ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বরিশালে পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হামলা-ছিনতাইয়ের অভিযোগ

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

বরিশাল মহানগরীতে সিটি কর্পোরেশনের নিয়ম বহির্ভ‚তভাবে ভবন নির্মাণের কাজে বাঁধা দেয়ার কারণে মারধর করে টাকা ও মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। সিটি কর্পোরেশনের প্লান ছাড়াই ভবন নির্মাণের পায়তারা চালায় ওই পুলিশ সদস্য এমন অভিযোগ এনে গতকাল দুপুর ১২টায় বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগীরা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, হামলার শিকার নগরীর সিএন্ডবি রোডস্থ ২২ নম্বর ওয়ার্ডের মাতৃছায়া সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা সুলতান আহমেদের ছেলে মো. শামীম আহম্মেদ।

শামীম আহম্মেদ অভিযোগ করেন, খুলনায় কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তা একই এলাকার বাসিন্দা কামাল হোসেন ২০১৪ সালে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্ল্যান ছাড়াই ভবন নির্মাণ শুরু করে। শামীম আহম্মেদের মা জাহানারা বেগমের বাড়ি ঘেঁষে নির্মাণ সামগ্রী রেখে কাজ শুরু করে। এতে প্রথমে মৌখিকভাবে বাঁধা প্রদান করলে পুলিশ কর্মকর্তা কামাল তাদেরকে হুমকি দিতে শুরু করেন। উপায়ান্তর না পেয়ে শামীম আহম্মেদের মা জাহানারা বেগম বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগের প্রেক্ষিতে অনুমোদিত প্ল্যান দেখাতে না পারায় নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয় সিটি কর্পোরেশন। কিন্তু পরবর্তীতে পুলিশ কর্মকর্তা বিসিসির প্ল্যান না নিয়েই পুনরায় কাজ শুরু করেন। বিষয়টি নিয়ে চলতি বছরে জাহানারা বেগম পুনরায় সিটি কর্পোরেশনে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কামাল হোসেন ও তার ছেলে সামিউল মতিউর রহমানকে নিয়ে গত ১৪ সেপ্টেম্বর নগরীর চৌমাথা এলাকায় বসে শামীম আহম্মেদের পথরোধ করে হামলা চালায়। হামলাকারীরা শামীম আহমেদকে মারধর করে তার সাথে থাকা ১ লাখ ১০ হাজার টাকা ও একটি মটর বাইক নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা শামীমকে উদ্ধার করে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার দিনই শামীম বরিশাল কোতয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু ওই অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালী থানার এসআই রেজাউল শামীমকে বিষয়টি মীমাংসার কথা বলে। কিন্তু শামীম মীমাংসা না করে আইনের মাধ্যমে তাদের শাস্তির দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কর্মকর্তার বিষয় হওয়ায় থানা থেকে তাদের কোন প্রকার সহযোগিতা করা হচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন শামীম আহমেদ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন