতে সে বিরলেই ছিল,,কোন রকম পরিকল্পনা ছাড়াই একা কেন এই হামলা ,,কাল দেখা যাবে অপরিচিত কোন ভিক্ষুক কে প্রধান আসামি করেছেন,,দিনদিন সরকার জনগনকে জিম্মি করে ফেলেছে আজকাল নেতাদের দেখলেই আনেক ভয় লাগে,, আমরা সাধারণ জনগণ ও নিরাপত্তা হীনতায় ভূগছি,, পুলিশ সরকার সবকিছু মিলিয়ে কেমন জানি সব উডভুট হয়ে যাচ্ছে,, তারা যা বলছে পাবলিক তো সবই গিলছে ,, পাবলিক ও বোঝে অন্তর থেকে ঘৃণা করা ছাড়া উপায় ও তো নেই,,আজ সেই গল্পের মতো মনে হয় আমরা ন্যাংটা রাজার দেশে বাস করছি না তো ‌।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন